Prothom Kolkata

Popular Bangla News Website

Bankura: বনদফতরের জমিতে দখল TMC নেতার! মোটা টাকায় বিক্রি করতে গিয়ে ভেস্তে গেল পরিকল্পনা

।।প্রথম কলকাতা।।

প্রথমত সরকারি বনদফতরের জমি নিজের নামে করা এবং তা মোটা টাকার বিনিময়ে অন্যকে হস্তান্তর করার অভিযোগ উঠল বাঁকুড়ার তৃণমূল নেতার বিরুদ্ধে। অভিযোগ, যে জমিটি এতদিন পর্যন্ত বনদফতরের বলে জানা ছিল গ্রামবাসীদের, সেই জমির আচমকাই মালিকানা বদল । শোনা যাচ্ছে বর্তমানে সেই জমি বাঁকুড়ার তালডাংরা ব্লকের বিবড়দা গ্রামের তৃণমূল নেতা প্রবীর ঘোষের। যা তিনি এবার মোটা টাকার বিনিময়ে অন্যকে বিক্রি করার পরিকল্পনা করছেন । আর এই বিষয়টি প্রকাশ্যে আসতেই গ্রামবাসীদের একাংশ বিরোধিতা করেন। অভিযোগ জানান মুখ্যমন্ত্রী সহ জেলাশাসক, স্থানীয় বিধায়ক এবং বনদফতরের আধিকারিকদের কাছে।

বিষয়টি হল বিবড়দা গ্রাম লাগোয়া ১৪৯৯ দাগের জমি টি গ্রামের মানুষ বন দফতরের জমি হিসেবেই জানতো। তাদের কাছ থেকে জানা যায় কিছুদিন পূর্বে ওই জমিতে বন দফতরের তরফ থেকে গাছ লাগানো হয়েছিল কিন্তু ওই অংশে জল জমে থাকার ফলে গাছগুলি নষ্ট হয়ে যায় । তাই বেশ কিছুদিন ধরে জায়গাটি একেবারেই ফাঁকা পড়ে রয়েছে । আচমকাই তাঁরা জানতে পারেন যে ওই জমিটি বর্তমানে তৃণমূল নেতার এবং তিনি ও তা্র ভাই প্রদ্যোৎ ঘোষ এবার সেই জমিটি মোটা টাকায় বিক্রি করতে চলেছেন । যা জানার পর অভিযোগ জানান গ্রামবাসীদের একাংশ।

তাদের দাবি ,শাসক দলের নেতা হওয়ার দরুন নিজের প্রভাব খাটিয়ে সরকারি জমিতে দখল বসাতে চাইছেন বিবড়দা অঞ্চল সভাপতি প্রবীর ঘোষ। বন দফতরের কাছে এই অভিযোগ যেতেই নড়েচড়ে বসেন তাঁরা। তড়িঘড়ি বন দফতরের তরফ থেকে আধিকারিক পাঠিয়ে ওই দাগের জমি মাপা হয়। আর তারপর জানা যায় যেই জমি তৃণমূল নেতা নিজের বলে দাবি করছেন সেটি আসলে বনদফতরের। এই নিয়েও রাজনৈতিক তর্জা শুরু হয়ে গিয়েছে । সরকারি জমি দখল করার অভিযোগে সরব হয়েছেন স্থানীয় বিজেপি নেতৃত্বরা।

তাদের দাবি ,এই জায়গা যেহেতু বনদফতরের তাই অবিলম্বে ওই জায়গা বন দফতরকে পুনর্দখল করতে হবে নচেৎ পরবর্তীতে বৃহত্তর আন্দোলন করবেন তাঁরা। অন্যদিকে তৃণমূল অঞ্চল সভাপতি প্রবীর ঘোষ জানান, কোন সরকারি জমি তিনি দখল করেন নি বরং তাঁর বাবার মৃত্যুর পর জমি মিউটেশন করতে গিয়ে ওই দাগের ৩০ শতক জায়গার সন্ধান পেয়েছিলেন তিনি। তা বন দফতরকে জানানো হয়েছিল। তিনি এমনও জানান যে , বর্তমানে যদি বন দফতর ওই জায়গাটি নিয়ে নিতে চায় তাহলেও তাঁর কোনো রকম আপত্তি নেই।

খবরে থাকুন, ফলো করুন আমাদের সোশ্যাল মিডিয়ায়

সব খবর সবার আগে, আমরা খবরে প্রথম

Categories