Prothom Kolkata

Popular Bangla News Website

শুকিয়ে যাচ্ছে পাকিস্তান, সিন্ধুতে জলের জন্য হাহাকার ! বাড়ছে জনগণের ক্ষোভ

।। প্রথম কলকাতা ।।

২০৫০ সাল নাগাদ সারাবিশ্ব চরম জল সংকটের মুখে পড়বে , এমনটাই জানিয়ে বারবার সতর্ক করেছে বিভিন্ন বিশেষজ্ঞমহল । ইতিমধ্যেই জল সংকট দেখা দিয়েছে আমেরিকার বেশ কিছু স্থানে। পাশাপাশি খরার কবলে পাকিস্তান । বিশ্বের যে ২৩টি দেশ ইতিমধ্যেই দুই বছরেরও বেশি সময় ধরে খরা কবলিত, তাদের মধ্যে রয়েছে পাকিস্তান। জুন মাসের ১৭ তারিখে ‘মরুকরণ ও খরা প্রতিরোধ দিবস’ উপলক্ষে জাতিসংঘের একটি প্রতিবেদনে জানানো হয়, পাকিস্তান ছাড়াও জাতিসংঘের তালিকায় অন্যান্য ২২টি দেশের মধ্যে রয়েছে ব্রাজিল , আফগানিস্তান , ইরাক , ইরান ,চিলি, সোমালিয়া ,দক্ষিণ সুদান, মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র, মোজাম্বিক, ইথিওপিয়া প্রভৃতি দেশগুলি। সিন্ধু এলাকার অবস্থা অত্যন্ত খারাপ। জলের জন্য রীতিমত হাহাকার পড়ে গিয়েছে। স্বাভাবিকভাবেই পাকিস্তানের সাধারণ মানুষ ক্ষোভ উগরে দিচ্ছেন সরকারের প্রতি।

জাতিসংঘের প্রতিবেদনে জানানো হয়েছে , ২০৫০ সাল নাগাদ অতিরিক্ত ৪ মিলিয়ন বর্গ কিলোমিটার খরা মোকাবিলায় ব্যবস্থা নিতে হবে। পাশাপাশি সতর্ক করে বলা হয়, পৃথিবীর প্রায় ৪০ শতাংশ ভুমি ক্ষয়প্রাপ্ত হয়েছে, যার কারণে প্রভাবিত হবে পৃথিবীর জনসংখ্যার অর্ধেকেরও বেশি।

জাতিসংঘের প্রতিবেদন পাকিস্তানকে একটি খরা প্রবণ দেশ হিসেবে উল্লেখ করেছে। সিন্ধু প্রদেশের মানুষ পানীয় জলের চরম সংকটের মুখোমুখি , যার কারণে দুর্যোগের মতো পরিস্থিতির সৃষ্টি হয়েছে। যদিও এর পিছনে প্রাকৃতিক ছাড়াও অন্যান্য কয়েকটি কারণ রয়েছে। পাঞ্জাবের নদী থেকে জল ছাড়া হচ্ছে না সিন্ধু চেম্বার অব এগ্রিকালচারের বিরুদ্ধে স্বাভাবিকভাবেই বিক্ষোভ করছে অনেকেই। এই বিষয়ে সিন্ধুর কর্মীরা করাচিতে রবিবার প্রেস ক্লাবের বাইরে বিক্ষোভ করেছেন। বিক্ষোভকারীদের দাবি একটাই, সিন্ধু ভাগের জল পাচ্ছে না।

সিন্ধুর জ্যাকোবাবাদ এলাকায় তাপমাত্রা ছুঁয়েছে প্রায় ৫১ ডিগ্রি সেলসিয়াসে। পুরো পাঞ্জাব প্রদেশ জুড়ে চলছে তীব্র তাপপ্রবাহ। এর কারণে বহু মানুষ ইতিমধ্যেই অসুস্থ হয়ে পড়েছেন , আবার অনেকে ভুগছেন ডায়রিয়ার মতো সমস্যায়। বহু মানুষের দেখা দিয়েছে কিডনির জটিল সমস্যা । গরম আর জল সংকটের বিশেষ করে নাজেহাল পাকিস্তানের সিন্ধু এবং পাঞ্জাবের জনগণ।

খবরে থাকুন, ফলো করুন আমাদের সোশ্যাল মিডিয়ায়

সব খবর সবার আগে, আমরা খবরে প্রথম

Categories