Prothom Kolkata

Popular Bangla News Website

Sonarpur:মুখ্যমন্ত্রীর উদ্বোধন করা রাস্তা এখনও বেহাল! টাকা আত্মসাতের অভিযোগে সরগরম সোনারপুর

।। প্রথম কলকাতা।।

সোনারপুরের উন্নয়ন প্রকল্পে মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় একটি রাস্তার উদ্বোধন করেছিলেন ২০২০ সালে । তবে দীর্ঘ দু’বছরে সেই রাস্তায় কোনো রকম কাজ হয়নি বলে অভিযোগ । ওই রাস্তা নির্মাণের জন্য যে ৩০ লক্ষ টাকা বরাদ্দ করা হয়েছিল সেই টাকা আত্মসাৎ করেছে স্থানীয় নেতৃত্বরা। এমনটাই অভিযোগ উঠেছে এলাকাবাসী তরফ থেকে। উন্নয়নের নাম করে সরকারের কাছ থেকে লক্ষ লক্ষ টাকা আদায় করে তা আত্মসাৎ করার অভিযোগে বর্তমানে তদন্ত করার নির্দেশ দিয়েছেন জেলাশাসক।

সোনারপুর ব্লকের প্রতাপনগর গ্রাম পঞ্চায়েতের শিশুমঙ্গল পিএফ স্কুল থেকে প্রসাদপুর মেইনরোড পর্যন্ত যে ২৪৩০ স্কোয়্যার মিটার রাস্তাটি রয়েছে সেই রাস্তাটি নির্মাণ করার সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছিল প্রায় দু বছর আগে । যার জন্য খরচ বাবদ বরাদ্দ করা হয়েছিল ৩০ লক্ষ টাকা । সেই টাকা সরকারের তরফ থেকে দেওয়া হলেও রাস্তার কাজ কোন অংশে এগোয়নি। জানা যায় ২০২০ সালে রাস্তাটির শিলান্যাস করা হয়েছিল । সেখানে উপস্থিত ছিলেন তৎকালীন সোনারপুর দক্ষিণ বিধানসভার বিধায়ক জীবন মুখোপাধ্যায়। কিন্তু তারপর আর কোন কাজ এই রাস্তা নিয়ে হয়নি।

বর্তমানে রাস্তাটির পরিস্থিতি এতটাই খারাপ যে পায়ে হেঁটে চলাচল করতে গেলেও সমস্যায় পড়তে হচ্ছে স্থানীয় বাসিন্দাদের । তার উপরে সামনেই বর্ষাকাল এতে আরও বেশি সমস্যায় পড়বেন তাঁরা। যদিও এই পুরো রাস্তাটিকে ঝামা ইট দিয়ে তৈরি করার প্রতিশ্রুতি দেওয়া হয়েছিল কিন্তু নির্মাণ কাজ শুরুই হয়নি। কিছু ইট এনে অবশ্য রাস্তার পাশে ফেলা হয়েছিল কিন্তু তারপর এই রাস্তার কাজ নিয়ে আর কোনো রকম তৎপরতা দেখা যায়নি। প্রতাপনগর গ্রাম পঞ্চায়েতের প্রধান তাপসী মন্ডল রাস্তা নির্মাণের টাকায় দুর্নীতি প্রসঙ্গে যে মন্তব্য করেন তা আরও আশ্চর্যজনক।

তাঁর কথায়, তিনি খুব একটা শিক্ষিত নন। তাকে যে সমস্ত সরকারি কাগজ সই করার জন্য দেওয়া হয় তিনি সেগুলিতে সই করে দেন। এর থেকে বেশি কিছু তিনি জানেন না বলেই দাবি করেন। অন্যদিকে ওই অঞ্চলের সভাপতি এবং ব্লক পূর্ত কর্মাধ্যক্ষ দিলীপ ঢালি জানান, পঞ্চায়েতের যে সমস্ত সরকারি কাজ রয়েছে তাতে তিনি বিশেষ হস্তক্ষেপ করেন না কারণ প্রয়োজন হয় না। তাই কোন কারণে যদি তাঁর নাম উল্লেখ করা হচ্ছে তাহলে অবশ্যই তাকে উদ্দেশ্যপ্রণোদিতভাবে ফাঁসানোর চেষ্টা করা হচ্ছে।

বর্তমানে মুখ্যমন্ত্রীর উদ্বোধন করা রাস্তার এই বেহাল পরিস্থিতি এবং সরকারের কাছ থেকে আদায় করা টাকা আত্মসাতের ঘটনায় সরব হয়েছেন বিরোধী দল। বিজেপির সর্বভারতীয় সহ সভাপতি দিলীপ ঘোষ জানান, রাজ্যে এরকম একাধিক রাস্তা পুকুর উদাহরণ হিসেবে রয়েছে । দুর্নীতি বর্তমানে একেবারে চরম পর্যায়ে পৌঁছে গিয়েছে। এই সকল বিষয় গুলি তথ্যসহ কেন্দ্র সরকারের কাছে পৌঁছে দেওয়া হয়েছে। তিনি জানান , প্রথমে এই সমস্ত টাকার হিসেব দিক রাজ্য সরকার আর তারপরেই কেন্দ্রের তরফ থেকে নতুন করে টাকা দেওয়া হবে।

খবরে থাকুন, ফলো করুন আমাদের সোশ্যাল মিডিয়ায়

সব খবর সবার আগে, আমরা খবরে প্রথম

Categories