Prothom Kolkata

Popular Bangla News Website

‘নিয়োগ দুর্নীতির মুলাধার মমতা,কালেক্টর পার্থ, তালিকা ভাইপোর’, বোমা ফাটালেন শুভেন্দু

।। প্রথম কলকাতা।।

সরকারি বিশ্ববিদ্যালয়ের পর রাজ্যের স্বাস্থ্য বিশ্ববিদ্যালয়গুলির আচার্য পদে বদল আনতে আজ বিল পাস করা হলো বিধানসভায়। যার তীব্র প্রতিবাদ করেন বিজেপি বিধায়কেরা। এরপর রাজভবনের উদ্দেশ্যে যাত্রা করেন বিজেপি বিধায়কেরা। রাজভবন থেকে বেরিয়ে সংবাদমাধ্যমের মুখোমুখি হন রাজ্যের বিরোধী দলনেতা শুভেন্দু অধিকারী। যেখানে নিয়োগ দুর্নীতি সহ একাধিক বিষয় নিয়ে তৃণমূল সরকারকে তুলোধোনা করেন তিনি।

নিয়োগ দুর্নীতি প্রসঙ্গে বিরোধী দলনেতা শুভেন্দু অধিকারী জানান, “চাকুরী বিক্রি করা হয়েছে। মুখ্যমন্ত্রীর নির্দেশ পালন করেছেন মানিক ভট্টাচার্য ও পার্থ চট্টোপাধ্যায়। হেফাজতে নিয়ে জিজ্ঞাসাবাদ করলে আরও তথ্য পাওয়া যাবে। যদি হেফাজতে নিয়ে জিজ্ঞাসাবাদ করতে পারেন, তাহলে দেখবেন ভাইপোর স্বাক্ষরিত তালিকা কিভাবে চাপ দিয়ে বাধ্য করা হয়েছে। পার্থবাবুর আগে দপ্তর চলে গিয়েছিল। তারপর আবার দপ্তর ফিরে পেয়েছেন। এর সঙ্গে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় নিজে ও তাঁর ভাইপো যুক্ত, এটা আমি পরিস্কারভাবে দায়িত্ব নিয়ে বলতে পারি।”

“পরেশ অধিকারীকে ফরওয়ার্ড ব্লক থেকে তৃণমূলে যোগদান করানো, এটা মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের সঙ্গে আলোচনা না করে, তাঁর সিদ্ধান্ত না নিয়ে হতে পারে না। কারণ পরেশ অধিকারী তিনটি শর্ত দিয়েছিলেন। মেয়েকে চাকরি দিতে হবে, বোর্ডের চেয়ারম্যান করতে হবে, লোকসভার টিকিট দিতে হবে। মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের অনুমতি ছাড়া এই তিনটি শর্ত পূরণ করার ক্ষমতা তৃণমূলের কারও নেই।”

তিনি আরও জানান, “এই ধরনের বেআইনি চাকরি দেওয়ার মুলাধার হলেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। যে টাকা তুলেছেন পার্থ চট্টোপাধ্যায় ও মানিক ভট্টাচার্য তার ৮০ ভাগ কালীঘাটে, শান্তিনিকেতনে পৌঁছে দেওয়া হয়েছে। যা থাইল্যান্ড, সিঙ্গাপুর, লন্ডনে গেছে। এসএসসি দুর্নীতির মূলাধার মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়, সবচেয়ে বড় কালেক্টর পার্থ চট্টোপাধ্যায়। তালিকা তৈরি করেছেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের ভাইপো, চিফ এক্সিকিউটিভ অফিসার হলেন পার্থ চট্টোপাধ্যায়। যার ডক্টরেট ডিগ্রি ভুয়ো। যিনি কপি টুকেছেন।”

খবরে থাকুন, ফলো করুন আমাদের সোশ্যাল মিডিয়ায়

সব খবর সবার আগে, আমরা খবরে প্রথম

Categories