Prothom Kolkata

Popular Bangla News Website

পরিচারিকার বয়ানে মোড় ঘুরছে পল্লবী মৃত্যু কাণ্ডের! কী জানালেন সেলিমা?

। প্রথম কলকাতা।।

ছোটপর্দার জনপ্রিয় অভিনেত্রী পল্লবী দে’র ঝুলন্ত মৃতদেহ উদ্ধার করা হয় তাঁর গরফার ফ্ল্যাট থেকে। এই ঘটনায় আপাতত গ্রেফতার করা হয়েছে তাঁর লিভ ইন সঙ্গী সাগ্নিককে। তাঁর বিরুদ্ধে পল্লবীতে আর্থিক প্রতারণার এবং আত্মহত্যায় প্ররোচনা দেওয়ার অভিযোগ রয়েছে । এরইমধ্যে থানায় লিখিত অভিযোগ পত্রে ঐন্দ্রিলা নামক আরও একজনের নাম উল্লেখ করেন পল্লবীর বাবা। এবার এই রহস্য মৃত্যু তদন্তে নতুন পথ দেখাল পল্লবীর পরিচারিকা সেলিমা সর্দার। বুধবার গড়ফা থানায় আসেন তিনি।

সেলিমা সর্দার জানান, ঈদের দিন সকালে পল্লবীর কল টাইম থাকায় সে বেরিয়ে গিয়েছিল। কিন্তু তার আগের দিন রাত থেকে তাদের বাড়িতে থাকা ঐন্দ্রিলা তখনও ওই ফ্ল্যাটে ছিলেন। পল্লবী বেরিয়ে যাবার পরে ঐন্দ্রিলা এবং সাগ্নিক একটি ঘরে দীর্ঘক্ষন ছিলেন। সেলিমার এই বয়ানের সঙ্গে ঐন্দ্রিলার বক্তব্যের অনেক পার্থক্য রয়েছে। কারণ ঐন্দ্রিলা জানান যে, সাগ্নিককে তিনি চিনতেন পল্লবীর মাধ্যমে । যতবার সাগ্নিকের সঙ্গে কথা হয়েছে পল্লবী তখন উপস্থিত ছিল। আলাদাভাবে সময় কাটানো বা সাগ্নিকের সঙ্গে আলাদা কোনো সম্পর্ক নেই আর তাঁর। এর থেকেও বড় কথা পল্লবীর পরিবারের তরফ থেকে অভিযোগ উঠেছে সাগ্নিক এবং ঐন্দ্রিলা দুজনে মিলে পল্লবীর উপার্জিত অর্থ হাতিয়ে নেওয়ার প্রচেষ্টা করেছিল।

সেই প্রসঙ্গে ঐন্দ্রিলা জানিয়েছিলেন, সাগ্নিক এর সঙ্গে তাঁর কথাবার্তা খুবই কম হতো। তাদের সম্পর্কে সে যা জানতে পারত তার সবটাই পল্লবীর মারফত। সেই জায়গা থেকে দাঁড়িয়ে পল্লবীর টাকা পয়সা সম্পর্কিত কোন বিষয় তাঁর জানার কথা নয়। তাহলে প্রশ্ন উঠছে যদি তাঁর সাগ্নিকের সঙ্গে শুধু বন্ধুত্বই থেকে থাকে তাহলে ঈদের দিন দীর্ঘক্ষন এক ঘরে থাকার কারণ কী? ঐন্দ্রিলা কি কিছু লুকিয়ে যাচ্ছেন?

পল্লবীর পরিচারিকা বুধবার গড়ফা থানায় এসে যে তথ্য পুলিশকে জানান তা এবার কাঠগড়ায় দাঁড় করাবে ঐন্দ্রিলাকেও । কারণ সেলিমার বক্তব্যের সঙ্গে তাঁর বক্তব্যের বহু তফাৎ লক্ষ্য করা গিয়েছে। সাগ্নিকের বিরুদ্ধে আগেই একাধিক মেয়ের সঙ্গে সম্পর্ক রাখার অভিযোগ উঠেছে আর পল্লবীর পরিবারের তরফ থেকেও অভিযোগ উঠেছে ঐন্দ্রিলার বিরুদ্ধে। এই রহস্যমৃত্যুর তদন্তের ক্ষেত্রে পুলিশের পরবর্তী পদক্ষেপ কী হতে চলেছে তা দেখার বিষয়।

খবরে থাকুন, ফলো করুন আমাদের সোশ্যাল মিডিয়ায়

সব খবর সবার আগে, আমরা খবরে প্রথম

Categories