Prothom Kolkata

Popular Bangla News Website

মালিকের শরীর ছিঁড়ে খেল ২০টি বিড়াল ! কেন এমন কাণ্ড ? জানলে হকচকিয়ে যাবেন

।। প্রথম কলকাতা ।।

বাড়িতে অনেকেই শখ করে বিড়াল কিংবা কুকুর পোষেন। যদিও তারা বিশ্বাসী হয়। তাদের একবার আদর করে কিংবা ভালোবেসে খেতে দিলে বা কাছে ডাকলে তারা সাধারণত মানুষের ক্ষতি করে না। তবে এবার একটু উল্টো ঘটনা ঘটলো। বাড়ির পোষা প্রায় কুড়িটি বিড়াল মিলে ছিঁড়ে খেল মালিকের শরীর। তবে কেন এমন কাণ্ড করল, জানলে আপনার রাগ হবে না, হয়ত খারাপ লাগবে।

ঘটনাটি ঘটেছে রাশিয়ার রোস্তভের বাতায়স্কে। আসলে ওই বাড়ির মালিক প্রায় দুই সপ্তাহ ধরে নিখোঁজ ছিলেন । অবশেষে বিষয়টি নজরে আসতেই তদন্ত শুরু হয় । তারপর বাড়ি থেকেই উদ্ধার হয় ওই মহিলার দেহ । যদিও সেই দেহ ততক্ষণে সম্পূর্ণ ছিল না । দরজা ভেঙে পুলিশকর্মীরা যা দেখেন তা রীতিমত চক্ষুচড়কগাছ হওয়ার মত। প্রায় কুড়িটি বিড়াল মিলে বেশ তারিয়ে তারিয়ে তাদের মালিকের শরীরের মাংস খাচ্ছে।

আসলে ওই মহিলা অসুস্থ ছিলেন। পুলিশের প্রাথমিক তদন্ত অনুযায়ী, অসুস্থতার কারণেই ওই মহিলার মৃত্যু হয়েছে । স্বাভাবিকভাবেই মালিকের মৃত্যুর পর বিড়াল গুলিকে খাবার দেওয়ার মত কেউ ছিল না। অবশেষে অভুক্ত বিড়াল গুলি খাবার না পেয়ে তাদের তাদের মালিকের শরীরের মাংস ছিঁড়ে খেতে শুরু করে। ওই মহিলার সহকর্মীরা বেশ কিছুদিন হল ধরে ওই মহিলার খোঁজ না পেয়ে অবশেষে পুলিশ নিয়ে বাড়িতে আসে , তখনই বিষয়টি সামনে আসে। বিড়ালদের দ্বারা আধখাওয়া ওই শরীর ময়না তদন্তে পাঠানো হয়েছে।

এই ঘটনাকে কেন্দ্র করে ব্যাপক চাঞ্চল্য ছড়ায় । মালিক না থাকায় ওই বিড়াল গুলির কাছে খাবার কিছু ছিল না , তাই তারা এই পরিস্থিতিতে এহেন কাণ্ড করেছে। সাধারণত বাড়ির পোষ্যরা শিকারের প্রতি অনভ্যস্ত হয়ে পড়ে। সেক্ষেত্রে তারা নিজেদের যত্ন কিংবা খাবারের জন্য পুরোটাই মালিকের উপর নির্ভরশীল । ওই কুড়িটি বিড়ালের মধ্যে কিছু বিড়ালকে ৩ হাজার টাকার বিনিময়ে অপর একজনকে দেওয়া হয়েছে। যদিও তিনি এখনও এই ঘটনা সম্পর্কে স্পষ্ট ভাবে জানেন কিনা তা নিয়ে ধন্দ রয়েছে। এই কুড়িটি বিড়াল মেইন কুন প্রজাতির। এদের আকৃতি অন্যান্য বিড়ালদের তুলনায় একটু বড় এবং এরা বেশ শক্তিশালী হয় । বিশ্ববাজারে এদের বেশ জনপ্রিয়তা রয়েছে , তবে এরা সাধারণত শান্ত স্বভাবের বলেই বেশি পরিচিত।

এর আগেও গবেষণায় দেখা গিয়েছিল সাধারণত বিড়ালরা পচে যাওয়া মৃতদেহের মাংস খেতে ভালোবাসে। এই ধরনের ঘটনা একেবারেই প্রথম নয়। ২০১৩ সালেও সাউদাম্পটনের এক মহিলা অসুস্থ হওয়ার কারণে মারা গিয়েছিলেন, তার শরীরের সমস্ত অংশ মৃত্যুর পর খেয়ে নিয়েছিল তারই পোষা তিনটি বিড়াল। আমেরিকাতেও এই ধরনের ঘটনা ঘটেছিল।

খবরে থাকুন, ফলো করুন আমাদের সোশ্যাল মিডিয়ায়

সব খবর সবার আগে, আমরা খবরে প্রথম

Categories