Prothom Kolkata

Popular Bangla News Website

একসময়ে বিজেপি পরবর্তীতে তৃণমূল, যশবন্তকে কেন সমর্থন বামেদের? যুক্তি দিলেন সূর্যকান্ত

।।প্রথম কলকাতা।।

রাষ্ট্রপতি নির্বাচনে বিরোধীদের প্রার্থী হয়েছেন যশবন্ত সিনহা। অটল বিহারি বাজপেয়ি সরকারের আমলে যিনি কেন্দ্রীয় মন্ত্রী ছিলেন। গত ২০২১ এর বিধানসভা নির্বাচনের আগে তিনি তৃণমূলে যোগদান করেন। এবার তাঁকেই করা হয়েছে রাষ্ট্রপতি পদপ্রার্থী। একসময়ের বিজেপি নেতা, পরবর্তীকালের তৃণমূল নেতাকে সমর্থন নিয়ে নানা রকম প্রশ্ন উঠেছে সিপিএমের অন্দরে। দলের এই সিদ্ধান্ত নিয়ে বঙ্গ সিপিএমের একাধিক নেতাও ক্ষুব্ধ হয়েছেন। এবার এ প্রসঙ্গে বক্তব্য রাখলেন সূর্যকান্ত মিশ্র।

প্রসঙ্গত, সিপিএমের সাধারণ সম্পাদক সীতারাম ইয়েচুরি নির্দেশ দিয়েছেন, ” রাষ্ট্রপতি নির্বাচনে বিরোধীদের দ্বারা যে প্রার্থীকে মনোনীত করা হয়েছে, তাঁকে সমর্থন করতে হবে। এক্ষেত্রে বিজেপির বিরুদ্ধে লড়াই করা আমাদের প্রধান উদ্দেশ্য। এক্ষেত্রে তা না করা হলে দেশে বিজেপি বিরোধিতা নিয়ে প্রশ্ন উঠে যাবে।”

তবে, সিপিএমের বঙ্গ নেতৃত্বের অভিযোগ ছিল, বঙ্গ নেতৃত্বকে না জানিয়ে, শুধুমাত্র কেরল নেতৃত্বের সঙ্গে কথা বলে মমতার বৈঠকে প্রতিনিধি পাঠানো হয়েছিল ও সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছিল। যাকে ঘিরে ক্ষোভ প্রকাশ করতেও দেখা গিয়েছিল দলের বঙ্গ নেতৃত্বকে। এবার এ বিষয়ে মুখ খুললেন সূর্যকান্ত মিশ্র।

সূর্যকান্ত মিশ্র জানান, “যিনি রাষ্ট্রপতি পদপ্রার্থী হন, তাঁর কোন দল থাকে না। রাষ্ট্রপতি ভোটে যিনি প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন, তিনি তৃণমূলও নন, বিজেপিও নন। বাকি সমস্ত দল মিলে যে জায়গায় পৌঁছেছিল। তিনি যে দলই করুন তাঁকে পদত্যাগ করতে হবে রাষ্ট্রপতি পদে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করতে হলে। তিনি কোন পার্টির সঙ্গে থাকতে পারবেন না। তিনি তৃণমূল থেকে পদত্যাগ করেছেন। বিজেপি থেকে আগেই পদত্যাগ করেছেন। এখন তিনি কোন দলেরই নন।”

সূর্যকান্ত মিশ্র আরো জানান, “রাষ্ট্রপতি ভোটে বিজেপির বিরুদ্ধে লড়াই করছেন যশবন্ত সিনহা, সকল বিরোধী দল মিলে তাঁকে আমাদের প্রার্থী হিসেবে ঘোষণা করেছে। ফলে সমর্থন নিয়ে কোন প্রশ্ন ওঠে না।” তাঁকে সমর্থন নিয়ে দলের ক্ষোভ প্রসঙ্গে তাঁর বক্তব্য, “এই প্রসঙ্গে আমার বিশেষ কিছু বলার নেই। দল যা সিদ্ধান্ত নেবে, তাই করা হবে।”

Categories