Prothom Kolkata

Popular Bangla News Website

অম্বুবাচীর ৩ দিনে সঠিক নিয়ম মানছেন তো ? এই ভুলগুলি করলেই বিপদ

1 min read

।। প্রথম কলকাতা ।।

করোনার কারণে প্রায় দু’বছর কামাখ্যা মন্দিরের দরজা ভক্তদের জন্য বন্ধ ছিল। করোনার প্রকোপ কমায় ২০২২এ আবার অম্বুবাচী মেলার আয়োজন করা হয়েছে । পাশাপাশি ভক্তরা মন্দিরে প্রবেশ করতে পারবেন । যেহেতু এখানে দেশ-বিদেশের প্রায় লক্ষ লক্ষ ভক্তগণ হাজির হন, তাই মন্দির কর্তৃপক্ষ ভিড় সামলাতে কুরিয়ারের ব্যবস্থা করেছে।

অম্বুবাচীর তিন দিনকে ঘিরে নানান ধরনের বিশ্বাস এবং সংস্কার রয়েছে যা কামাখ্যা মায়ের ভক্তরা মনেপ্রাণে মেনে চলেন। এই তিনদিন কামাখ্যা মন্দিরের গর্ভগৃহ বন্ধ থাকে। এই গর্ভগৃহে রয়েছে যোনিরূপ পাথর , যাকে দেবী কামাখ্যা রূপে আরাধনা করা হয়। দেবীর এই রূপকে কেন্দ্র করে রয়েছে নানান রহস্য । শুধুমাত্র বছরের নির্দিষ্ট এই তিন দিনেই এই পাথরের গর্ত দিয়ে বেরিয়ে আসে লাল জল।

হিন্দু শাস্ত্রে পৃথিবীকে মা বলা হয়েছে। শুধু তাই নয়, পৌরাণিক যুগে পৃথিবীকে ধরিত্রী মা বলা হত। বিশ্বাস অনুযায়ী, ওই ধরিত্রী মা আষাঢ় মাসে মৃগশিরা নক্ষত্রের চতুর্থ পদে ঋতুমতী হন। তাই অম্বুবাচীর পরেই শস্য-শ্যামলা হয়ে ওঠে ধরিত্রী। এই তিন দিন বিশেষ কিছু কাজ করতে বারণ করা হয় । মনে করা হয়, এই নিয়মগুলি না মানলে ব্যক্তি জীবনে নানান সমস্যা তৈরি হতে পারে।

•এই তিন দিন বিধবা মহিলারা, সাধুরা, যোগীরা পৃথিবীর উপর রান্না করা কোন খাবার খান না। মূলত এই তিন দিন তারা ফলমূল খেয়ে থাকেন। শুধু তাই নয়, বহু পরিবারের বয়স্ক বিধবা মহিলারা ব্রত পালন করেন । এই তিন দিন তারা সাবান কিংবা শ্যাম্পু ব্যবহার করেন না। তিনদিন পর সাবান দিয়ে ভালোভাবে জামাকাপড় এবং বিছানা ধুয়ে ফেলা হয় ।

•এই তিনদিন গৃহস্থ বাড়ির ঠাকুর বা মন্দিরের দেবী প্রতিমা ও ছবি কাপড় দিয়ে ঢেকে রাখা হয়।

•প্রচলিত বিশ্বাস অনুযায়ী, যেহেতু এই তিন দিন ধরিত্রী মাতা ঋতুমতী হন তাই এই অম্বুবাচীর সময় বিশেষ করে বৃক্ষরোপণ করা বা ভূমিকর্ষণ করা উচিত নয়।

•এই সময় মাঙ্গলিক কাছ থেকে একটু বিরত থাকুন। এই তিনদিন চলে গেলে সমস্ত রকম শুভ কাজ করতে পারবেন। বিবাহ , গৃহপ্রবেশ কিংবা অন্যান্য শুভকাজ এই সময় না করাই ভালো । যেহেতু এই কদিন দেবীর মুখ ঢাকা থাকে এবং দেবীকে স্পর্শ করা যায় না তাই এই সময় শুভ কাজ করতে বারণ করা হয়।

•এই সময় অনেকে মনে করে নদীতে স্নান করা উচিত নয়।

•এই তিন দিন মঠ কিংবা মন্দিরের প্রবেশ দ্বার বন্ধ থাকে , কিন্তু যারা শাস্ত্রমতে মন্ত্রে দীক্ষিত তারা গুরু মন্ত্র জপ করতে পারেন। জপের ক্ষেত্রে কোন অসুবিধা নেই।

খবরে থাকুন, ফলো করুন আমাদের সোশ্যাল মিডিয়ায়

সব খবর সবার আগে, আমরা খবরে প্রথম

Categories