Prothom Kolkata

Popular Bangla News Website

‘PWD-র এত খাঁই কেন? ওদের দিয়ে সব করানোর দরকার নেই’, পূর্তদপ্তরকে ভর্ৎসনা মুখ্যমন্ত্রীর

1 min read

।। প্রথম কলকাতা।।

আজ পশ্চিম মেদিনীপুরে প্রশাসনিক বৈঠকে যোগদান করলেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় (Mamata Banerjee), যেখানে রাজ্যের পূর্ত দপ্তরের কাজ নিয়ে তীব্র ক্ষোভ প্রকাশ করলেন মুখ্যমন্ত্রী। মুখ্যমন্ত্রী জানান, পিডব্লিউডির খাই খুব বেশি কেন? কিছু করতে চায় না। করতে গেলে এমন বাজেট ধরবে, যা বলার নয়। তাই পিডব্লিউডিকে দিয়ে সব কাজ না করিয়ে এইচআরবিসির ইঞ্জিনিয়ারদের দিয়ে কাজ করাবার নির্দেশ দিলেন মুখ্যমন্ত্রী।

বৈঠকে মুখ্যমন্ত্রী জানতে পারেন, ঘাটাল মহকুমার বীরসিংহ গ্রামে দুটি গেট ও একটি কমিউনিটি হলের এক কাজ করার কথা দেড় বছর আগে ঘোষণা করা হয়েছিল। কিন্তু এখনো সেই কাজ শুরু হয়নি। এ প্রসঙ্গে জেলাশাসক মুখ্যমন্ত্রীকে জানান, ওই কাজের জন্য পিডব্লিউডি ৪০ লক্ষ টাকার ডিপিআর দিয়েছে। সেই টাকা না পাওয়ার জন্যই কাজ আটকে রয়েছে। গোটা কাজ করতে গেলে আরো বেশি অর্থের প্রয়োজন। জেলাশাসকের এই বক্তব্যে অত্যন্ত ক্ষুব্ধ হন মুখ্যমন্ত্রী।

পিডব্লিউডিকে ভৎসনা করে মুখ্যমন্ত্রী জানান, “পিডব্লিউডির বড্ড বেশি খাঁই। পিডব্লিউডির এত খাঁই কেন? কোনও কিছু করতে চায় না। করতে গেলেও এমন বাজেট ধরবে যে, বলার না। প্রথমে পাঁচ টাকা ধরবে। তারপর এক বছর পর রিকাস্ট করে বলবে ১৫ টাকা। এই অভ্যাসটা বন্ধ করো। ওদের দিয়ে সব কাজ করানোর দরকার নেই। আমি যেন কাজ করাই না! কালীঘাট মোড়ে অতবড় গেট করে দিয়েছি ৫০ লক্ষ টাকায়। এত টাকা তো লাগেনি।”

এরপর ডিপিআর দেখতে চান মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। ডিপিআর দেখার পর আরও ক্ষুব্ধ হয়ে মুখ্যমন্ত্রী জানান, “৬ কোটির মধ্যেই সব কাজ হতে হবে। এত খাই কেন! পিডব্লুডিকে দিয়ে সব কাজ করানোর দরকার নেই। এইচআরবিসির ইঞ্জিনিয়াররা বসে আছেন, তাঁদের দিয়ে কাজ করান।” এভাবে পূর্ত দপ্তরের কাজ নিয়ে তীব্র ক্ষোভ প্রকাশ করলেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। ইতিপূর্বেও পূর্ত দপ্তরের বিরুদ্ধে তীব্র ক্ষোভ প্রকাশ করেছিলেন মুখ্যমন্ত্রী। ক্ষোভ প্রকাশ করেছিলেন ঠিকাদারদের কাজ নিয়েও।

খবরে থাকুন, ফলো করুন আমাদের সোশ্যাল মিডিয়ায়

সব খবর সবার আগে, আমরা খবরে প্রথম

Categories