Prothom Kolkata

Popular Bangla News Website

ওয়ারেন্ট ছাড়াই পার্টি অফিসে পুলিশি তল্লাশি! অভিযোগ নিয়ে হাইকোর্টের দরজায় শুভেন্দু

1 min read

।। প্রথম কলকাতা।।

গত রবিবার রাজ্যের বিরোধী দলনেতা শুভেন্দু অধিকারীর (Suvendu Adhikari) নন্দীগ্রাম ১ নম্বর ব্লকের অফিসে তল্লাশি চালায় পুলিশ। বিজেপির পক্ষ থেকে অভিযোগ করা হয়েছে, সেদিন তল্লাশির নামে চলেছে হেনস্থা। তীব্র বচসা দেখা দেয় বিজেপি কর্মী, সমর্থকদের সঙ্গে পুলিশের। ট্যুইট করে শুভেন্দু অধিকারী জানান, “কোনো পূর্ব সূচনা না দিয়ে, কোনো সার্চ ওয়ারেন্ট ছাড়াই ও ম্যাজিস্ট্রেটের অনুপস্থিতিতে, আচমকা মমতা পুলিশ (পশ্চিমবঙ্গ পুলিশ) আমার নন্দীগ্রামের বিধায়ক কার্যালয়ে অনধিকার প্রবেশ করে। মমতা সরকারের পুলিশের এই জঘন্য অপব্যবহার বিরোধী দলনেতার প্রতি এক ঘৃণ্য ষড়যন্ত্রের প্রমাণ।” এরপর আজ এর বিরুদ্ধে আদালতের দ্বারস্থ হলেন শুভেন্দু অধিকারী। বিচারপতি রাজশেখর মান্থার বেঞ্চে মামলা দায়ের করা হয়েছে। আগামী বৃহস্পতিবার এই মামলার শুনানি হতে চলেছে।

শুভেন্দু অধিকারী অভিযোগ করেছেন, কোনরকম ওয়ারেন্ট ছাড়াই তাঁর পার্টি অফিসে হানা দিয়েছিল পুলিশ। যে জন্য তিনি কলকাতা হাইকোর্টের দ্বারস্থ হলেন। মামলা দায়েরের অনুমতি চেয়েছিলেন তিনি। তাঁকে অনুমতি দেয় আদালত। আগামী বৃহস্পতিবার এই মামলার শুনানি হতে চলেছে বিচারপতি রাজশেখর মান্থার বেঞ্চে। গত রবিবার বিকেলে হঠাৎ পুলিশ উপস্থিত হয়েছিল শুভেন্দু অধিকারীর দলীয় কার্যালয়ে। বিজেপির পক্ষ থেকে অভিযোগ করা হয়েছিল, তমলুকের এসডিপিও সাকিব আহমেদ ও তমলুক থানার আইসির নেতৃত্বে বিশাল পুলিসবাহিনী তল্লাশির নামে করেছে হেনস্থা।

বিজেপির অভিযোগ, কোন রকম কারণ ছাড়াই নন্দীগ্রামে বিরোধী দলনেতার অফিসে হামলা চালিয়েছে পুলিশ। তৃণমূলের নির্দেশেই এ কাজ করেছে পুলিশ। তবে এই অভিযোগ অস্বীকার করেছে তৃণমূল। তৃণমূলের দাবি, সেদিন যে অফিসে তল্লাশি চালিয়েছে পুলিশ, সেটি আসলে বিধায়কের কার্যালয় ছিল না। এই বাড়ি থেকে নন্দীগ্রামের ভোটার হয়েছিলেন শুভেন্দু অধিকারী। তিনি যদি কোন অপরাধ নাই করে থাকেন, তাহলে তিনি এত ভয় পাচ্ছেন কেন?

খবরে থাকুন, ফলো করুন আমাদের সোশ্যাল মিডিয়ায়

সব খবর সবার আগে, আমরা খবরে প্রথম

Categories