Prothom Kolkata

Popular Bangla News Website

‘২০২৩সালে তৃণমূলই নেতৃত্ব দেবে’, ত্রিপুরার ফল নিয়ে হতাশ নন কুণাল ঘোষ

।।প্রথম কলকাতা।।

ত্রিপুরা উপনির্বাচনে ফের গেরুয়া ঝড়। সেই অর্থে মোটেও ভালো ফল হয়নি তৃণমূলের। চার কেন্দ্রেই চতুর্থ। তবে ফল নিয়ে খুব একটা হতাশ নন কুণাল ঘোষ। তিনি জানালেন তেইশ সালে তারাই নেতৃত্ব দেবেন।এই ফলাফলে মোটেই হতাশ নয় তৃণমূল। বরং তেইশের বিধানসভা নির্বাচনকে পাখির চোখ করে এগিয়ে চলবে আরও প্রত্যয় নিয়ে। জনতার সঙ্গে তৃণমূল ছিল, আছে, থাকবেও। নির্বাচনী ফলাফল নিয়ে প্রতিক্রিয়া জানাতে গিয়ে এমনই বললেন তৃণমূল মুখপাত্র কুণাল ঘোষ।

তার অভিযোগ, বিজেপি অবাধে সন্ত্রাস চালিয়েছে, ছাপ্পা ভোট হয়েছে। সকলে মিলে তৃণমূলকে আটকানোর চেষ্টা করেছে। তিনি আরও জানিয়েছেন যে তৃণমূল মানুষের সঙ্গে সবসময়ই ছিল আর থাকবেও।কুণাল ঘোষ আরও বলেন, ”কেউ যদি ভাবে তৃণমূল এই ফলাফলে হতাশ, তা কিন্তু মোটেই নয়। এই ফলাফল কিছুই প্রমাণ করে না। যদিও সাংগঠনিক স্তরে এ নিয়ে আলোচনা হবে। বিজেপি অবাধে ছাপ্পা ভোট, সন্ত্রাস চালিয়েছে।”

তিনি আরও জানান যে তৃণমূলের জনপ্রিয়তায় সবাই উদ্বিগ্ন। সিপিএম, বিজেপি সবাই মিলে তৃণমূলকে আটকানোর চেষ্টা করেছে। কিন্তু তেইশে যে বিকল্প সরকার তৈরি হবে ত্রিপুরায়, তাতে নেতৃত্ব দেবে তৃণমূলই।” কুণালের ঘোষের কথাতেই স্পষ্ট যে ২০২৩ সাল নিয়ে তিনি যথেষ্ট আশাবাদী। এদিকে, ত্রিপুরায় তৃণমূলের রাজ্য সভাপতি সুবল ভৌমিক জানান, ”মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের নেতৃত্বে, অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়ের সেনাপতিত্বে আগামী দিনে ত্রিপুরায় সরকার পরিবর্তন হবেই।” 

আগরতলা, টাউন বড়দোয়ালি, যুবরাজনগর, সুরমা – এই চার কেন্দ্রে উপনির্বাচনের ফল প্রকাশিত হয়েছে রবিবার। আগরতলা কেন্দ্রে জয়ী কংগ্রেসের সুদীপ রায়বর্মন। বিজেপি প্রার্থীকে ৩ হাজারের বেশি ভোটে হারিয়েছেন তিনি। এই আসনে চতুর্থ স্থানে তৃণমূল। প্রাপ্ত ভোটের হার ২.১ শতাংশ। সদ্য বিজেপি ছেড়ে কংগ্রেসে যোগ দিয়েছিলেন সুদীপ। টাউন বড়দোয়ালিতে জিতেছেন মুখ্যমন্ত্রী পদপ্রার্থী মানিক  সাহা। এখানেও চতুর্থ স্থানে তৃণমূল।

খবরে থাকুন, ফলো করুন আমাদের সোশ্যাল মিডিয়ায়

সব খবর সবার আগে, আমরা খবরে প্রথম

Categories