Prothom Kolkata

Popular Bangla News Website

North 24 Pargana: একাধিক দুর্নীতিতে জর্জরিত অঞ্চল সভাপতি,অভিযোগ উঠতেই কড়া পদক্ষেপ তৃণমূলের

1 min read

।। প্রথম কলকাতা।।

শাসক দলের বহু নেতা কর্মীদের বিরুদ্ধে দুর্নীতিতে যুক্ত থাকার অভিযোগ উঠে এসেছে । একের পর এক দুর্নীতির অভিযোগ আসায় অস্বস্তি বেড়েছে শাসক শিবিরে। যার কারণে এবার বিভিন্ন জেলায় যে সমস্ত দলীয় পদাধিকারীদের বিরুদ্ধে অভিযোগ উঠছে সেই বিষয়টিকে বিশেষভাবে খতিয়ে দেখছে তৃণমূল। আর এবার দুর্নীতির অভিযোগে উত্তর ২৫ পরগনার শাসনের অঞ্চল সভাপতির বিরুদ্ধে কড়া পদক্ষেপ গ্রহণ করল দল। তাকে সভাপতির পদ থেকে সরিয়ে দেবার সিদ্ধান্ত গ্রহণ করা হল। যদিও নিজের বিরুদ্ধে ওঠা সমস্ত অভিযোগ অস্বীকার করেছেন তৃণমূল অঞ্চল সভাপতি।

শাসনের তৃণমূল অঞ্চল সভাপতি হলেন শহিদুল ইসলাম। তাঁর বিরুদ্ধে দলের কাছে একাধিক অভিযোগ জমা পড়েছিল তিনি দুর্নীতির সঙ্গে জড়িত রয়েছেন এই মর্মে । বিষয়টি প্রথম দিকে বিশেষ ভ্রুক্ষেপ না করলেও এবার দলের তরফ থেকে চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে। জানা যায় ,শাসন গ্রাম পঞ্চায়েতের বেশ কয়েকজন তৃণমূল সদস্য দলের উচ্চস্তরে তাঁর বিরুদ্ধে অভিযোগ করেন। আর তারপরেই তাকে পদ থেকে অপসারিত করা হয়। যদিও শহিদুল ইসলাম জানান , তিনি দীর্ঘদিন ধরে দলের হয়ে কাজ করছেন। মানুষের আপদে-বিপদে সবসময় তাদের পাশে থেকেছেন । দুর্নীতির সঙ্গে কোনদিন আপোষ করেননি। তবে তাকে যখন পদ থেকে সরিয়ে দেওয়া হয়েছে সেই সিদ্ধান্ত মাথা পেতে নিয়েছেন তিনি।

এই ঘটনাকে কেন্দ্র করে তৃণমূলকে কটাক্ষ করেন বসিরহাট সাংগঠনিক জেলার বিজেপি পর্যবেক্ষক শঙ্কর চট্টোপাধ্যায়। তিনি বলেন , তৃণমূলের সর্বস্তরে নেতা মন্ত্রী বিধায়কেরা দুর্নীতিতে নিমজ্জিত । শুধু অঞ্চল সভাপতিকে নয়, প্রয়োজন মন্ত্রীদেরকেও তাদের পদ থেকে সরানোর। দলের এই সিদ্ধান্তে খুশি বেশ কিছু কর্মী সমর্থক। তাঁরা জানান শহিদুল ইসলামকে পদ থেকে সরানোয় যথেষ্ট খুশি তাঁরা । কারণ তিনি দুর্নীতিতে ডুবেছিলেন । তাঁর বিরুদ্ধে একাধিক অভিযোগ ছিল। এর আগেও দেগঙ্গার চাকলা গ্রাম পঞ্চায়েতের তৃণমূল প্রধানের বিরুদ্ধে সরকারি প্রকল্পের টাকা আত্মসাৎ করার অভিযোগ উঠেছিল। যদিও সেই অভিযোগ স্পষ্ট অস্বীকার করে দিয়েছিলেন তিনি। আর এবার দলীয় সদস্যদের একাংশের অভিযোগ এবং গ্রামবাসীদের অভিযোগের ভিত্তিতে পদ থেকে সরিয়ে দেওয়া হল শাসনের তৃণমূল অঞ্চল সভাপতিকে।

Categories