Prothom Kolkata

Popular Bangla News Website

Renu Khatun: ২ সপ্তাহ আগে হাত কেটে নিয়েছিলেন স্বামী, সেই নার্সের চাকরিতেই যোগদান রেণুর

।। প্রথম কলকাতা।।

স্ত্রী সরকারি চাকরি করলে সংসারে মন বসবে না তাঁর। তাই সরকারি চাকরি পাওয়া স্ত্রীকে কিছুতেই কাজে নিযুক্ত হতে দেওয়া যাবে না। সেই কারণে পরিকল্পনা করে রেণুর ডান হাতের কব্জি থেকে কেটে নিয়েছিলেন তার স্বামীর শের মহম্মদ । কিন্তু এত পরিকল্পনার পরেও ব্যর্থ তিনি। কারণ ওই ঘটনার ১৭ দিন পর আজ পূর্ব বর্ধমান জেলার মুখ্য স্বাস্থ্য আধিকারিকের দফতরে তিনি নার্স (গ্রেড ২) হিসেবে কাজে যোগ দিলেন। তাঁর সমস্ত দায়িত্ব বুঝে নিলেন জেলার মুখ্য স্বাস্থ্য আধিকারিক প্রণব রায়ের কাছ থেকে।

পূর্ব বর্ধমানের কেতুগ্রামের চিনিসপুর গ্রামের বাসিন্দা রেণু খাতুনের বিয়ে হয় শের মহম্মদ এর সঙ্গে। রেণু বিয়ের পর একাধিক বেসরকারি নার্সিংহোমে কাজ করেছিলেন । সম্প্রতি তিনি রাজ্য স্বাস্থ্য দফতরের নার্স পদে চাকরি পেয়েছিলেন পরীক্ষায় উত্তীর্ণ হয়ে। কিন্তু সেই সরকারি চাকরি স্ত্রীকে করতে দিতে চাননি স্বামী যার কারণে রেনুর ডান হাতের কব্জি থেকে কেটে নিয়েছিলেন তিনি। এই ঘটনায় তাঁর স্বামীসহ তাঁর সহযোগীদেরকে গ্রেফতার করা হয়েছে। কিন্তু রেনুর কাটা যাওয়া ওই হাতের কব্জি জোড়া লাগানো সম্ভব হয়নি।

কিন্তু তারপরেও জীবনযুদ্ধে হার মানেনি রেণু ।মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় তাঁর চাকরির ব্যবস্থা করে দিয়েছিলেন কারণ নার্সিং পরীক্ষায় উত্তীর্ণ রেণুর ডান হাতের কব্জি ছাড়া কীভাবে কাজ করতে পারবে তা নিয়ে প্রশ্ন উঠেছিল। তার পরেই তাকে নার্সিং গ্রেড ২ বিভাগে চাকরি দেওয়া হয়। এদিন তাকে সংবর্ধনা জানাতে এসে উপস্থিত হয়েছিলেন অন্যান্য স্বাস্থ্য দফতরের কর্মীরা । জীবন যুদ্ধের নতুন পথে পাড়ি দেওয়ার আগে মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে ধন্যবাদ জানান রেণু।তিনি নিষ্ঠার সঙ্গে তাঁর দায়িত্ব পালন করবেন বলেও জানিয়েছেন।

খবরে থাকুন, ফলো করুন আমাদের সোশ্যাল মিডিয়ায়

সব খবর সবার আগে, আমরা খবরে প্রথম

Categories