Prothom Kolkata

Popular Bangla News Website

Jamai Sasthi: পার্বণ প্রিয় বিশ্বনাথের কেমন কাটল জামাই ষষ্ঠী?নিজের মুখেই জানালেন অভিনেতা

1 min read

।। প্রথম কলকাতা।।

জ্যৈষ্ঠের শুক্লপক্ষের ষষ্ঠী তিথিতে কন্যার সুখী সংসারের কামনায় ব্রত কিংবা পুজো করে থাকেন বাবা-মা। তাঁর পাশাপাশি আরও একটি প্রচলিত রীতি হল বিবাহিত জামাই মেয়েকে আমন্ত্রণ করে সকাল থেকে বিকেল নানান পদের খাবার এনে হাজির করা তাদের সামনে। বহু যুগ থেকে চলে আসা এই প্রথা এখনও পর্যন্ত সেই একই রকম ভাবে মেনে চলেছেন তাঁরা। যেখানে সাধারণ মানুষ থেকে শুরু করে তারকা জুটি সকলেই জামাই ষষ্ঠীর দিনে থেকে এসে উপস্থিত হন শ্বশুরবাড়িতে। এবার বিনোদন জগতের অন্যতম মুখ বিশ্বনাথ বসু কেমন কাটালেন তাঁর জামাই ষষ্ঠী?

এই বছরে অভিনেতা বিশ্বনাথ বসুর কালিকাপুরের বাড়িতেই আয়োজন করা হয়েছিল জামাইষষ্ঠীর। উপস্থিত ছিলেন তাঁর শাশুড়ি মা। বিশ্বনাথ বসু জানান, পার্বণ প্রিয় মানুষ তিনি। যেকোনো ধরনের পুজো এমনকি দশহারা পুজোর দিনেও বাড়িতে ফোন করে খোঁজখবর নেওয়া তাঁর অভ্যেস। কাজেই জামাইষষ্ঠীর মতন একটি বড় পার্বণে অবশ্যই খোলা মনে যে আনন্দ করবেন তিনি এমনটাই স্বাভাবিক। এই অভিনেতার ১৩ বছরের বিবাহিত জীবনে এই দিনটির গুরুত্ব একেবারেই কমে নি। তা বোঝা গেল তাঁর কথা থেকেই। তাঁর মতে, একটা দিনকে একেবারে অন্য মোড়কে পাওয়া, চেনা সম্পর্কগুলিকে আর একবার ঝালিয়ে নেওয়া। আসলে এটাই তো যে কোন উৎসবের আসল মানে।

প্রায় ২১ বছর ধরে বাঙালি দর্শকদের বিনোদনের খোরাক দিয়ে যাচ্ছেন বিশ্বনাথ বসু। কখনও টেলিভিশনের পর্দায়, কখনও মঞ্চে অথবা কখনও সিনেমার পর্দায় যতবারই বিশ্বনাথকে মানুষ দেখেছে ততবারই দর্শকদের ভালবাসা, আশীর্বাদ পেয়েছেন তিনি। আর এই জামাই ষষ্ঠীর দিনে নিজের চেনা মেজাজ হারালেন না বিশ্বনাথ বসু। মজার ছলেই বললেন, ” একটাই পার্বণ প্রথম থেকে আমার জীবনে ছিল না, সেটা হচ্ছে জামাই ষষ্ঠী। লোকে যেত আর আমি তাকিয়ে তাকিয়ে দেখতাম। তবে যখন বিয়ে হল তারপর থেকে এটা আমার কাছেও খুব আকর্ষণীয় হয়ে উঠল”।

সকালের জলখাবার থেকে শুরু করে দুপুরের ভুরিভোজ পর্যন্ত এক্কেবারে আঁটোসাঁটো প্ল্যান এদিনের। তবে তার পরেও পরিবারের সঙ্গে সময় কাটানোর জন্য সিনেমা দেখার পরিকল্পনা করেন এই অভিনেতা। এছাড়াও জামাইষষ্ঠীর দুপুরের আয়োজন শোনালেন বিশ্বনাথ বসুর শাশুড়ি মা। ভাত , পাঁচ রকমের ভাজা, মাছের মাথা দিয়ে ডাল, পটলের দরমা ,চিংড়ি মাছের মালাইকারি আর মাটন সাথে দই মিষ্টি তো থাকছেই। অর্থাৎ জামাইষষ্ঠীর থেকেও বড় কথা পরিবারের সঙ্গে একটা সম্পূর্ণ দিন বেশ হাসিখুশি মেজাজেই কাটাচ্ছেন বিশ্বনাথ।

খবরে থাকুন, ফলো করুন আমাদের সোশ্যাল মিডিয়ায়

সব খবর সবার আগে, আমরা খবরে প্রথম

Categories