Prothom Kolkata

Popular Bangla News Website

টাওয়ার প্রতারণায় লাগাতার গ্রেফতারি, গড়ফা থেকে আটক এক মহিলা

।। প্রথম কলকাতা।।

সম্প্রতি প্রতারকরা প্রতারণা করার এক নতুন পথ খুঁজে বের করেছে। সেখানে বিভিন্ন নামী মোবাইল নেটওয়ার্ক সংস্থার নাম করে ফোন করা হয় সাধারন মানুষকে । আর তারপর সেই সংস্থার কর্মী বলে পরিচয় দেওয়া হয়। তারপর কোন জমি বা বাড়ির ছাদে টাওয়ার বসানোর অনুমতি দিলেই পাওয়া যাবে লক্ষ লক্ষ টাকা সিকিউরিটি মানি ,এইরকম প্রলোভন দেওয়া হয়। এই ফাঁদে পা দেন বেশকিছু মানুষ। আর তারপরেই এই প্রতারক চক্রের পর্দা ফাঁস হয়। গোপন সূত্রে খবর পেয়ে শেক্সপিয়ার সরণির ভুয়ো কল সেন্টার থেকে ৯ জনকে গ্রেফতার করে লালবাজার গুন্ডা দমন শাখার আধিকারিকরা। আর তারপর গতকাল রাতে এই ঘটনায় জড়িত আরও এক মহিলাকে গ্রেফতার করে সিআইডি।

জানা যায়, ওই মহিলার নাম অভিনন্দা দাশগুপ্ত। টাওয়ার বসানোর নাম করে যে চক্র প্রতারণার কাজ চালাচ্ছিল এতদিন ধরে তাদের মধ্যে এই মহিলাও রয়েছেন বলে জানা যায় । তিনি কলকাতার গরফা থানা এলাকার বাসিন্দা। গতকাল রাতে তাকে গ্রেফতার করা হয়। আজ তাকে ১৪ দিনের পুলিশি হেফাজতে রাখার আবেদন করে আদালতে তোলা হয়েছিল। সেই আবেদন আদালত মঞ্জুর করেছে বলে জানা গিয়েছে।

জানা যায়, কেন্দা থানার অন্তর্গত কুদা গ্রামের বাসিন্দা চিত্তরঞ্জন মাহাতো নামে এক ব্যক্তিকে ফোন করে টাওয়ার বসানোর অনুমতি চাওয়া হয়। নিজেদের বহুজাতিক সংস্থার কর্মী হিসেবে পরিচয় দিয়েছিলেন তাঁরা। কিন্তু প্রায় ৪০ লক্ষ টাকা প্রতারণা করার পর ওই ব্যক্তি থানায় লিখিত অভিযোগ দায়ের করেন।জানা যায় টাওয়ার বসানোর জন্য প্রথমে ওই ব্যক্তির কাছ থেকে তাঁর বাড়ির দলিল এবং কাগজপত্র নেওয়া হয়। তারপর তাকে পাঁচটি ব্ল্যাঙ্ক চেকে সই করানো হয়। এছাড়াও বিভিন্ন সংস্থার পলিসি করায় প্রতারকরা।

যখন ওই ব্যক্তি বুঝতে পারেন যে তিনি জালিয়াতির শিকার হয়েছেন তখন ফেব্রুয়ারি মাসের ১৭ তারিখ একটি লিখিত অভিযোগ দায়ের করেন । এবার সেই ঘটনার তদন্তভার দেওয়া হয় সিআইডিকে। চলতি মাসের ১২ তারিখে সিআইডি আধিকারিকরা কলকাতার সল্টলেক থেকে কুড়ি জনকে গ্রেফতার করে। তাদেরকেও ১৪ দিনের পুলিশি হেফাজতে থাকার নির্দেশ দেওয়া হয়েছে আদালতের তরফ থেকে। আর গতকাল ফের গ্রেফতার করা হল অভিনন্দা দাশগুপ্ত নাম এই মহিলাকে।

খবরে থাকুন, ফলো করুন আমাদের সোশ্যাল মিডিয়ায়

সব খবর সবার আগে, আমরা খবরে প্রথম

Categories