Prothom Kolkata

Popular Bangla News Website

Purba Bardhaman: কে কত বড় গুন্ডা আছে দেখে নেব! তোলাবাজি নিয়ে সুর চড়ালেন বর্ধমানের এসপি

।। প্রথম কলকাতা।।

বিগত বেশ কিছুদিন ধরে পূর্ব বর্ধমানের রেলস্টেশন চত্বরে এবং তিনি তেলিপুকুরের কাছে টোটো পিছু ১০ টাকা করে নেওয়া হতো বলে অভিযোগ উঠেছিল। টোটো ওয়েলফেয়ারের নামে এই টাকা তোলা হতো। কিন্তু আসলে সেই টাকা গিয়ে ঢুকত স্থানীয় প্রভাবশালী নেতার পকেটে। বর্ধমান শহরে টোটো চলাচলে বিশৃঙ্খল পরিস্থিতির সৃষ্টি হয়েছিল। যার কারণে শনিবার শহরের সংস্কৃতি লোকমঞ্চে একটি সভার আয়োজন করা হয়। সেখানে শহরের সকলকে আমন্ত্রণ জানানো হয়েছিল। উপস্থিত ছিলেন জেলা পুলিশের আধিকারিক সহ জেলা প্রশাসন এবং বর্ধমান দক্ষিণের বিধায়ক খোকন দাস। সেখানেই তোলাবাজির বিরুদ্ধে কড়া বার্তা দিতে দেখা যায় পূর্ব বর্ধমানের পুলিশ সুপার কামনাশীষ সেনকে।

তিনি টোটো চালকদের উদ্দেশ্যে বলেন, ” কোন তোলাবাজি চলবে না । বারবার বললাম । কে কত বড় গুণ্ডা আছে আমি দেখে নেব । আমার কাছে অভিযোগ এসেছিল স্টেশনের বাইরে কেউ তোলাবাজি করে। তাকে গ্রেফতার করা হয়েছে । আর এবার যদি আপনারা কেউ দিয়েছেন তাহলে আপনাদের বিরুদ্ধেও কেস করা হবে । এক পয়সা কাউকে দেবেন না। কিসের জন্য তোলা দেবেন? সে স্টেশনের পাশে হোক কিংবা তেলিপুকুরে হোক, কোথাও তোলাবাজি চলবে না”। পাশাপাশি তিনি বলেন, এরপরও যদি আবারও এই ধরনের তোলাবাজির ঘটনা ঘটে তাহলে সরাসরি তাঁর অফিসে এসে অভিযোগ জানাতে পারবেন টোটো চালকরা।

এছাড়া ওই দিন সভা মঞ্চ থেকে বর্ধমান দক্ষিণের বিধায়ক খোকন দাস টোটো চালকদের উদ্দেশ্য করে বলেন, কোথাও কেউ কারো নামে টাকা চাইতে এলে দেবেন না । এরকম ঘটনা ঘটলে সরাসরি এসে পুলিশ সুপারকে অভিযোগ জানান। শনিবারের এই সভায় বিধায়ক, জেলা প্রশাসন আধিকারিকদের উপস্থিতিতেই হুঁশিয়ারি দিতে শোনা যায় পূর্ব বর্ধমানের পুলিশ সুপারকে । আর তারপর সেখানে রীতিমত টোটো চালকদের হাততালির ধুম পড়ে যায়। টোটো চালকদের কাছ থেকে প্রতিদিন এই তোলা তোলার ঘটনায় অতিষ্ঠ হয়ে উঠেছিলেন তাঁরা । পুলিশের কাছে অভিযোগ করতেই আপাতত গ্রেফতার করা হয়েছে একজনকে। পরবর্তীতে যাতে এই ধরনের ঘটনা না ঘটে তার জন্য কড়া বার্তা পুলিশ সুপারসহ অন্যান্য জেলা প্রশাসনের আধিকারিকদের।

খবরে থাকুন, ফলো করুন আমাদের সোশ্যাল মিডিয়ায়

সব খবর সবার আগে, আমরা খবরে প্রথম

Categories