Prothom Kolkata

Popular Bangla News Website

সন্তান মানসিক অবসাদে নেই তো ? এই লক্ষণগুলি অবশ্যই জানুন

।। প্রথম কলকাতা ।।

বর্তমান দিনে মানসিক অবসাদ যেন কোনো বয়স মানে না। প্রাপ্ত বয়স্ক, বয়স্ক এমনকি শিশুরাও মানসিক অবসাদের শিকার। বহু অভিভাবক খুব ছোট বয়সের শিশুদের স্কুলে ভর্তি করিয়ে দেন। তারপর তাদেরকে একটু একটু করে ঠেলে দেন বিশাল প্রতিযোগিতার দিকে। ক্লাসে ফার্স্ট হতে হবে, সবার থেকে ভালো নম্বর পেতে হবে এবং বিভিন্ন ক্ষেত্রে তাকে দক্ষ হয়ে উঠতে হবে , আর এই প্রতিযোগিতার কারণে বহু শিশু মানসিক অবসাদগ্রস্ত হয়ে পড়ে। শুধু তাই নয় , বন্ধুবান্ধব কিংবা খেলার সঙ্গীর অভাবেও অনেক সময় শিশুদের মধ্যে মানসিক চাপ তৈরি হয়। আপনি যদি আপনার সন্তানকে বেশ কয়েকদিন ধরে ভালোভাবে লক্ষ্য করেন তাহলে বুঝতে পারবেন আপনার সন্তান কোনো মানসিক চাপ কিংবা উদ্বেগের মধ্যে রয়েছে কিনা। শিশুরা মানসিক অবসাদের মধ্যে রয়েছে কিনা তা জানা অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ , কারণ এই সমস্যা তাদের ভবিষ্যতে বিরাট প্রভাব ফেলতে পারে। এমনকি বহু শিশু মানসিক অবসাদের কারণে অসুস্থ হয়ে পড়ে। জানুন শিশুর মানসিক অবসাদের বেশ কয়েকটি লক্ষণ।

•যদি দেখেন আপনার শিশু আগের মত স্কুলের পড়া কিংবা অন্যান্য কাজে মনোযোগ দিতে পারছে না তাহলে বিষয়টিকে গুরুত্ব দিন। যদি দেখেন টিভি দেখা কিংবা খেলাধুলাতেও শিশুর মন নেই তাহলে তাকে গল্পের ছলে তার সমস্যার কথা জানার চেষ্টা করুন।

•যদি দেখেন আপনার শিশু আপনার অল্প কথাতেই রেগে যাচ্ছে এমনকি ভালো কথাতেও নেতিবাচক প্রতিক্রিয়া জানাচ্ছে তাহলে বিষয়টির প্রতি একটু নজর দিন। মানসিক অবসাদগ্রস্ত হলে , শিশুদের মেজাজ খিটখিটে হয়ে যায় । রেগে গেলে জিনিসপত্র ছুঁড়ে ফেলছে, এই ধরনের আক্রমণাত্মক আচরণ দেখলে বিষয়টিকে অবশ্যই গুরুত্ব দিতে হবে। যদি দেখেন বড়দের বা ছোটদের গায়ে হাত দিচ্ছে, চিৎকার চেঁচামেচি করছে, অকারণে সবাইকে বাজে কথা বলছে , হঠাৎ করে রেগে যাচ্ছে বা কোন বিষয়ে আতঙ্কিত হয়ে পড়ছে তাহলে জানবেন আপনার শিশু হয়ত কোনো মানসিক অবসাদের মধ্যে রয়েছে।

•ঘুমের মধ্যে হঠাৎ কোন দুঃস্বপ্ন দেখে আপনার সন্তান যদি কেঁদে ওঠে তাহলে বিষয়টির প্রতি নজর দিন। যদি দিনের বেলাতেও শিশু ভয় পায়, আতঙ্কিত থাকে তাহলে জানার চেষ্টা করুন আপনার শিশু কেন আতঙ্কিত। কারণ সারাদিন শিশুদের মনের মধ্যে চলা নানান ভাবনা ,চিন্তা, ঘটনাগুলি রাত্রে স্বপ্নের মধ্যে ঘুরে ফিরে আসে। দীর্ঘদিন ধরে ছোট শিশুদের মনে ভয় চেপে বসলে , তা পরবর্তীকালে মানসিক অবসাদের পরিণত হবে।

•বহু শিশু আছে যারা মানসিক অবসাদের শিকার । তারা রাত্রেবেলা বিছানা ভিজিয়ে ফেলে, এক্ষেত্রে তাদের উপর একেবারেই মেজাজ হারিয়ে রেগে গিয়ে কথা বলবেন না । উপরন্তু তাদের সমস্যাটা বোঝার চেষ্টা করুন। পাশাপাশি যদি দেখেন আপনার সন্তান তার প্রিয় খাবারগুলি খেতে চাইছে না সে ক্ষেত্রেও তা মানসিক অবসাদের লক্ষণ হতে পারে। শিশুদের মানসিক অবসাদ কাটাতে সবথেকে গুরুত্বপূর্ণ বিষয় হল, অভিভাবকদের তাদের সঙ্গে বেশি করে সময় কাটাতে হবে । তাদেরকে নানান ধরনের মজার খেলায় ব্যস্ত রাখতে হবে। পড়াশোনার পাশাপাশি খেলাধুলা কিংবা তাদের সাথে সময় দেওয়া অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ।

খবরে থাকুন, ফলো করুন আমাদের সোশ্যাল মিডিয়ায়

সব খবর সবার আগে, আমরা খবরে প্রথম

Categories