Prothom Kolkata

Popular Bangla News Website

বদ মেজাজি পল্লবী, গয়না, ফ্ল্যাটের EMI দেওয়া নিয়েই সাগ্নিকের সাথে ঝগড়া! অকপট প্রতিবেশী

1 min read

।  প্রথম কলকাতা ।।

ব্যাংকে ১৫ লক্ষ টাকা। একই সাথে চলছিল ‘মন মানে না’ ধারাবাহিকের কাজ। তারপরেও মিটতো না আর্থিক চাহিদা। গয়না, ফ্ল্যাটের EMI শোধ করা নিয়ে সাগ্নিকের সাথে প্রায় দিনই চলতো ঝগড়া-অশান্তি। রবিবার টেলি অভিনেত্রী পল্লবী দে-র মৃত্যু রহস্য ঘিরে উঠে আসছে এমনই চাঞ্চল্যকর তথ্য।

রবিবার রাতভর লিভ-ইন পার্টনার সাগ্নিককে জেরার পর চলছে প্রতিবেশীদের থেকে খোঁজখবর। আর তাতেই এদিন পুলিশের কাছে আসে নতুন তথ্য। দক্ষিণ কলকাতার গড়ফার গাঙ্গুলীপুকুরের কে পি রায় লেনের বাসিন্দা অভিনেত্রী পল্লবী দে ও তাঁর লিভ ইন পার্টনার সাগ্নিক চক্রবর্তীর প্রতিবেশিরা জানাচ্ছেন, দু’জনের মধ্যে প্রায়ই ঝগড়াঝাঁটি হত। প্রচন্ড জেদি মনোভাবের মেয়ে পল্লবী। তাই ঝগড়া হলেই ঘরে বাসনপত্র ও জিনিসপত্র ছোড়াছুড়ি ভাঙচুরের আওয়াজ আসতো। এমনকি রেগে গিয়ে জিনিসপত্র ছুড়ে ঘরের বাইরেও ফেলতেন পল্লবী। গোলমাল দেখে নীচ থেকে উপরে উঠে আসতে হত কেয়ারটেকার দাদাকে।

একই সাথে সাগ্নিক ও পরিবারের লোকেদের সঙ্গে কথা বলে পুলিশ জানতে পারে সোনার গয়না কিনতে শুরু করেছিল পল্লবী। সামনেই কী বিয়ের পিঁড়িতে বসতেন অভিনেত্রী? উত্তর অজানা থাকলেও জানা যায়, গড়ফার ফ্ল্যাটকে ধীরে ধীরে নিজের মতো সাজিয়ে তোলার জন্য নতুন জিনিস কিনতে শুরু করেছিলেন পল্লবী। তার ওপর চলছিল আবার নিউ টাউনে সাগ্নিকের নামে কেনা ৮০ লক্ষ টাকা দামের ফ্ল্যাটের EMI। একই সাথে সাগ্নিক যে গাড়ি কিনেছিলেন সেই গাড়ির EMI ও দিতে হত পল্লবীকেই। নিজের জন্য প্রচুর সোনার গয়না কিনেছিলেন পল্লবী। সেসবের ভর্তুকিও ভরতে হত তাকেই। কীভাবে এই বিপুল অর্থের EMI শোধ করবেন ভেবে না পেতেই মেজাজ হারাতেন পল্লবী। একই সাথে ভুগতেন অবসাদে।

কিন্তু এখানেই বার বার প্রশ্ন উঠছে ব্যাংকে রাখা ১৫ লক্ষ টাকা থাকা সত্ত্বেও এতো অবসাদ কিসের। প্রতিবেশী এবং পল্লবীর ঘনিষ্ট মহল সূত্রে জানা যায়, পল্লবী-সাগ্নিকের জয়েন্ট অ্যাকাউন্টে থাকা ১৫ লক্ষ টাকায় হাত দিতে চাইতেন না সাগ্নিক। এছাড়াও পল্লবীর ও তাঁর মায়ের অ্যাকাউন্ট থেকে টাকা সাগ্নিক নিজের অ্যাকাউন্টে হাতিয়ে নিয়েছিলেন বলেই দাবি করছেন মৃতার বাবা নীলু দে। একই সাথে তাঁর দাবি, টাকা হস্তগত এবং সম্পত্তি হাতানোর লাভেই পল্লবীকে খুন করেছে সাগ্নিক।

খবরে থাকুন, ফলো করুন আমাদের সোশ্যাল মিডিয়ায়

সব খবর সবার আগে, আমরা খবরে প্রথম

Categories