Prothom Kolkata

Popular Bangla News Website

বিয়েবাড়ির সংঘর্ষে আসানসোলে মৃত্যু যুবকের, ঘটনায় গ্রেফতার এলাকার তৃণমূল নেতা

।।প্রথম কলকাতা।।

আসানসোলে আত্মীয়র বিয়ের অনুষ্ঠানে গিয়ে ক্যাটারিং কর্মীদের সঙ্গে গন্ডগোলের জেরে মৃত্যু হয় এই যুবকের। ওই যুবক বর্ধমানের বাজেপ্রতাপপুর এলাকার বাসিন্দা বলে জানা যায়। গত শুক্রবার বাজেপ্রতাপপুর থেকে প্রীতিভোজের অনুষ্ঠানে অংশ নিতে পিসির বাড়ি আসানসোলের জামুড়িয়া বগডিহায় এসে উপস্থিত হন। তবে ওই সংঘর্ষের ফলে গুরুতর আহত হন তিনি এবং পরের দিন মৃত্যু হয় তাঁর। ওই ঘটনায় এবার জামুড়িয়া থানার পুলিশ গ্রেফতার করল এলাকার এক প্রভাবশালী নেতাকে। রবিবারে তাকে আসানসোল আদালতে তোলা হয়েছে বলে জানা যায়।

ওই তৃণমূল নেতা পশ্চিম বর্ধমান জেলা পরিষদের প্রাক্তন কর্মাধ্যক্ষ ছিলেন বলে জানা যায় । যদুপতি পাল নামে ওই তৃণমূল নেতাকে তদন্তে নেমে গ্রেফতার করে জামুড়িয়া থানার পুলিশ। তাঁর বিরুদ্ধে অভিযোগ ওঠে যে তিনি সেই দিনের ঘটনায় উস্কানি দিয়েছিলেন। তৃণমূল নেতার গ্রেফতারি প্রসঙ্গে রাজ্যের মন্ত্রী মলয় ঘটক জানান, কেউ যদি অন্যায় করে তাহলে তাকে অবশ্যই শাস্তি পেতে হবে। সে যেই দলেরই হোক না কেন বা যেই পদেই থাকুক না কেন । কাউকে ছাড় দেওয়া হবে না । দোষীরা যথোপযুক্ত শাস্তি পাবে এই রাজ্যে।

গত শুক্রবার আসলে যে ঘটনাটি ঘটেছিল তা হল, রবি যেই বিয়ে বাড়ির অনুষ্ঠানে গিয়েছিল সেখানে রাতের দিকে সবার শেষে পরিবারের সদস্যরা খেতে বসেছিলেন। কিন্তু সেই সময়ে ক্যাটারিংয়ের কর্মীরা জানান যে আছে তাদের সময় শেষ হয়েছে এবং অনেক রাত হয়ে গিয়েছে বলে তাঁরা আর খাবার পরিবেশন করতে পারবে না। এই নিয়ে দু’পক্ষের মধ্যে বচসা সৃষ্টি হয়। আত্মীয়দের সঙ্গে ক্যাটারিং কর্মীদের হাতাহাতি শুরু হওয়ায় দু’পক্ষের ঝামেলা থামাতে যায় রবি । কিন্তু তাকেও বেধড়ক মারধর করে ক্যাটারিং এর কর্মীরা। ওই পরিবারের আরও দুজনসহ রবিকে নিয়ে যাওয়া হয় বাহাদুরপুর স্বাস্থ্যকেন্দ্রে। প্রাথমিক চিকিৎসার পর তাদেরকে বাড়িতে নিয়ে আসা হয় । কিন্তু পরেরদিন সকালবেলায় ফের বুকে ব্যথা অনুভব করে রবি। তাকে স্বাস্থ্যকেন্দ্রে নিয়ে যাওয়ার পর চিকিৎসকরা জানান মৃত্যু হয়েছে তাঁর।

খবরে থাকুন, ফলো করুন আমাদের সোশ্যাল মিডিয়ায়

সব খবর সবার আগে, আমরা খবরে প্রথম

Categories