Prothom Kolkata

Popular Bangla News Website

‘সরকার চালাতে পারছেন না, দৃষ্টি ঘোরাতে দিল্লি যাচ্ছেন’, মমতাকে একহাত দিলীপের

1 min read

।। প্রথম কলকাতা।।

লোকসভা নির্বাচনের আগেই জল মাপতে চাইছে তৃণমূল। রাষ্ট্রপতি নির্বাচনকে উপলক্ষ করে দেশের সমস্ত বিরোধীদলকে এক ছাতার তলায় আনার প্রচেষ্টা রয়েছে তৃণমূলের। আর তার মধ্যে দিয়েই লোকসভা ভোটে বিরোধী জোটের সলতে পাকানোর প্রক্রিয়াও শুরু করে দিল তৃণমূল। রাষ্ট্রপতি নির্বাচনে সর্বসম্মত প্রার্থী নিয়ে আজ বিরোধী দলের সঙ্গে বৈঠক করলেন তৃণমূল সুপ্রিমো মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। কিন্তু, মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের দিল্লি সফর তথা বিরোধী নেতৃত্বের সঙ্গে বৈঠককে তীব্র কটাক্ষ করলেন বিজেপির সর্বভারতীয় সহ সভাপতি দিলীপ ঘোষ।

মুখ্যমন্ত্রীকে ‘গাঁয়ে মানেনা আপনি মোড়ল’ বলে কটাক্ষ করলেন তিনি। মমতার দিল্লি সফর তথা বৈঠক প্রসঙ্গে দিলীপ ঘোষ জানান, “মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের বাংলা সামলাতে পারছেন না, দিল্লি গেছেন রাষ্ট্রপতি নির্বাচন করবেন বলে। গাঁয়ে মানেনা আপনি মোড়ল। এর জন্য তৃণমূলের অবস্থাও সিপিএমের মতো হবে। একসময় কংগ্রেসের বিরুদ্ধে বিরোধীরা ঐক্যবদ্ধ হত, প্রশ্ন হত বিজেপিকে নেব কিনা? এখন বিজেপির বিরুদ্ধে ঐক্যবদ্ধ হচ্ছে, প্রশ্ন হচ্ছে কংগ্রেসকে নেবে কিনা? রেজাল্ট একই হবে। উনিশ সালে তার একটা স্টেজ রিহার্সাল হয়ে গেছে। রেজাল্ট টা সবাই জানে। নতুন কিছু হবে না। মানুষকে বিভ্রান্ত করার চেষ্টা করছে।”

দিলীপ ঘোষ জানান, “পশ্চিমবঙ্গে যে নেতা অসফল, দিল্লিতে চলে যান । সেখানে গিয়ে বিরোধী জোটের গল্প বলেন। সিপিএম সরকারের শেষদিকে আমরা দেখেছি। এখন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় সরকার চালাতে পারছেন না। টাকা পয়সা নেই, বেতন নেই, পেনশন নেই। তাই দৃষ্টি ঘোরাবার জন্য মাঝে মাঝে দিল্লি যান। এর আগে সোনিয়া গান্ধী দেখা করেন নি, কোনো সিনিয়র নেতৃত্ব তাঁর উপরে ভরসা করেন না। সারা ভারতবর্ষে এত টাকা ঢেলে ত্রিপুরাতে ফেল, গোয়াতে ফেল, আসামে ফেল, আর উত্তরপ্রদেশের হাওয়া দেখে নির্বাচনেই নামলেন না। এসব করে বাংলায় একটু হাওয়া তোলা যায়।” তাঁর কটাক্ষ, “সরকার, প্রশাসন কারোর উপরে কারো নিয়ন্ত্রণ নেই। কে চালাচ্ছে? সেটা ভগবানই জানে। মমতা ব্যানার্জি বারবার বাংলা ছেড়ে পালিয়ে যাচ্ছেন।

গত পাঁচদিন ধরে যা চলছে, সেটাও বোধহয় ভগবানের ইচ্ছে। কোন নিয়ন্ত্রন নেই। কারো কোন ভয় নেই। উনি মুখে বড় বড় কথা বলেন। কাজে কিছু হয় না। সেজন্য আরো পরিস্থিতি খারাপ হবে।”সিবিআই তদন্ত প্রসঙ্গে তিনি জানান, “কোর্টের নির্দেশে তদন্ত হচ্ছে। তৃণমূল নেতাদের বাড়িতে রেড করা হলে, কাগজপত্র পরীক্ষা করা হলে তাঁর নিজের নামে, পাড়ার লোকের, কুকুর-বেড়ালের নামেও টাকা, সম্পত্তি পাওয়া যায়। দুর্নীতি কতদূর গেছে? বারবার যত নেতাকে ডাকছে, তথ্য সংগ্রহ হচ্ছে।”

খবরে থাকুন, ফলো করুন আমাদের সোশ্যাল মিডিয়ায়

সব খবর সবার আগে, আমরা খবরে প্রথম

Categories