Prothom Kolkata

Popular Bangla News Website

নন্দীগ্রামের বিজেপি কর্মী খুন, তিন তৃণমূল নেতাকে জিজ্ঞাসাবাদ CBI-এর

1 min read

।। প্রথম কলকাতা।।

বিধানসভা নির্বাচনের ফল ঘোষণার পর দিনই নন্দীগ্রামের বিজেপি কর্মী দেবব্রত মাইতির উপরে হামলার অভিযোগ উঠেছিল। গুরুতর আহত হয়েছিলেন তিনি। কয়েক দিন চিকিৎসার পর তাঁর মৃত্যু হয়। এই ঘটনার তদন্ত করছে সিবিআই। এই ঘটনায় আজ সিবিআই জেরা করলো তৃণমূলের ৩ জন নেতা-কর্মীকে। যারা হলেন নন্দীগ্রামের তৃণমূলের ব্লক সহ সভাপতি শেখ সানোয়ার, কালীচরণপুরের তৃণমূল বুথ সভাপতি শেখ মুজিবর ও নন্দীগ্রামের তৃণমূল কর্মী শেখ নাজেমুল। সিবিআইকে রাজনৈতিক উদ্দেশ্যে ব্যবহার করছে বিজেপি এমন অভিযোগ তৃণমূলের।

আজ কয়েক ঘণ্টা ধরে তাঁদের জিজ্ঞাসাবাদ করেছে সিবিআই। তৃণমূল নেতা শেখ সানোয়ার জানালেন, “২ তারিখ, ৩ তারিখ আমি কোথায় ছিলাম? কী করছিলাম? এই খুনের প্রসঙ্গে আমি কী জানি? এই সমস্ত জিজ্ঞাসা করা হয়েছে। প্রায় শতাধিক প্রশ্নের উত্তর আমাকে দিতে হলো। শুভেন্দু অধিকারীর অঙ্গুলিহেলনে এসব হচ্ছে।”

তবে, এ প্রসঙ্গে বিজেপির তমলুক সাংগঠনিক জেলা সভাপতি তপন বন্দ্যোপাধ্যায় জানালেন, “সিবিআইয়ের কাজ করছে সিবিআই। মহামান্য আদালতের নির্দেশে কাজ করছে সিবিআই। এর সঙ্গে বিজেপির কোন সম্পর্ক নেই।”

ইতিপূর্বে, তৃণমূল নেতা শেখ সুফিয়ানকে জিজ্ঞাসাবাদ করে সিবিআই। তৃণমূলের ১১ জন নেতাকর্মীকে এই ঘটনায় ইতিমধ্যে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। এবার তৃণমূলের আরো ৩ জন নেতাকর্মীকে জিজ্ঞাসাবাদ করলো সিবিআই।

বিধানসভা নির্বাচনের ফল ঘোষণার পরদিন অর্থাৎ ৩রা মে ২০২১ নন্দীগ্রামের একাধিক জায়গায় হামলা চালানোর অভিযোগ উঠেছিল তৃণমূলের বিরুদ্ধে। এই সময়ে নন্দীগ্রামের চিল্লাগ্রাম এলাকায় গুরুতর জখম হন দেবব্রত মাইতি। এরপর কলকাতার এক হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় তাঁর মৃত্যু ঘটে। পরবর্তীতে এই ঘটনার তদন্তে নামে সিবিআই। মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের নির্বাচনী এজেন্ট শেখ সুফিয়ান সহ তৃণমূলের বহু নেতাকর্মীকে ডেকে পাঠানো হয়েছিল। এরপর একাধিক তৃণমূল নেতাকে গ্রেফতার করেছে সিবিআই।

খবরে থাকুন, ফলো করুন আমাদের সোশ্যাল মিডিয়ায়

সব খবর সবার আগে, আমরা খবরে প্রথম

Categories