Prothom Kolkata

Popular Bangla News Website

ভাঙ্গা বাঁধের ধারেই বসবাস, বর্ষার আগমনে ফের আতঙ্কে দিন যাপন মথুরাপুরবাসীর

।। প্রথম কলকাতা।।

২০১৯ সালে মালদার মানিকচক ব্লকের মথুরাপুর এলাকার অন্তর্গত শঙ্করটোলা এলাকায় ফুলহার নদীর ভাঙ্গনে ওই নদীর মূল বাঁধের একটা বিরাট অংশ তলিয়ে গিয়েছিল। যার ফলে সেখানে একটি বড় শিব মন্দির জলের তলায় তলিয়ে যায়। পাশাপাশি ভাঙতে শুরু করে নদীর ধারে থাকা বাড়িগুলি। রীতিমতো প্রাণ বাঁচাতে সেখানকার বাসিন্দাদের অন্যত্র আশ্রয় নিতে হয়। তাদের জন্য খোলা হয় ত্রাণশিবির। ওই ঘটনার ফলে যাদের বাড়িঘর ভেঙ্গে গিয়েছিল তাদেরকে পুনর্বাসনের প্রতিশ্রুতি দেওয়া হয়েছিল কিন্তু সেই প্রতিশ্রুতি পূরণ করেনি সরকার । এমনকি ভাঙ্গন রোধ করার জন্য স্থায়ীভাবে কোন কাজ করা হয়নি এখনও পর্যন্ত।

এরমধ্যে আরও বেশ কয়েকবার বাঁধ ভেঙেছে ওই নদীর। জলের তলায় তলিয়ে গেছে আরও বাড়িঘর। ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছেন বহু মানুষ । কিন্তু তিন বছর পরেও সেই নদীর বাঁধ স্থায়ীভাবে তৈরি করার কথা চিন্তা ভাবনাও করছে না সরকার। শুধুমাত্র আপৎকালীন কাজের জন্য জেলা সেচ দপ্তর বর্ষার আগে বালি মাটি ভর্তি বস্তা নদীর ধারে ফেলে দিয়ে যাচ্ছেন । আর তাতে কোনো লাভ হচ্ছে না বলেই জানিয়েছেন স্থানীয়রা। সেখানকার বাসিন্দা জীবন মন্ডল, চন্দন মন্ডল এবং রেখা মন্ডল এর মতো বহু ক্ষতিগ্রস্তরা জানান , নদীর বাঁধ যতক্ষণ না স্থায়ীভাবে মেরামতি করা হচ্ছে ততক্ষণ এই আশঙ্কা কাটবে না তাদের।

সামনেই বর্ষাকাল আসছে। এর মধ্যেই নদীর জল বাড়তে শুরু করেছে। এরপর আবারও নদীর বাঁধ ভাঙ্গবে এবং তার সাথে ভাঙবে বহু ঘরবাড়ি। ঘরছাড়া হবেন বহু মানুষ । প্রশাসনের তরফ থেকে তাদেরকে আশ্বাস দেওয়া হয়েছিল যে বাঁধ মেরামতির কাজ করা হবে পাকাপোক্তভাবে এবং ক্ষতিগ্রস্তদের পুনর্বাসন দেওয়া হবে । দুটির মধ্যে একটিও এই তিন বছরে হয়নি বলে অভিযোগ তাদের। এদিন রীতিমতো প্রশাসনের বিরুদ্ধে ক্ষোভ প্রকাশ পেল সেখানকার বাসিন্দাদের।

বর্ষার আগে প্রশাসনের দেওয়া প্রতিশ্রুতি বাস্তবে রূপায়িত হবে কিনা সে প্রসঙ্গে মানিকচক পঞ্চায়েত সমিতির সভাপতি কবিতা মন্ডল জানান, মথুরাপুরের ভাঙ্গন পরিস্থিতি তাদের নজরে রয়েছে। তাঁরা খুব তাড়াতাড়ি বাঁধ মেরামতির কাজ করার কথা জানাবেন জেলা সেচ দপ্তরকে। অন্যদিকে, রাজ্যের সেচ প্রতিমন্ত্রী সাবিনা ইয়াসমিন নিজেই এই এলাকা পরিদর্শন করেছিলেন বলে জানা যায়। কবে নদীর বাঁধ স্থায়ীভাবে মেরামতি হবে সে প্রশ্নের উত্তরে তিনি বলেন , ওই এলাকার পরিদর্শন তিনি নিজে করেছেন। আর সেখানে মেরামতির প্রয়োজন রয়েছে বলে তিনি মনে করছেন। পাশাপাশি তিনি জানান , খুব তাড়াতাড়ি সেখানে ভাঙ্গা বাঁধ মেরামতির কাজ শুরু হবে।

খবরে থাকুন, ফলো করুন আমাদের সোশ্যাল মিডিয়ায়

সব খবর সবার আগে, আমরা খবরে প্রথম

Categories