Prothom Kolkata

Popular Bangla News Website

বউবাজারের পর এবার কাশীপুর, একের পর এক বাড়িতে ফাটল ধরায় চিন্তায় এলাকাবাসীরা

।। প্রথম কলকাতা।।

মেট্রো বিপর্যয়ের ফলে বউবাজারের একের পর এক বাড়িতে ফাটল ধরেছিল। এক কাপড়ে ঘরছাড়া হতে হয়েছিল সেখানকার বহু বাসিন্দাকে । সেই আতঙ্ক এখনও পর্যন্ত পুরোপুরি কাটিয়ে ওঠা সম্ভব হয়নি আর তার মধ্যেই শহর কলকাতায় ফের একবার এই ফাটলের ঘটনা । এবার কলকাতা পৌরসভার অন্তর্গত ১ নম্বর ওয়ার্ড কাশীপুর এলাকায় রতনবাবুর ঘাট সংলগ্ন চন্দ্রকুমার লেনে একাধিক বাড়িতে চওড়া ফাটল দেখা দিয়েছে। জানা গেছে পাশাপাশি আরও কয়েকটি বাড়িতে ধস নামার মত পরিস্থিতির সৃষ্টি হয়েছে।

আপাতত যে সমস্ত বাড়িগুলিতে ফাটল দেখা দিয়েছে সেই সমস্ত বাড়ির সদস্যদের নিরাপদ স্থানে সরিয়ে দেওয়া হয়েছে । স্থানীয় একটি স্কুলে প্রায় ৫৫ জন বাসিন্দাকে নিয়ে যাওয়া হয়েছে বলে জানা যায়। ঘটনাস্থলে এসে উপস্থিত হয়েছেন পুরকর্তারা। এছাড়াও উপস্থিত রয়েছেন ওই এলাকার জনপ্রতিনিধি কার্তিক মান্না। জানা যায় , ওই এলাকায় এখনও পর্যন্ত মোট ১১ টি বাড়িতে ফাটল দেখা দিয়েছে এবং পরবর্তীতে আরও বেশ কয়েকটি বাড়িতে ফাটল দেখা দিতে পারে বলে আশঙ্কা করা হচ্ছে।

শনিবার থেকেই গঙ্গা লাগোয়া যে রাস্তা রয়েছে সেখানে ধস নামতে শুরু করে । তবে সেই রাস্তা তড়িঘড়ি বালি দিয়ে মেরামত করার চেষ্টা করা হয়েছিল। তাতে কোনো রকম লাভ হয়নি । কলকাতা পুরসভা সূত্রে জানা গিয়েছে, ওই রাস্তার তলা দিয়ে নিকাশি পাইপলাইন নিয়ে যাওয়া হয়েছে। যা গিয়ে পড়েছে সরাসরি গঙ্গায়। সম্প্রতি সে পাইপলাইন গুলিকে বন্ধ করে দেওয়া হয়েছে এবং এলাকার একটি মূল নিকাশি পাইপলাইনের সঙ্গে যুক্ত করে দেওয়া হয়েছে। যার ফলে জল সরাসরি সেখানে আটকে যাওয়ায় ওই অংশে ধাক্কা খাচ্ছে আর এই জলের ধাক্কার ফলে ভূগর্ভস্থ মাটির স্তর ধীরে ধীরে আলগা হয়ে গিয়েছে।

সেই অংশের উপর যে সকল বাড়িগুলি ছিল বর্তমানে সেই বাড়িতে ফাটল দেখা দিয়েছে । এই পরিস্থিতি নিয়ে এলাকার জনপ্রতিনিধি কার্তিক মান্না কলকাতা পৌরসভার মেয়র ফিরহাদ হাকিম সহ এলাকার বিধায়কের সঙ্গে কথা বলেছেন বলে জানা যায়। আপাতত ওই এলাকাকে পুরো খালি করার কাজ শুরু হয়েছে । এখানে একটি স্কুলে বাসিন্দাদের আশ্রয় দেওয়া হয়েছে তবে এই ফাটল পরবর্তীতে আরও বাড়তে পারে বলে মনে করা হচ্ছে। যার ফলে বেশ চিন্তিত পুরসভার আধিকারিক এবং সেখানকার স্থানীয় বাসিন্দারা।

খবরে থাকুন, ফলো করুন আমাদের সোশ্যাল মিডিয়ায়

সব খবর সবার আগে, আমরা খবরে প্রথম

Categories