Prothom Kolkata

Popular Bangla News Website

‘পাবাজির মত গেম খেলা আর নেশা করার চেয়ে সেনায় যোগ দেওয়া শ্রেয়’! ‘অগ্নিপথ’ বিতর্কে সরব কঙ্গনা

1 min read

।।  প্রথম কলকাতা ।।

সময় যত গড়াচ্ছে ততই যেন ‘অগ্নিপথ’ প্রকল্প মোদি সরকারের গলার কাঁটা হয়ে উঠছে। সেনাবাহিনীতে নিয়োগের জন্য কেন্দ্রের পক্ষ থেকে বৃহস্পতিবার অগ্নিপথ প্রকল্পের ঘোষণা হতেই প্রতিবাদে নেমেছেন যুবকেরা। দেশজুড়ে চলছে প্রতিবাদ, বিক্ষোভ, আন্দোলন। আগুন লাগানো সহ ভাঙচুর চালানো হয়েছে একাধিক জায়গায়। এমন অবস্থায় সব কিছু দেখ নিজেকে আটকে রাখতে পারলেন না বলিউড অভিনেত্রী কঙ্গনা। বরাবরের মতোই কেন্দ্র সরকারের পক্ষ নিলেন অভিনেত্রী। যে অগ্নিপথ নিয়ে গোটা দেশে অগ্নিগর্ভ পরিস্থিতি। তার প্রশংসায় পঞ্চমুখ তিনি।

আজ ইনস্টাগ্রাম স্টোরিতে কেন্দ্র সরকারের নতুন এই প্রকল্পকে গুরুকুলের সঙ্গে তুলনা করলেন তিনি। এবিষয়েই এদিন নিজের প্রতিক্রিয়া জানাতে গিয়েই ইজরায়েলের প্রসঙ্গ টেনে এনে কঙ্গনা লেখেন, “ইজরায়েলের মতো একাধিক দেশে সেনার প্রশিক্ষণ নেওয়া বাধ্যতামূলক। প্রত্যেকেই জীবনের কয়েকটা বছর সেনার জন্য উৎসর্গ করে জাতীয়তাবাদ, নিয়মানুবর্তিতা শেখে এবং দেশকে রক্ষা করার আসল অর্থ জানতে পারে।”

একই সাথে কঙ্গনা লেখেন, “অগ্নিপথ প্রকল্প শুধু কেরিয়ার গড়ার বা রোজগার করার উপায় নয় এর ভিন্ন মানে রয়েছে। আগেকার দিনে গুরুকুলে যেতে হত এটাও প্রায় তেমনই আর এর জন্য টাকাও দেওয়া হচ্ছে। যুবপ্রজন্মের একটা বড় অংশ মাদক এবং পাবজি-র মতো গেমের নেশায় ধ্বংস হয়ে যাচ্ছে, তাঁদের সংশোধন প্রয়োজন।” পাশাপাশি কেন্দ্র সরকারের এমন উদ্যোগকে সমর্থন করার আর্জিও জানিয়েছেন কঙ্গনা।

তবে এসব ঘটনা নতুন নয়। এর আগেও বহু নানান বিতর্কিত বিষয়ে জনসমক্ষ্যে নিজের মতামত তুলে ধরতে পিছপা হননি অভিনেত্রী। শুরু থেকেই অকপট তিনি। সোজাসাপটা কথা বলার জেরে বিভিন্ন সমালোচনায় পড়তে হয়েছে তাঁকে। কখনও তার মন্তব্যের জেরে তৈরি হয়েছে বিতর্ক। আবার কখনও তিনি এমন কাজ করেন যা নিয়ে মুখর হন নেটিজেনরা। এমনকী কিছুদিন আগেই বিতর্কিত মন্তব্যের জেরে কঙ্গনার টুইটার অ্যাকাউন্ট নিষিদ্ধ করে দেওয়া হয়। তারপর থেকে ইনস্টাগ্রামে নিজের মনের কথা বলেন বলিউডের ‘কন্ট্রোভার্সি ক্যুইন’। এবারও তার অন্যথা হয়নি।

খবরে থাকুন, ফলো করুন আমাদের সোশ্যাল মিডিয়ায়

সব খবর সবার আগে, আমরা খবরে প্রথম

Categories