Prothom Kolkata

Popular Bangla News Website

গোটা পরিবারকে নৃশংসভাবে খুন ! দুষ্কৃতীরা কেটে নিয়ে গেল মাথা, বারান্দায় পড়ে রক্তভেজা দেহ

1 min read

।। প্রথম কলকাতা ।।

গোটা পরিবার প্রতিদিন রাত্রে ছাদে ঘুমাতে যায়, আর সেই সুযোগে ভোরের দিকে দুষ্কৃতীরা নৃশংসভাবে হামলা চালাল। পরিবারের প্রত্যেককে খুন করল। শুধু তাই নয় দুষ্কৃতীদের হাত থেকে রক্ষা পায়নি ওই পরিবারের ১২ বছর বয়সী মেয়ে। নৃশংস হত্যা কাণ্ড চালিয়েও শান্তি হয়নি, অবশেষে ওই বাড়ির এক মহিলার মাথা কেটে নিয়ে গেল, রক্ত ভেজা শরীর পড়ে রইল বারান্দায়।

এমন ভয়ঙ্কর ঘটনা ঘটেছে মধ্যপ্রদেশের মান্ডলা জেলায় । এই ঘটনাকে কেন্দ্র করে ব্যাপক চাঞ্চল্য ছড়িয়েছে । ঘটনাস্থলে মোতায়েন করা হয়েছে প্রচুর পুলিশ। থমথম করছে গোটা গ্রাম। ওই এলাকার অন্যান্য মানুষ রীতিমত আতঙ্কিত। দুর্বৃত্তরা আদিবাসী স্বামী-স্ত্রী ও তাদের সন্তানকে ঘুমন্ত অবস্থায় হত্যা করে। নিষ্ঠুরতার সীমা ছাড়িয়ে তারা ওই নারীর মাথা কেটে নিয়ে যায়। বিচ্ছিন্ন ধড়টি রক্তে ভেজা অবস্থায় বারান্দায় পড়ে ছিল। এ ঘটনার পর এলাকায় আতঙ্ক বিরাজ করছে।

ঘটনাটি মান্ডলা জেলার মোহগাঁও এলাকার পাতাদেই গ্রামে মঙ্গলবার ভোরে ঘটে। মঙ্গলবার রাতে পুরো পরিবার তাদের বাড়ির ছাদে ঘুমাতে গিয়েছিল। অনুমান করা হচ্ছে ঘটনাটি ঘটেছে ভোর তিনটে থেকে চারটের মধ্যে। মৃতদের নাম নর্মদ সিং (৬২ বছর), স্ত্রী শুক্রতি বাই (৫৭ বছর) এবং কুমারী মহিমা (১২ বছর)। এই ঘটনাটি নিয়ে শুরু হয়ে গিয়েছে রাজনৈতিক মহলে জোর জল্পনা। এই ঘটনা নিয়ে নানান প্রশ্ন উঠছে সরকারের বিরুদ্ধে। এই রাজ্যের প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রী দিগ্বিজয় সিং ট্যুইট করে শিবরাজ সরকারকে নিয়ে নানা প্রশ্ন তুলেছেন। দিগ্বিজয় সিং ট্যুইট বার্তায় জানান, মধ্যপ্রদেশ অপরাধের ঘাঁটি হয়ে উঠছে। রাজ্যে ক্রমবর্ধমান অপরাধ এবং বিশেষ করে এসসি/এসটি পরিবারের উপর ক্রমবর্ধমান অত্যাচারের পরিপ্রেক্ষিতে, স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীর কি পদত্যাগ করা উচিত নয়? তবে তাদের কাছ থেকে এমন কোনো প্রত্যাশা দেখছি না। কারণ মুখ্যমন্ত্রীরও ইস্তফা চাওয়ার সাহস নেই।

মৃতদেহগুলি ময়না তদন্তে পাঠানো হয়েছে । পুরো গ্রামে মোতায়েন করা হয়েছে বিশাল পুলিশবাহিনী তবুও আতঙ্ক কাটছে না গ্রামবাসীদের । অপরদিকে মৃতদের স্বজনরা বিক্ষোভ জানাচ্ছেন।

খবরে থাকুন, ফলো করুন আমাদের সোশ্যাল মিডিয়ায়

সব খবর সবার আগে, আমরা খবরে প্রথম

Categories