Prothom Kolkata

Popular Bangla News Website

তিস্তা ব্যারেজ থেকে জল ছাড়তেই বিপত্তি, জলে ডুবল জলপাইগুড়ির একাংশ

।। প্রথম কলকাতা।।

উত্তরবঙ্গে বর্ষা প্রবেশের পর থেকেই সেখানে বেহাল পরিস্থিতি তৈরি হয়েছিল । লাগাতার ভারী বর্ষণের জেরে তিস্তার জল বাড়তে শুরু করে। আর তারপরে আশঙ্কাকে সত্যি করে এবার তিস্তা ব্যারেজ থেকে জল ছাড়া হল । আর জল ছাড়তেই জলপাইগুড়ির একাংশ পুরোপুরি জলে ভেসে গিয়েছে বর্তমানে । ওই এলাকা ছাড়তে তৎপর স্থানীয় বাসিন্দারা। তবে সবার সেই সুযোগ না থাকায় নিজেদের ক্ষোভ উগরে দিচ্ছেন পুরসভার উপরেই। এককথায় জল দুর্ভোগে নাজেহাল অবস্থা জলপাইগুড়ি পুরসভার পরেশমিত্র কলোনির বাসিন্দাদের।

বর্তমানে সিকিম ভুটানে লাগাতার বৃষ্টি হয়ে চলেছে। যার ফলে তিস্তা ব্যারেজের জল ছাড়া হয়েছে আর সেই জল এসে ঢুকেছে জলপাইগুড়ি পুরসভার ২৫ নম্বর ওয়ার্ডে।এই পরিস্থিতিতে দাঁড়িয়ে এলাকাবাসীর অভিযোগ প্রত্যেক বছর বর্ষায় এইরকম পরিস্থিতি তৈরি হয় এখানকার। কিন্তু তারপরও প্রশাসনের তরফ থেকে কোনরকম সাহায্য পাননি তাঁরা। ঠিক ঠুটো জগন্নাথ প্রশাসন , একেবারেই নির্বাক দর্শক তাঁরা । ওই এলাকার বাসিন্দা শঙ্কর মাহাতো অভিযোগ জানান, নির্বাচনের আগে এলাকাবাসীদের ঘরে ঘরে এসে হাত জোড় করে ভোট প্রচার করে যান তাঁরা কিন্তু যেই নির্বাচন শেষ হয়ে যায় ,জয় যুক্ত হন তারপরে আর তাদের কোনো রকম দেখা পাওয়া যায় না।

জলপাইগুড়ি পুরসভার উপ পৌরপ্রধান সৈকত চট্টোপাধ্যায় জানান, যত দ্রুত সম্ভব এই পরিস্থিতি কাটিয়ে ওঠার চেষ্টা করা হবে। জলবন্দি স্থানীয়দের সেখান থেকে বের করে আনার চেষ্টা করা হচ্ছে বলে জানিয়েছেন তিনি । অন্যদিকে ভুটান পাহাড়ে প্রবল বৃষ্টির জেরে ডুয়ার্সের জলঢাকা নদীতে জল স্তর বৃদ্ধি পেয়েছে । যার ফলে সেখানকার সংরক্ষিত এবং অসংরক্ষিত উভয় এলাকাতেই হলুদ সর্তকতা জারি করা হয়েছে সেচ দপ্তর এর তরফ থেকে।

খানিকটা একই রকম ছবি শিলিগুড়ি পৌরসভার একাধিক ওয়ার্ডে। রাতভর টানা বৃষ্টির জেরে জল যন্ত্রনায় ভুগছেন সেখানকার বাসিন্দারা। কারো ঘরের ভিতরে ঢুকে গিয়েছে তো কারো দোকান ঘর ভেসে গিয়েছে জলে । রাস্তায় বেরোলে যেন নদীর স্রোত বইছে। এরই মধ্যে সব থেকে খারাপ অবস্থা শিলিগুড়ি পৌরসভার ৩১ নম্বর ওয়ার্ডের । বাড়ি থেকে বেরোলেই প্রায় হাটু পর্যন্ত জল পেরিয়ে তাদেরকে গন্তব্যস্থলে যেতে হচ্ছে বলে জানা গিয়েছে। স্থানীয়দের অভিযোগ, নিকাশি ব্যবস্থা ঠিকঠাক না থাকার কারণে প্রত্যেক বছর বর্ষাতে এইরকম দুর্ভোগের সম্মুখীন হতে হয় তাদের।

খবরে থাকুন, ফলো করুন আমাদের সোশ্যাল মিডিয়ায়

সব খবর সবার আগে, আমরা খবরে প্রথম

Categories