Prothom Kolkata

Popular Bangla News Website

মিশ্র পদ্ধতিতে নেওয়া হোক পরীক্ষা, অনলাইন-অফলাইন বিতর্কের মাঝে প্রেস বিবৃতি SFI’এর

1 min read

।। প্রথম কলকাতা।।

কলেজ, বিশ্ববিদ্যালয়ের পরীক্ষা অনলাইনে নেওয়া হবে? না অফ লাইনে নেওয়া হবে? তা দিয়ে শুরু হয়েছে তীব্র বিতর্ক। একাধিক বিশ্ববিদ্যালয়ে পক্ষ থেকে অনলাইনে পরীক্ষা নেওয়ার কথা জানানো হলেও রবীন্দ্রভারতী বিশ্ববিদ্যালয়, আলিয়া বিশ্ববিদ্যালয়ের পক্ষ থেকে অফলাইনে পরীক্ষা নেওয়ার নির্দেশ এসেছে। তারপরই শুরু হয়েছে ছাত্র বিক্ষোভ। এই পরিস্থিতিতে আজ এক প্রেস বিবৃতি জারি করেছে ভারতের ছাত্র ফেডারেশনের পশ্চিমবঙ্গ রাজ্য কমিটি। এই প্রেস বিবৃতিতে ভারতের ছাত্র ফেডারেশনের সম্পাদক সৃজন ভট্টাচার্যের নাম রয়েছে, সভাপতি প্রতীকউর রহমানের নাম রয়েছে।

প্রেস বিবৃতিতে জানানো হয়েছে, রাজ্যের একাধিক বিশ্ববিদ্যালয়ে পরীক্ষা গ্রহণ পদ্ধতি অনলাইনে হবে? না অফলাইনে হবে? তা নিয়ে বিতর্ক তৈরি হয়েছে। শাসক দলের ছাত্রসংগঠন শিক্ষাক্ষেত্রে করোনা, লকডাউন জনিত ব্যবস্থা সম্পর্কে যাদের কোনো দিন কোনো গঠনমূলক বক্তব্য ছিল না। তারা এই প্রশ্নে ঘোলা জলে মাছ ধরতে নেমেছে বলে খবর এসেছে। কিন্তু বামপন্থী এই সংগঠন প্রথম দিন থেকে সমস্ত ছাত্রের সুবিধার্থে পঠন-পাঠন পদ্ধতি স্থির করার দাবি জানিয়ে আসছে সরকারের কাছে।

পরীক্ষা নিয়ে চলা এই বিতর্ক নিয়ে সংগঠনের কিছু প্রস্তাব আছে। সংগঠন প্রযুক্তিকে গ্রহণের পক্ষপাতী। কিন্তু প্রযুক্তির সমবন্টন না হলে ডিজিটাল ডিভাইড তৈরি হবে। বিরাট অংশের ছাত্র কেবলমাত্র অনলাইন নির্ভর শিক্ষা ব্যবস্থা থেকে ড্রপ আউট হয়ে যাচ্ছে। আবার যে ছাত্ররা এতদিন অনলাইনে পড়েছে, তাদের হঠাৎ অফলাইনে পরীক্ষা দিতে অসুবিধা হচ্ছে, সে কথার যুক্তি আছে।

সংগঠনের প্রস্তাব, এমন বন্দোবস্ত করা হোক, যাতে অনলাইন, অফলাইন মিশ্র পদ্ধতিতে পরীক্ষা নেওয়া যেতে পারে। যারা অনলাইনে পরীক্ষা দিতে ইচ্ছুক, তারা অনলাইনে পরীক্ষা দেবে। আর যাদের অনলাইনে পরীক্ষা দিতে সমস্যা রয়েছে, তাদের জন্য অফলাইন সেন্টারের বন্দোবস্ত করা হোক। বিশ্ববিদ্যালয়ের পক্ষ থেকে ভবিষ্যতে খেয়াল রাখতে হবে, অফলাইনে ক্লাস করিয়ে সিলেবাস শেষ করে তবেই যেন অফলাইনে পরীক্ষা নেওয়া হয়।

করোনা কালে ছাত্রছাত্রীরা যে পঠন-পাঠন পদ্ধতিতে অভ্যস্ত হয়ে পড়েছে, তা থেকে সড়ে গিয়ে প্রচলিত পদ্ধতিতে ফিরতে যথাযথ পরিকল্পনার প্রয়োজন আছে। ছাত্রদের সঙ্গে বোঝাপড়া করে কাজ করতে হবে। সিলেবাসের পুনর্বিন্যাস অথবা সেমেস্টারের সময়কাল প্রসারিত করার সুযোগ আছে কিনা? সেটাও ভেবে দেখা প্রয়োজন।

খবরে থাকুন, ফলো করুন আমাদের সোশ্যাল মিডিয়ায়

সব খবর সবার আগে, আমরা খবরে প্রথম

Categories