Prothom Kolkata

Popular Bangla News Website

‘তৃণমূল ভোট লুঠ করলে লোকসভায় বিজেপি ৩৬ হতে পারে’, মত শুভেন্দুর

1 min read

।।প্রথম কলকাতা।।

অর্জুন সিং বিজেপি ছেড়ে ফের তৃণমূলের ফেরার পর তার এলাকাতেই সভা করলেন শুভেন্দু অধিকারী। স্বাভাবিক ভাবেই এ ছিল শক্তি প্রদর্শনের লড়াই।অর্জুনের গড়ে রবিবার মহামিছিল করল বিজেপি। শুভেন্দুর নেতৃত্বে ওই মিছিলে ভিড় হয়েছিল চোখে পড়ার মতোই। মিছিলে ছিলেন বিজেপির একাধিক বিধায়ক ও দলের নানা স্তরের নেতৃত্ব। মিছিল উপলক্ষে ঘোযপাড়া রোড গেরুয়া পতাকায় মুড়ে দিয়েছিল বিজেপি। মিছিল এগোনোর সঙ্গে সঙ্গে তাতে ভিড়ও বাড়তে দেখা দিয়েছে। যা দেখে বিরোধী দলনেতার দাবি, ‘‘মোদীজি ২০১৯ সালে মোদি টিকিট দিয়েছিলেন বলেই দলীয় প্রার্থী জয়ী হয়েছিলেন। আর এই মিছিলে ভিড় প্রমাণ করে দিয়েছে, ব্যারাকপুর এখনও আগের মতো পদ্মেরই আছে।’’

ব্যারাকপুরকে অর্জুন সিং হাতের তালুর মত চেনেন। তিনি বিজেপি ছাড়ার পর এই এলাকা এখন পাখির চোখ বিজেপির। কারণ এই সব জায়গায় বিজেপির জোর আগের মত নেই তাই সেখানেই মিছিল ও সভা করে শক্তি প্রদর্শনের চেষ্টা করলেন বিরোধী দলনেতা শুভেন্দু অধিকারী। তার দাবি, তৃণমূল ভোট লুঠ করলে ২০২৪ সালে এ রাজ্যে বিজেপির আসন সংখ্যা ১৮ থেকে বেড়ে ৩৬ হবে!

এ দিন শুভেন্দু বলেন, ‘’তৃণমূল ২০১৮ সালে পঞ্চায়েতে ভোট লুঠ করেছিল বলে ২০১৯ সালে বিজেপি ১৮টি আসন পেয়েছিল। ওরা আগামী দিনে ভোট লুঠ করলে ২০২৪ সালে বিজেপি লোকসভায় ৩৬টি আসন পাবে!’’ লোকসভা ভোটের বছর ২০২৪-এই রাজ্যে বিধানসভা ভোট হয়ে যাবে বলেও ফের মন্তব্য করেছেন শুভেন্দু।

এমন দাবিকে অবশ্য কটাক্ষ করতে ছাড়েনি তৃণমূল।তৃণমূলের নেতা তাপস রায়ের অবশ্য পাল্টা কটাক্ষ, ‘‘ওরা প্রশাসনে ব্যর্থ প্রমাণিত হচ্ছে। সংগঠন ভেঙে যাচ্ছে। একের পর এক জনপ্রতিনিধি, নেতা দল ছাড়ছেন। এই অবস্থায় অবশিষ্টদের ধরে রাখতে এ ছাড়া আর কী করার থাকে? এ রাজ্যে এ বার লোকসভা ভোটে শূন্যও হয়ে যেতে পারে বিজেপি!’’

খবরে থাকুন, ফলো করুন আমাদের সোশ্যাল মিডিয়ায়

সব খবর সবার আগে, আমরা খবরে প্রথম

Categories