Prothom Kolkata

Popular Bangla News Website

কি কান্ড! রুট ক্যানেল করাতে গিয়েই পাল্টে গেল মুখ, কাজ হারালেন অভিনেত্রী

।।  প্রথম কলকাতা ।।

অভিযোগ ভুল অস্ত্রোপচার। দাঁতের চিকিৎসা করাতে গিয়েই ভয়ানক বিপদের সম্মুখীন হলেন কন্নড় অভিনেত্রী স্বাতী সতীশ। দীর্ঘদিন দাঁতের সমস্যায় ভুগছিলেন তিনি। সম্প্রতি রুট ক‍্যানাল করাতে গিয়ে বড় বিপদের মুখে পড়েছেন স্বাতী। পার্শ্ব প্রতিক্রিয়াতে মুখের একটা দিক সম্পূর্ণ ফুলে ঢোল হয়ে গিয়েছে তাঁর। চোখের নীচ থেকে শুরু করে থুতনি পর্যন্ত একটা দিক ফুলে ভয়াবহ অবস্থা হয়েছে তাঁর। বিশেষ করে ঠোঁটটা এমনি বীভৎস ভাবে ফুলেছে যে এক ঝলক দেখে চেনা যাচ্ছে না অভিনেত্রীকে। সম্প্রতি ইন্ডিয়া টুডেকে দেওয়া একান্ত সাক্ষাৎকারে নিজের কষ্টের কথা জানিয়েছেন স্বাতী।

অভিনেত্রী জানান, রুট ক্যানেল করার আগেই এর পার্শ্ব প্রতিক্রিয়ার ব্যাপারে সাবধান করেছিলেন চিকিৎসক। জানিয়েছিলেন অস্ত্রোপচারের পর কিছু ঘন্টা চোখ মুখের ফোলা ভাব থাকবে। কিন্তু তারপর সেটা ধীরে ধীরে কমে যাবে। প্রথম দিকে ফোলা ভাব না কমায় অভিনেত্রী বিশেষ গুরুত্ব না দিলেও পরবর্তী কালে তা বাড়াবাড়ি হয়। দীর্ঘ দু সপ্তাহ পরেও মুখের ফোলা ভাব না কমায় ইতিমধ্যে ক্লিনিকের বিরুদ্ধে অভিযোগ এনেছেন অভিনেত্রী। স্বাতীর কথায়, গত মাসের ২৮ মে অস্ত্রোপচার করার ক্ষেত্রে গাফিলতি করেছে চিকিৎসক। কারণ আমাকে চিকিৎসার সময় আমাকে প্রথমে চিকিৎসক সোডিয়াম হাইপোক্লোরাইটের ইনজেকশন দিয়েছিলেন। যা নেওয়া খুবই কষ্টকর। সেখানে দাঁড়িয়েই অভিনেত্রীর অভিযোগ সোডিয়াম হাইপোক্লোরাইট দেওয়ার আগে অ্যানেসথেসিয়ার ইনজেকশন দেওয়া উচিত ছিল যা চিকিৎসক করেন নি। একই সাথে অভিনেত্রীর কথায় ভুল করেছেন কিন্তু চিকিৎসার ক্ষেত্রে সবাই ভুল করে। এর জন্য একটা ডিফেন্সও ছিল, আমি যখন কেঁদেছিলাম, ডাক্তার যদি স্যালাইনের ইনজেকশন দিতেন, তাহলে এত ফুলে যেত না।

তবে এসব কারণে বর্তমানে বহু কাজ হাতছাড়া হয়েছে অভিনেত্রীর। অনেক মডেলিং অফার, অ্যাসাইনমেন্ট, সিরিয়াল এবং ছবিতে কাজ করার সুযোগ হারাচ্ছেন তিনি। একই সাথে বেরোতে পারছেন না ছবির প্রচারে। কাজের প্রচুর ক্ষতি হয়ে গেছে ইতিমধ্যে। যার জেরে পড়তে হচ্ছে আর্থিক কষ্টে। জানা যায়, বর্তমানে এই সমস্যা থেকে মুক্তি পেতে অন্য একটি হাসপাতালে চিকিৎসধীন রয়েছেন স্বাতী। কোনো ভাবে তাঁর মুখ ঠিক করার চেষ্টা করছেন বিশেষজ্ঞ চিকিৎসকরা।

অন্যদিকে, যে চিকিৎসকদের বিরুদ্ধে অভিযোগ এনেছেন অভিনেত্রী, তাঁর দাবি, তাঁর কাছে সমস্ত সিসিটিভি ফুটেজ রয়েছে। সেখানে প্রমান আছে যে অভিনেত্রীর মুখের ফোলা ভাব সম্পূর্ণ চলে গেছে। তবে হঠাৎ এমন পরিণতির কারণ প্রসঙ্গে অভিযুক্ত চিকিৎসক জানান, অভিনেত্রীর পোস্ট করা ছবি নাকি আগের। অস্ত্রোপচারের পর এমন কোনও ঘটনাই ঘটেনি।

খবরে থাকুন, ফলো করুন আমাদের সোশ্যাল মিডিয়ায়

সব খবর সবার আগে, আমরা খবরে প্রথম

Categories