Prothom Kolkata

Popular Bangla News Website

রোগীদের লম্বা লাইন অথচ বেপাত্তা চিকিৎসক, করুণ চিত্র তারকেশ্বর গ্রামীণ হাসপাতালে

।। প্রথম কলকাতা।।

গতকাল রাতে হুগলির তারকেশ্বর গ্রামীণ হাসপাতালে ছিল রোগীদের লম্বা লাইন, জরুরী বিভাগে তখন অপেক্ষা করছেন একজন অসুস্থ শিশু সহ বেশ কিছু রোগী। কিন্তু চিকিৎসক বেপাত্তা। রাত আটটা থেকে রাত দশটা পর্যন্ত কোন চিকিৎসক ছিল না হাসপাতালে। বারবার খোঁজ করেও চিকিৎসকের দেখা মেলেনি। দুর্ঘটনায় মৃতের ডাক্তারি পরীক্ষা করাতে এসেও দুঘণ্টা অপেক্ষা করতে হয় পুলিশকে।

গতকাল রাতে হুগলির তারকেশ্বর হাসপাতালে রাত্রিকালীন কর্তব্যরত চিকিৎসক ছিলেন শুভঙ্কর ঘোষ। কিন্তু রাত আটটা থেকে রাত দশটা পর্যন্ত তাঁকে হাসপাতালে পাওয়া যায়নি। রোগীর আত্মীয়রা ডাক্তারের খোঁজ করলে হাসপাতালের পক্ষ থেকে জানানো হয় যে, ডাক্তার এখন হাসপাতালে ভর্তি থাকা রোগীদের চিকিৎসা করছেন। কিন্তু আসলে সে সময় কোন চিকিৎসকই হাসপাতালে ছিলেন না, এমনটাই অভিযোগ করেছেন রোগীর পরিবারের সদস্যরা।

তাঁরা অভিযোগ করেছেন, চিকিৎসক শুভঙ্কর ঘোষ এসময় কোন বেসরকারি নার্সিংহোমে গিয়ে প্রাইভেট প্র্যাকটিস করছিলেন। হাসপাতাল থেকে বার বার ফোন করা হলে অগত্যা তিনি হাসপাতালে আসেন। এমনই অভিযোগ উঠেছে তারকেশ্বর গ্রামীণ হাসপাতালের চিকিৎসক শুভঙ্কর ঘোষের বিরুদ্ধে। তবে, সমস্ত অভিযোগ অস্বীকার করেছেন চিকিৎসক। তিনি জানিয়েছেন, তিনি হাসপাতালেই ছিলেন। রাত দশটার পর তাঁর মায়ের চিকিৎসা করাতে কিছুক্ষণের জন্য বাইরে গিয়েছিলেন।

যা হাসপাতালে সিসিটিভি দেখলেই স্পষ্ট হবে। প্রকৃতপক্ষে, গতকাল রাতে হাসপাতালে দেখা যায় রোগীদের লম্বা লাইন। ক্রমশ বাড়তে থাকে ভিড়। হাসপাতালের জরুরি বিভাগেও বাড়তে থাকে ভিড়। যেখানে একজন অসুস্থ শিশু সহ বেশ কয়েকজন রোগী চিকিৎসকের অপেক্ষায় ছিলেন। এমনকি দুর্ঘটনায় মৃতর ডাক্তারি পরীক্ষা করাতে এসেও প্রায় দুঘণ্টা অপেক্ষা করতে হয়েছিল তারকেশ্বর থানার পুলিশকে।

খবরে থাকুন, ফলো করুন আমাদের সোশ্যাল মিডিয়ায়

সব খবর সবার আগে, আমরা খবরে প্রথম

Categories