Prothom Kolkata

Popular Bangla News Website

‘খুঁটি পুজো করে দিলাম, বিসর্জন ২০২৩ এ’, কী বোঝাতে চাইলেন অভিষেক?

1 min read

।।প্রথম কলকাতা।।

উপনির্বাচনের প্রাক্কালে ত্রিপুরায় তৃণমূলের হয়ে জনসভা করলেন অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়। আজ সুরমার জনসভা থেকে বিজেপির প্রতি একের পর এক চ্যালেঞ্জ ছুড়ে দিলেন অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়। তিনি দাবি করলেন, ভারতের ১৭০০ রাজনৈতিক দলের মধ্যে তৃণমূল একমাত্র দল, যারা বুক চিতিয়ে লড়াই করে। বিজেপি হলো ভাইরাস, যার ভ্যাকসিন হলো তৃণমূল। বিজেপিকে ত্রিপুরা থেকে উৎখাত করার হুঁশিয়ারি দিলেন তিনি।

অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায় জানান, “একমাত্র নেত্রী যিনি বিজেপির চোখে চোখ রেখে লড়াই করছেন, তিনি হলেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। বিজেপি অনেক চেষ্টা করেছে। আমাকে, আমাদের দলের একাধিক নেতা-কর্মীকে যাতে ধমকে চমকে বাড়িতে বসিয়ে দেওয়া যায়। কিন্তু আমাদের জেদ তত বেড়েছে, আমরা তত দৃঢ় প্রতিজ্ঞ হয়েছি। আমরা ২০২১ সালে বিজেপিকে ল্যাজে গোবরে করে বাংলায় হারিয়েছি। বলেছিল আপকি বার ২০০ পার, ৭০ এ তাঁদের চাকা আটকে গেছে। এখানে ৬০ টা আসনের মধ্যে বিজেপি ৬ টাও না পায়, তার খুঁটি পূজা শুরু করে দিয়ে গেলাম, বিসর্জন হবে ২০২৩ এ আগরতলায়।”

“বিরোধী আন্দোলন কাকে বলে? আমরা চোখে চোখ রেখে লড়াই করে দেখিয়ে দিয়েছি। আমাদের কর্মী-সমর্থকরা বারেবারে রাস্তায় নেমে প্রতিবাদ করতে গিয়ে আক্রান্ত হয়েছে। মিথ্যা মামলায় আমাদের কর্মী-সমর্থকদের, সৈনিকদের, শুভানুধ্যায়ীদের জেলে ঢোকানো হয়েছে। আমরা থেমে যাই নি। আমরা মাঠে ময়দানে রয়েছি। আপনাদের দাবি-দাওয়া নিয়ে কথা বলছি।”

বিজেপিকে হুঁশিয়ারি দিয়ে জানান, “আমরা প্রমাণ করেছি, আমরা বিজেপিকে ভয় পাই না। ভারতবর্ষের ১৭০০ রাজনৈতিক দলের মধ্যে একমাত্র রাজনৈতিক দল তৃণমূল, যারা বুক চিতিয়ে লড়াই করে। বিজেপি একটা ভাইরাস, এর ভ্যাকসিনের নাম হল তৃণমূল। একমাত্র তৃণমূল কংগ্রেস পারে বিজেপিকে ত্রিপুরা ছাড়া করতে। এই স্বৈরাচারী শক্তিকে ত্রিপুরার বুক থেকে উৎখাত করে ছাড়বো। শেষ দেখে ছাড়ব। যত ক্ষমতা আছে সে প্রয়োগ করুক।

খবরে থাকুন, ফলো করুন আমাদের সোশ্যাল মিডিয়ায়

সব খবর সবার আগে, আমরা খবরে প্রথম

Categories