Prothom Kolkata

Popular Bangla News Website

রাতে রাস্তা দখল করতে পারবেন না ফেরিওয়ালারা ! সুপ্রিম কোর্টের রায়ে চাঞ্চল্য

।। প্রথম কলকাতা ।।

ফেরিওয়ালা বা হকাররা মূলত দিনের বেলা ঘুরে বা রাস্তার ধারে বা প্লাটফর্মের উপর বসে জিনিস বিক্রি করেন। কিন্তু রাত্রেবেলা সেখানেই আবার তারা তাদের ব্যবসার জিনিস রেখে আসতে পারবেন না। যখন বাড়ি ফিরে আসবেন তখন সঙ্গে করে ব্যবসার জিনিস নিয়ে চলে আসতে হবে। রাত্রে রাস্তার উপর হকার বা ফেরিওয়ালাদের জিনিস কিংবা মালপত্র রাখার কোন অধিকার নেই, স্পষ্টভাবে জানিয়ে দিল সুপ্রিম কোর্ট।

এক ফেরিওয়ালা হাইকোর্টের দ্বারস্থ হয়েছিলেন রাত্রে রাস্তায় তার পণ্য রাখার দাবি নিয়ে। কিন্তু হাইকোর্ট এই আবেদন খারিজ করে দেয়। সেই জল গড়ায় সুপ্রিম কোর্ট পর্যন্ত। ওই ব্যক্তি হাইকোর্টের রায়কে চ্যালেঞ্জ জানিয়ে দ্বারস্থ হন সুপ্রিম কোর্টের। এই মামলার ক্ষেত্রে সুপ্রিম কোর্ট বলেছে যে একজন ফেরিওয়ালা যেখানে বিক্রি করেন সেই জায়গায় রাতে তার জিনিসপত্র রাখার অনুমতি দেওয়ার জন্য জোর দেওয়ার কোনো অধিকার নেই। বিচারপতি এমআর শাহ এবং বিচারপতি বিভি নাগারথনার একটি বেঞ্চ স্পষ্ট করেছে যে হকারদের শুধুমাত্র হকিং নীতি মেনেই বাজারে পণ্য বিক্রি করার অনুমতি দেওয়া যেতে পারে।

যে ব্যক্তি দিল্লি হাইকোর্টের প্রথমে আবেদন করেছিলেন তিনি সরোজিনী নগর মার্কেটে তার ব্যবসার জায়গা রাত্রেবেলা দখল করতে চেয়েছিলেন, ব্যবসার সুবিধার্থে। রাতে পণ্য ফেলার অনুমতি চেয়ে তিনি আবেদন করেন হাইকোর্টে। হাইকোর্টে আবেদন খারিজ করে দেয়, সেই একই রায় দিয়েছে সুপ্রিম কোর্টও।

হাইকোর্টের আদেশের বিরুদ্ধে সরোজিনী নগর মার্কেটের হকারের দায়ের করা আবেদনের শুনানি চলছিল সুপ্রিম কোর্টে। ফেরিওয়ালা হাইকোর্টের কাছে অনুরোধ করেছিলেন যে এনডিএমসিকে নির্দেশ দিতে হবে যে এটি দিনের বেলা যেখানে ব্যবসা করে সেখানে রাতে পণ্য ফেলার অনুমতি যেন দেওয়া হয়। হাইকোর্ট বলেছিল যে হকারদের আপিল হকিং ধারণার বিরুদ্ধে ছিল, যা হকারদের কোনও এলাকায় স্থায়ী দখলের অনুমতি দেয় না।

হাইকোর্ট বলেছিল যে ফেরি করার নিয়ম হল, ফেরি চলাকালীন সময়ে হকার তার পণ্য নিয়ে বরাদ্দকৃত এলাকায় আসবেন, ফেরি করে অবশেষে তার অবশিষ্ট পণ্য নিয়ে চলে যাবেন। একই সঙ্গে ভ্রাম্যমাণ ফেরিওয়ালাদেরও এই বিষয়ে তেমন কোনো সুবিধা নেই। দিনের পর দিন এই ভাবেই ফুটপাত থেকে শুরু করে রেলওয়ে স্টেশন গুলিতে পর্যন্ত ফেরিওয়ালাদের রমরমা। অনেকেই আছেন যারা আইন না মেনে জায়গা দখল করে বসেন।

খবরে থাকুন, ফলো করুন আমাদের সোশ্যাল মিডিয়ায়

সব খবর সবার আগে, আমরা খবরে প্রথম

Categories