Prothom Kolkata

Popular Bangla News Website

ক্যানিংয়ে আক্রান্ত বিজেপি কর্মী, ট্যুইটে সরব শুভেন্দু অধিকারী

1 min read

।।প্রথম কলকাতা।।

ক্যানিংয়ে আক্রান্ত বিজেপি কর্মী। শুভেন্দু অধিকারীর মিছিলে যাওয়ার কারণেই তাঁকে মারধর করা হয় বলে অভিযোগ উঠেছে। তৃণমূলের বিরুদ্ধে অভিযোগের আঙুল তোলা হয়েছে। আর এই নিয়েই বিস্ফোরক ট্যুইট করলেন রাজ্যের বিরোধী দলনেতা শুভেন্দু অধিকারী। শুভেন্দু তার ট্যুইটে লিখেছেন শঙ্কর দাস নামে ওই বিজেপি কর্মীকে যেভাবে মারধর করা হয়েছে তা অত্যন্ত নিন্দনীয়। তিনি ট্যুইটে অভিযোগ জানিয়েছেন তৃণমূলের বিরুদ্ধেই। বিস্তারিত ভাবে কোন সভায় গিয়ে তাকে আক্রান্ত হতে হয়েছে সেই কথাও জানিয়েছেন তিনি।

২৪ জুন বারুইপুরে বিজেপির একটি মিছিল ছিল। সেই মিছিলে যোগ দিয়েছিলেন রাজ্যের বিরোধী দলনেতা শুভেন্দু অধিকারী। এরপর সেখানে একটি জনসভাও করেন তিনি। তাতেই যোগ দিয়েছিলেন ক্যানিং পশ্চিম বিধানসভার বিজেপির কর্মী-সমর্থকরা। অভিযোগ, অন্যান্যদের সঙ্গে সেখানে উপস্থিত ছিলেন শঙ্কর দাস। তারই অপরাধে সোমবার বেধড়ক মারধর করা হয় তাঁকে। প্রকাশ্যে এই আক্রমণ হয়। ক্যানিং মহকুমা হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়। সেখানেই ভর্তি রয়েছেন তিনি।

আক্রান্তের স্ত্রী জানান, ‘একসঙ্গে ১৮-২০ জন ছেলে ঢুকে মারধর করে। প্রথমে ঘরে একটা পিঁড়ি রাখা ছিল, সেটা দিয়ে মারধর করা হয় তাঁর স্বামীকে। এরপর বাটামের বাড়ি।’ তার আরও বক্তব্য এই যে হামলাকারীররা বলেছিল তার স্বামী যেন ওদের দাদাদের সঙ্গে গিয়ে দেখা করে। যেহেতু যায়নি তাই এই হামলা। প্রথমে ঘরে ঢুকে মেরেছে। তারপর টেনে বাড়ির বাইরে নিয়ে গিয়ে শালকাঠের বাটাম দিয়ে মেরেছে। বিজেপি করে আমার স্বামী, এটাই অপরাধ’।

আক্রান্তের বক্তব্য তিনি বিজেপির মিটিংয়ে গেছিলেন বলে তাকে এভাবে মারধর করা হয়। সাধারণত তিনি ক্যানিংয়ের কোনও অনুষ্ঠানে থাকি না। কিছুদিন আগে শুভেন্দু অধিকারীর মিটিং ছিল বারুইপুরে। শুধু দলকে ভালবাসেন বলেই গিয়েছিলেন এমনই দাবি তার। তার বক্তব্য ‘সাধারণ দর্শকের মতো গিয়েছিলাম। আমি বাড়ি ফেরার পরই শুনছি বাড়িতে হুমকি দিয়ে গেছে ‘তোর ছেলে আবার বিজেপি করছে?’। আমার মাকে গালাগালি পর্যন্ত করেছে তৃণমূলের ছেলেরা।’ যদিও নিজেদের দিকে ওঠা যাবতীয় অভিযোগ অস্বীকার করেছে রাজ্যের শাসক দল।

খবরে থাকুন, ফলো করুন আমাদের সোশ্যাল মিডিয়ায়

সব খবর সবার আগে, আমরা খবরে প্রথম

Categories