Prothom Kolkata

Popular Bangla News Website

অগ্নিপথের প্রতিবাদে ব্যারাকপুরে তুমুল বিক্ষোভ, সামাল দিতে নাস্তানাবুদ পুলিশ

।। প্রথম কলকাতা।।

কেন্দ্রের অগ্নিপথ যোজনার বিরোধিতায় বিগত বেশ কিছুদিন ধরে দফায় দফায় দেশের বিভিন্ন রাজ্যে জ্বলছে বিক্ষোভের আগুন । এই বিক্ষোভ, রেল অবরোধের ফলে একাধিক ট্রেন বাতিল করে দেওয়া হয়েছে। বিহার, উত্তর প্রদেশ সহ বেশ কয়েকটি রাজ্য বর্তমানে একেবারেই অশান্ত । আর সেই বিক্ষোভের আঁচ এবার বাংলাতেও। এর আগেও এই রাজ্যে রেল অবরোধের চেষ্টা করা হয়েছে, যার জেরে বাতিল হয়েছে ট্রেন । আজ ব্যারাকপুরে চাকরিপ্রার্থী যুবকদের মিছিল দেখা যায়। প্রায় একশোরও বেশি জন যুবক ব্যারাকপুরের টিটাগড় বাজার থেকে এই মিছিল শুরু করেন।

তাঁরা ব্যারাকপুর মহকুমা শাসকের দপ্তরে স্মারকলিপি জমা দেবেন বলে এই মিছিল নিয়ে এগিয়ে আসতে থাকেন । কিন্তু বিক্ষোভ মিছিল চিড়িয়া মোড়ের কাছে আসলে পুলিশ তাদেরকে আটকে দেয় । পুলিশের সঙ্গে বচসা বাঁধে চাকরিপ্রার্থীদের । অবশেষে ওই মিছিল থেকে ৫ জনের একটি প্রতিনিধি দলকে মহকুমা শাসকের দপ্তরে যাওয়ার অনুমতি দেওয়া হয়। স্মারকলিপি জমা দেওয়ার পর তারা স্টেশন অভিমুখে যাত্রা করতেই ফের পুলিশের বাঁধার সম্মুখীন হন। তাদের মিছিল আটকে দেওয়া হয় সেখানেই। তবে বিক্ষোভকারীরা পুলিশের তুলনায় সংখ্যায় অনেক বেশি থাকায় তাদের সামাল দিতে হিমশিম খেয়ে যান পুলিশকর্মীরা।

বিক্ষোভকারীদের দাবি , এই অগ্নিপথ প্রকল্পে চার বছরের জন্য সেনাবাহিনীতে একটি যুবককে চাকরি দেওয়া হবে কিন্তু চার বছর পরে সেই যুবকের কাছে কোনো কাজ থাকবে না অর্থাৎ ফের বেকারত্ব গ্রাস করবে তাকে। তাই এই প্রকল্পের প্রতিবাদ জানিয়ে লাগাতার বিক্ষোভ আন্দোলন চলছে তাদের। অন্যদিকে আজ অগ্নিপথ প্রকল্পের প্রতিবাদে ভারত বনধের ডাক দেওয়া হয়েছে। কিন্তু রাজ্যের তরফ থেকে স্পষ্ট জানিয়ে দেওয়া হয়েছে এই ধরনের কোনো বনধ রাজ্য সমর্থন করছে না। রাজ্যের বিভিন্ন জেলায় পুলিশ আধিকারিকদের নির্দেশ দেওয়া হয়েছে কড়া নিরাপত্তার।

কোনভাবেই যাতে কলকাতাসহ আশেপাশের বিভিন্ন জায়গায় বিশৃঙ্খলা না সৃষ্টি হয় তার জন্য মোতায়েন করা হয়েছে পুলিশ বাহিনী । শহরের বিভিন্ন জায়গা পরিদর্শন করেছেন হাওড়ার পুলিশ কমিশনার প্রবীন কুমার ত্রিপাঠী। এই ভারত বনধের প্রভাব যাতে রাজ্যে না পড়ে তার জন্য হাওড়া ব্রিজ, হাওড়া স্টেশনের বাইরের এলাকা , হাওড়া ময়দান , শালিমার, কাজীপাড়া এবং নবান্নের আশেপাশে বেশ কিছু এলাকায় পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে। যাতে কোনরকম বেগতিক পরিস্থিতি দেখতে পেলেই তা আটকানো সম্ভব হয়।

খবরে থাকুন, ফলো করুন আমাদের সোশ্যাল মিডিয়ায়

সব খবর সবার আগে, আমরা খবরে প্রথম

Categories