Prothom Kolkata

Popular Bangla News Website

‘আটকে রেখে অত্যাচার করছে শ্বশুর বাড়ির লোক’! শেষ ফোনের পর থেকে নিখোঁজ ছেলে

1 min read

।। প্রথম কলকাতা।।

ছেলে বাড়িতে জানিয়েছিল শ্বশুর বাড়িতে যাচ্ছে। তারপরের দিনই বাড়ি ফিরে আসবে । কিন্তু মাঝে অনেকগুলি দিন পেরিয়ে যাবার পরও বাড়িতে ফেরেনি ছেলে। কোন খোঁজ পাওয়া যায়নি তাঁর। উত্তর ২৪ পরগনার পানিহাটির বাসিন্দা এই যুবক। গত মাসের ১ তারিখে বাড়ি থেকে বের হয়েছিলেন তিনি। তারপর ৬ তারিখে একবার বাড়িতে ফোন করে কথা বলেছিলেন পরিবারের সঙ্গে। তখনই তিনি পরিবারকে জানিয়েছিলেন যে শ্বশুর বাড়ির লোক তাকে আটকে রেখেছে, অত্যাচার করছে তাঁর উপরে। এরপর ছেলের সঙ্গে আর কোনো কথা হয়নি বাবা-মায়ের । কোনরকম খোঁজ পাওয়া যায়নি তাঁর।

পানিহাটি নেতাজি সুভাষ রোডের বাসিন্দা শুভজ্যোতি বোসের সঙ্গে গত ১৩ ই মার্চ হুগলির উত্তর পাড়ার বাসিন্দা পূজা রায়ের বিবাহ হয়. বিয়ের এক সপ্তাহ পর পূজা তাঁর দিদির সঙ্গে উত্তরপাড়ায় চলে আসেন বলে জানা যায়। আর তারপর শুভজ্যোতিকে তিনি ফোন করে তাঁর বাপের বাড়িতে আসতে বলেন। সেইমতো শুভজ্যোতি জানায় যে সে পূজার বাপের বাড়িতে যাচ্ছে আর পরের দিনই বাড়ি ফিরে আসবে । পরিবারের সদস্যদের সে জানিয়েছিল পূজাকে আনতে শ্বশুর বাড়ি যাচ্ছে সে। তবে এখনও পর্যন্ত না ছেলে বাড়িতে ফিরেছে না-ই বাড়ি ফিরেছে বৌমা।

শেষ পরিবারের সঙ্গে শুভজ্যোতির কথা হয়েছিল গত মাসের ৬ তারিখে । সে ফোন করে জানিয়েছিল শ্বশুর বাড়িতে আসার পর তাকে আটকে দেয় শ্বশুরবাড়ির লোকেরা। আর সেখানে তাকে অত্যাচার করা হচ্ছে। সে ভালো নেই এমনটাই জানিয়েছে ছিল তাঁর বাবাকে। এই কথা শোনার পর তাঁর বাবা খড়দহ থানায় অভিযোগ দায়ের করে। একবার নয় প্রায় বার তিনেক অভিযোগ দায়ের করা হয়েছে। কিন্তু পুলিশ এই বিষয়ে কোনো তৎপরতা দেখাচ্ছে না বলেই অভিযোগ শুভজ্যোতির পরিবারের। বর্তমানে তাদের দাবি, তাঁরা যেহেতু ছেলের সঙ্গে কোন যোগাযোগ করতে পারছেন না তাই সে ক্ষেত্রে পুলিশ প্রশাসন তাঁর ছেলেকে উদ্ধার করে বাড়িতে ফিরিয়ে নিয়ে আসুক। আর যদি সত্যিই শ্বশুরবাড়ির লোকজন তাঁর ওপর অত্যাচার করে থাকে তাহলে তাদের বিরুদ্ধেও যথোপযুক্ত ব্যবস্থা গ্রহণ করার আবেদন জানিয়েছেন তাঁরা পুলিশকে।

খবরে থাকুন, ফলো করুন আমাদের সোশ্যাল মিডিয়ায়

সব খবর সবার আগে, আমরা খবরে প্রথম

Categories