Prothom Kolkata

Popular Bangla News Website

Sri Lanka Fuel Crisis: আবার বিপদের নিশ্বাস শ্রীলঙ্কার ঘাড়ে, বন্ধ হয়ে গেল সব স্কুল

।। প্রথম কলকাতা ।।

শ্রীলঙ্কার অর্থনৈতিক ভিত একেবারে তলানিতে গিয়ে ঠেকেছে । সাধারণ মানুষ বারংবার ক্ষোভ উগড়ে দিয়েছে সরকারের বিরুদ্ধে। মাহিন্দা রাজাপক্ষকে সরিয়ে প্রধানমন্ত্রী পদে নিযুক্ত হন রনিল বিক্রমাসিংহে। কিন্তু রাজনৈতিক পটপরিবর্তন ঘটলেও শ্রীলঙ্কার অর্থনৈতিক ব্যবস্থা এখনো পর্যন্ত সেভাবে মাথাচাড়া দিয়ে উঠতে পারেনি। যার জেরে আবার বন্ধ হয়ে গেল সরকারি দপ্তর এবং স্কুল গুলি। এর পিছনে একটাই কারণ, তা হল চরম জ্বালানি সংকট।

প্রতিবেশী দেশ হিসেবে ভারতকে বারংবার দেখা গিয়েছে শ্রীলঙ্কার দিকে সাহায্যের হাত বাড়িয়ে দিতে। কখনো জ্বালানি আবার কখনো বা চাল পাঠানো হয়েছে শ্রীলঙ্কায়। যদিও শ্রীলঙ্কার ঘাড়ে বৈদেশিক ঋণের বোঝা এতটাই , সেই সংকট সম্পূর্ণভাবে কবে নামবে সে বিষয়টি এখনো পর্যন্ত অধরা রয়ে গিয়েছে। গত শনিবার শ্রীলঙ্কা সরকার এক সপ্তাহের জন্য সরকারি অফিস এবং স্কুল বন্ধ করার ঘোষণা করেছে । আর এই ঘোষণা কার্যকরি হবে সোমবার থেকে। মূলত অর্থনৈতিক মন্দা আর জ্বালানি সংকট চরমে পৌঁছানোয় এমন সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে।

জনপ্রশাসন ও অভ্যন্তরীণ বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের জারি করা ঘোষণা অনুযায়ী, জ্বালানি সরবরাহের বিধিনিষেধ, দুর্বল গণপরিবহন ব্যবস্থা এবং ব্যক্তিগত যানবাহন ব্যবহারে অসুবিধার কথা মাথায় রেখে এই সার্কুলারে সোমবার থেকে ন্যূনতম কর্মী নিয়ে কাজ করার অনুমতি দেওয়া হয়েছে। তবে স্বাস্থ্য খাতে কর্মরত সব কর্মচারীরা স্বাভাবিক নিয়মে কাজ চালিয়ে যাবেন। অপর দিকে এসবের জেরে ভুগছেন অসুস্থ ব্যক্তিরা । বেশিরভাগ হাসপাতালে দেখা দিয়েছে ওষুধ আর চিকিৎসা সরঞ্জামের সংকট। যার করণে বড় বড় অপারেশন গুলি করা যাচ্ছে না। জাতীয় হাসপাতালের কার্ডিয়াক সার্জন এবং কার্ডিয়াক অ্যানেসথেসিওলজিস্টরা দাবি করেছেন যে তারা ওষুধের ঘাটতি এবং জ্বালানি সংকটের কারণে সোমবার থেকে বেশ কয়েকটি অপারেশন কমানোর সিদ্ধান্ত নিয়েছেন।

ডেইলি মিরর সংবাদপত্র অনুসারে, শ্রীলঙ্কার শিক্ষা মন্ত্রক আগামী সপ্তাহ থেকে কলম্বো শহরের সীমানায় সমস্ত সরকারী এবং সরকারী স্বীকৃত বেসরকারী স্কুলের শিক্ষকদের অনলাইন ক্লাস পরিচালনা করতে বলেছে। শ্রীলঙ্কা গত কয়েক মাস ধরে প্রতিদিন প্রায় ১৩ ঘন্টা পর্যন্ত বিদ্যুত বিচ্ছিন্ন থাকছে।

শ্রীলঙ্কা ১৯৪৮ সালের পর সবচেয়ে খারাপ আর্থিক সংকটের মুখোমুখি। বর্তমানে শ্রীলঙ্কার উপর মোট বৈদেশিক ঋণের পরিমাণ ৫১ বিলিয়ন ডলার। শুক্রবার, শ্রীলঙ্কার প্রধানমন্ত্রী রনিল বিক্রমাসিংহে জানান, দেশের ২২ মিলিয়ন জনসংখ্যার মধ্যে ৪ থেকে ৫ মিলিয়ন মানুষ সরাসরি খাদ্য ঘাটতির কারণে ভুগতে পারেন।

খবরে থাকুন, ফলো করুন আমাদের সোশ্যাল মিডিয়ায়

সব খবর সবার আগে, আমরা খবরে প্রথম

Categories