Prothom Kolkata

Popular Bangla News Website

‘১৭হাজার তৈরি চাকরি চাইলেও দিতে পারছি না’, আসানসোল থেকে কেন বললেন মমতা?

।।প্রথম কলকাতা।।

শিক্ষক নিয়োগ নিয়ে তোলপাড় গোটা বাংলা।নতুন করে শিক্ষক নিয়োগ হচ্ছে না এবং পুরনো নিয়োগে দুর্নীতি, এই অভিযোগকে হাতিয়ার করে বারবার তৃণমূলকে আক্রমণ করছে বিজেপি।এই পরিস্থিতিতে শিক্ষক নিয়োগ না হওয়ার জন্য চাকরিপ্রার্থীদেরই পরোক্ষে দায়ি করলেন তৃণমূল সুপ্রিমো মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় আসানসোলের সভা থেকে জানালেন, ১৭ হাজার শূন্যপদ থাকলেও নিয়োগ করতে পারছেন না তিনি। কারণ আদালত বিরুদ্ধতা করছে।

মমতা এদিন বলেন ‘১৭ হাজার শিক্ষকদের চাকরি তৈরি আছে। আদালত অনুমতি না দিলে, আমি দিতে পারি না’। এবার বিরোধী পক্ষের আইনজীবীদের নাম করে খোঁচা দেন মুখ্যমন্ত্রী। বলেন ,’  বিকাশবাবুদের গিয়ে বলুন, আপনি চাকরি বন্ধ করেছেন, আপনিই চাকরি চালু করবেন’ সেই সঙ্গে তিনি বলেন, ‘কেন্দ্র চাকরি কেড়ে নিচ্ছে, ত্রিপুরায় কত মানুষের চাকরি চলে গিয়েছে’।

মমতা আরও বলেন “বিকাশবাবু একের পর এক মামলা করছেন। আদালত নিয়োগ বন্ধ করে দিচ্ছে। ওনার তো অর্থের কোনও অভাব নেই। কিন্তু সমস্যায় ভুগতে হচ্ছে আপনাদের। আপনারা বিকাশবাবুদের গিয়ে বলুন, আপনাদের জন্য চাকরি আটকে যাচ্ছে আপনাদের দিতে হবে।”

এরপরই ত্রিপুরার শিক্ষকদের চাকরি যাওয়ার কথা মনে করিয়ে দেন তিনি। অর্থাৎ, এদিন তিনি বুঝিয়ে দিয়েছেন, রাজ্য সরকার শিক্ষকের চাকরি দিতে প্রস্তুত। কিন্তু একের পর এক আইনি জটের কারণে আটকে গোটা বিষয়টা। টেট উত্তীর্ণ মামলাকারীদের উদ্দেশ্য করে তিনি বলেন, “আপনারা মামলা তুলে নিন অথবা আপনাদের স্বপক্ষে রায় নিয়ে আসুন, আমি চাকরি দিতে প্রস্তুত।”

এছাড়াও মমতা বলেন, বিজেপির সোশ্যাল নেটওয়ার্কের মানে হল, ফেক ভিডিয়ো দেখানো, চিটিংবাজি করা, মিথ্যে কথা প্রচার করা। ওদের অনেক টাকা। তাই সেশ্যাল মিডিয়া ও ইউটিউবে মিথ্যে কথা বলে বেড়াচ্ছে। আপনাদের নেতা যদি ধর্ম নিয়ে মিথ্যে কথা, নোংরা কথা বলে তাহলে আপনারা তাকে গ্রেফতার করেন না। চুপচাপ বসে থাকেন। আপনারা খুন করলেও কোনও কথা হয় না। আর আমরা কথা বললেও আমাদের খুনি বানিয়ে দেন। জুবেরকে কেন গ্রেফতার করেছেন? ও কী করেছিল? কী করেছিল তিস্তা? গোটা দুনিয়ায় এর নিন্দা হচ্ছে। 

খবরে থাকুন, ফলো করুন আমাদের সোশ্যাল মিডিয়ায়

সব খবর সবার আগে, আমরা খবরে প্রথম

Categories