Prothom Kolkata

Popular Bangla News Website

‘অল্পবয়সে সাদা চুল তাই সবজান্তা হাবভাব’, সুজনের মন্তব্যের পালটা দিলেন কুণাল ঘোষ

1 min read

।।প্রথম কলকাতা।।

সুদীপ্ত সেনের সারদা চিটফান্ড নিয়ে ফের হইচই শুরু হয়ে গিয়েছে। সারদার একটি মামলাতে তৃণমূল কংগ্রেসের সাধারণ সম্পাদক কুণাল ঘোষ মুক্তি পেতেই সুর চড়িয়েছে সিপিএম নেতৃত্ব। বাম নেতা সুজন চক্রবর্তী বলেছেন কুণাল ঘোষ তৃণমুলের নেতা উনি যে ছাড়া পেয়ে যাবেন সেটাই তো স্বাভাবিক বিষয়। আর এবার এই নিয়েই তোপ দাগলেন কুণাল ঘোষ।

সোশ্যাল মিডিয়ায় কুণাল লিখেছেন কুণাল ঘোষ লিখেছেন, ‘’আপনার জেলা, আপনার শ্বশুরমশাইয়ের জেলায় সারদার জন্ম। সুদীপ্ত সেনের আদালতকে দেওয়া বয়ানে আপনাদের পার্টির নামও আছে। আপনি আজ বড় বড় কথা বলছেন? মিথ্যাচার করছেন?’ শুধু তাই নয়, কুণাল প্রশ্ন তুলেছেন, ‘আপনাদের জমানায়, শ্বশুর জামাইয়ের দাপটযুগে, আপনার জেলায় সারদা ডালপালা ছড়াল কী করে?’’

কুণালের আরও কটাক্ষ সুজন চক্রবর্তী, মিথ্যাচার করবেন না, ভেবে বলুন বিধানসভায় শূন্য পাওয়া দলের নেতা এবং সিপিএম রাজ্য সম্পাদক হতে না পারায় অবসাদগ্রস্ত সুজন চক্রবর্তী আমার সারদার একটি মামলা থেকে অভিযোগমুক্ত হওয়া সম্পর্কে বলেছেন আমি তৃণমূলের মুখপাত্র, তাই পুলিশের মামলা তো উঠে যাওয়ারই কথা।অল্পবয়সে সাদা চুল। তাই সবজান্তা হাবভাব। চোখে আঙুল দাদাও বলা যায়।এই প্রসঙ্গে, বউবাজারে রশিদ খানের বাড়িতে বিস্ফোরণের কথা মনে করিয়ে দিয়েছেন কুণাল। তাঁর দাবি, সেই ঘটনায় ছিল সিপিএম নেতাদের যোগ।

ছয় নেতা-নেত্রীকে গ্রেফতার করা হলেও পুলিশ তাদের বিরুদ্ধে তদন্তই করেনি বলে উল্লেখ করেছেন কুণাল।উল্লেখ্য তৃণমূল কংগ্রেসের নেতা হয়েও সারদা মামলায় বাড়তি কোনও সুযোগ নেননি সেকথা বারে বারেই বলেছেন কুণাল। তাঁর কথায়, ‘আত্মহত্যার মামলাতেও রাজ্য সরকার তাঁর বিপক্ষেই ছিল। একেবারে আইন অনুযায়ী তাঁকে দোষী সাব্যস্ত করেছে।’ আবার মানবিক কারণে সাজা দেয়নি আদালত, তা-ও আইন মেনেই হয়েছে বলে কুণাল বলেছেন। সারদা চিটফান্ড কেলেঙ্কারি নিয়ে পাল্টা তোপ দেগেছেন সুজন চক্রবর্তীর বিরুদ্ধে।

খবরে থাকুন, ফলো করুন আমাদের সোশ্যাল মিডিয়ায়

সব খবর সবার আগে, আমরা খবরে প্রথম

Categories