Prothom Kolkata

Popular Bangla News Website

‘এই সরকারকে অবিলম্বে বরখাস্ত করুন রাজ্যপাল’, ২১ জুলাই মমতার জেহাদ ঘোষণার পাল্টা শুভেন্দু

।। প্রথম কলকাতা।।

২১ সে জুলাই বিজেপির বিরুদ্ধে জেহাদ ঘোষণা করতে চলেছেন তৃণমূল সুপ্রিমো তথা রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। এবারের শহীদ দিবসের মঞ্চ থেকে বিজেপির বিরুদ্ধে জেহাদ ঘোষণা করা হবে বলে জানিয়েছেন তৃণমূল নেত্রী। এর প্রতিবাদে তৃণমূল সরকার ফেলে দিয়ে রাজ্যে রাষ্ট্রপতি শাসন জারির দাবি করলেন রাজ্যের বিরোধী দলনেতা শুভেন্দু অধিকারী। আজ রাজ্যপালের সঙ্গে সাক্ষাৎ করে বিজেপির একটি প্রতিনিধিদল, যে দলে ছিলেন শুভেন্দু অধিকারী। রাজভবন থেকে বেরিয়ে গণমাধ্যমের মুখোমুখি হলেন তিনি। সেখান থেকে তৃণমূল সরকার উচ্ছেদের ডাক দিলেন তিনি।

রাজ্যের বিরোধী দলনেতা শুভেন্দু অধিকারী জানান, ” মুখ্যমন্ত্রী তথা তৃণমূল কংগ্রেস কোম্পানির মালিক বন্দোপাধ্যায় বলেছেন আগামী একুশে জুলাই শহীদ দিবস আসছে ওই দিন ভারতীয় জনতা পার্টির বিরুদ্ধে জেহাদ শুরু হবে। জেহাদের ডাক দেওয়া হয়েছে, তাতে আমরা উদ্বিগ্ন। কারণ জেহাদ রাষ্ট্রভাষা হিন্দি বা সুমধুর বাংলা ভাষার শব্দ নয়। এটি একটি আরবী শব্দ। এর বাংলা মানে করলে দাঁড়ায়, ধর্মযুদ্ধের ডাক দেওয়া। একসময়ের যুব কংগ্রেসের কর্মসূচি নিয়ে শহীদ দিবস পালন করা হয়। তার সঙ্গে জেহাদ বা ধর্মযুদ্ধের কোন সম্পর্ক আছে বলে আমরা মনে করি না।”

“এই শব্দটা বলেছেন অত্যন্ত সচেতন ভাবে। এটা নিয়ে চিন্তিত আমরা, কারণ সরাসরি পশ্চিমবঙ্গের ২ কোটি ২৮ লক্ষ নাগরিকের বলা হয়েছে, যারা ভারতীয় জনতা পার্টিকে ভোট দিয়েছিলেন। যারা বিজেপিকে ভোট দিয়েছে তাদের বিরুদ্ধে ধর্মযুদ্ধ ঘোষণা করার তিনি নির্দিষ্ট দিন ঘোষণা করেছেন। তাই আমরা সাংবিধানিক প্রধানের কাছে নিরাপত্তা চেয়েছি। এই মুখ্যমন্ত্রীর জেহাদের নমুনা আমরা দেখেছি সিএএ নিয়ে, ভোট পরবর্তী হিংসা, যেখানে মগরাহাটের বিজেপি প্রার্থী সহ ৫৭ জন কর্মী, সমর্থক আত্ম বলিদান দিতে বাধ্য হয়েছেন। লক্ষাধিক মানুষ ঘরছাড়া। নূপুর শর্মা ইস্যুতে মুখ্যমন্ত্রীর জেহাদের নমুনা আমরা দেখেছি। যারা রাষ্ট্রবিরোধী, যারা আলকায়েদার সমর্থক, যাদের সঙ্গে বাংলাদেশের জামাতের যোগাযোগ আছে। চারদিন ধরে পশ্চিমবঙ্গের চার নম্বর জাতীয় সড়ক সহ হাওড়া, মুর্শিদাবাদ, নদিয়া জেলাতে দেখেছি।”

শুভেন্দু অধিকারী জানান, “আবার একটি জেহাদ শুরু করার কথা তিনি ঘোষণা করেছেন। তাই এই সরকারকে অবিলম্বে বরখাস্ত করার সাংবিধানিক দায়িত্ব আছে মহামান্য রাজ্যপালের। যা তিনি পালন করুন ৩৫৬ ধারা প্রয়োগ করে। এই একটি শব্দের জন্য এই সরকার প্রধানের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়া হোক, এই দাবি বিজেপির প্রতিনিধি মন্ডল করেছে। আবেদন গ্রহণ করেছেন রাজ্যপাল। সমস্ত তথ্য প্রমাণ নিয়ে তাঁর যা করণীয় তিনি করবেন।”

খবরে থাকুন, ফলো করুন আমাদের সোশ্যাল মিডিয়ায়

সব খবর সবার আগে, আমরা খবরে প্রথম

Categories