Prothom Kolkata

Popular Bangla News Website

Assam Floods: বন্যায় ভয়ঙ্কর অবস্থা আসামে, অসহায় ৪২ লক্ষের বেশি মানুষ

1 min read

।। প্রথম কলকাতা ।।

মেঘালয় আর আসামের অবস্থা বেশ খারাপ। তার মধ্যে চরম ভোগান্তিতে রয়েছে প্রায় ৪২ লক্ষের বেশি মানুষ। বন্যার কারণে যোগাযোগ ব্যবস্থা সম্পূর্ণ ভাবে বিপর্যস্ত, উদ্ধার কাজে নেমেছে সেনাবাহিনী। আসামের প্রায় ৩২ টি জেলায় বৃষ্টি আর বন্যার কারণে গৃহহীন হয়ে পড়েছেন প্রায় ৪২ লক্ষ মানুষ। ইতিমধ্যেই বন্যার জেরে প্রাণ গিয়েছে বেশ কয়েকজনের, সেই তালিকায় শিশুও রয়েছে। জনজীবন সম্পূর্ণরূপে বিপর্যস্ত । রাস্তাঘাট , হাসপাতাল, স্কুল, বাড়ি সমস্ত জলের নিচে তলিয়ে গিয়েছে।

ভারতীয় সেনাবাহিনীর তরফ থেকে অব্যাহতভাবে ত্রাণ ও উদ্ধার অভিযান চলছে। সেনাবাহিনীর জারি করা সরকারি বিবৃতি অনুসারে গুরুতর রোগী, বয়স্ক মহিলা এবং শিশু সহ মোট ৪৫০০ জন মানুষকে উদ্ধার করা হয়েছে। বিবৃতিতে সেনাবাহিনী জানিয়েছে, সৈন্যরা নিরবচ্ছিন্নভাবে ত্রাণ তৎপরতা চালিয়ে যাচ্ছেন। সেনাবাহিনীর কর্মীরা উদ্ধার অভিযান চালাচ্ছেন এবং ত্রাণ শিবিরে হাজার হাজার মানুষের প্রয়োজনীয় জিনিস সরবরাহ নিশ্চিত করছে।

অপরদিকে আসামের কাছাড় জেলায় অবিরাম বর্ষণের কারণে মানুষ ভূমিধসেরও সম্মুখীন হচ্ছে। কাছাড় জেলায় বৃষ্টির পর ভূমিধসে আটকে দুই জনের মৃত্যু হয়েছে। জানা গিয়েছে শনিবার রাতে বোরাখাই চা বাগান এলাকায় বৃষ্টির কারণে পাহাড়ের একাংশে ধস নামে।

এছাড়াও অরুণাচল প্রদেশের জেলাগুলিতে প্রবল বর্ষণ অব্যাহত রয়েছে। পাপুম পারে জেলার ইউপিয়ায় একটি ১৬ বছর বয়সী বালক প্রবল ভূমিধসে নিহত হয়েছে। সকাল ৮টার দিকে ইউপিয়াতে ভূমিধসের ঘটনা ঘটে। পাপু হিলস থানার ইন্সপেক্টর ও রোনাং জানান, রেজ হিলি নামে ওই ছেলেটি মোটরসাইকেল চালিয়ে যাওয়ার সময় ধ্বংসস্তূপের নিচে চাপা পড়েন। পরে ধ্বংসস্তূপের নিচ থেকে তার লাশ বের করা হয়। ওই এলাকায় ভূমিধসের কারণে গাড়িতে থাকা এক দম্পতি অক্ষত থেকে রক্ষা পেয়েছেন।

পশ্চিম সিয়াং জেলার কাম্বা সার্কেলের এমজি গ্রামের বাসিন্দা, হিলি একজন বক্সার হিসাবে পরিচিত ছিলেন।ভারী বর্ষণে বেশ কয়েকটি জেলায় সড়ক যোগাযোগও বিঘ্নিত হয়েছে। বর্তমানে, চাংলাং জেলার মার্গেরিটা-চাংলাং সড়ক, পাপুম পারের হোজ-পোটিন সড়ক, পশ্চিম কামেংয়ের বালেমু-বোমডিলা সড়ক এবং আপার সুবানসিরি, কুরুং কুমে সহ অন্যান্য কয়েকটি জেলার টিএএইচ সড়ক ভারী বৃষ্টিপাতের কারণে অবরুদ্ধ।

খবরে থাকুন, ফলো করুন আমাদের সোশ্যাল মিডিয়ায়

সব খবর সবার আগে, আমরা খবরে প্রথম

Categories