Prothom Kolkata

Popular Bangla News Website

ফের বাংলায় ধর্ষণের চেষ্টা, অপমান ঢাকতে গায়ে আগুন নাবালিকার, মুখ্যমন্ত্রীকে তোপ অগ্নিমিত্রার

।। প্রথম কলকাতা ।।

ধর্ষণের চেষ্টার পর অপমান ঢাকতে আত্বহত্যা রাস্তা বেছে নিয়েছিল জলপাইগুড়ি নাবালিকা। গায়ে আগুন লাগিয়ে আত্মঘাতী হওয়ার চেষ্টা করলেও প্রাণে বেঁচে গিয়েছে তিনি। আশঙ্কাজনক অবস্থায় নাবালিকা ভর্তি জলপাইগুড়ি মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে। ঘটনায় অভিযুক্ত সন্দেহে একজনকে গ্রেপ্তার করা হলেও দ্বিতীয়জন এখনও অধরা। তার খোঁজ চালাচ্ছে পুলিশ।

এবার এই ঘটনাকে সামনে এনে সোশ্যাল মিডিয়ায় একটি পোস্ট করেছেন অগ্নিমিত্রা পল। তিনি লিখেছেন,’ জলপাইগুড়ি ময়নাগুড়ি ধর্মপুর এলাকার বাসিন্দা ওই নাবালিকা বাড়িতে একাই ছিল। দাড়ি থাকা থাকার সুযোগ নিয়ে গত 28 শে ফেব্রুয়ারি স্থানীয় এক যুবক তাকে ধর্ষণের চেষ্টা করে। তার জামা কাপড় ছিড়ে দেয়। এরপরই নাবালিকা চিৎকার করে উঠলে অভিযুক্ত যুবক পালিয়ে যায়। এরপরই ময়নাগুড়ি থানায় লিখিত অভিযোগ দায়ের করে নির্যাতিতা নাবালিকার পরিবার।

এরপর বুধবার দুপুরে দুই যুবক তাদের বাড়িতে মুখ ঢেকে আসে। সেই সময় নির্যাতিতা নাবালিকা বাড়িতে একাই ছিলেন। তারাসুই নাবালিকাকে অভিযুক্ত ওই যুবকের বিরুদ্ধে দায়ের করা অভিযোগ প্রত্যাহার করে নিতে বলে। পাশাপাশি যদি অভিযোগ তুলে না নেওয়া হয় তবে তাদের বাড়ির সকলকে খুন করা হবে বলেও হুমকি দেয়। গতকাল সে কথা চেপে গেল আজ সকালে নাবালিকা বাড়ির সকলকে হুমকির কথা খুলে বলে। এরপরই আজ দুপুরে বাড়িতে গায়ে আগুন দিয়ে আত্মহত্যার চেষ্টা করে নাবালিকা।

গুরুতর জখম অবস্থায় তাকে প্রথমে জলপাইগুড়ি সুপার স্পেশালিটি হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়। কিন্তু তার শারীরিক অবস্থার অবনতি হওয়ায় সেখান থেকে তাকে উত্তরবঙ্গ মেডিকেল কলেজে স্থানান্তরিত করা হয়েছে। অভিযুক্ত যুবকের দাদা এলাকার তৃণমূল নেতা হিসেবে পরিচিত। নারী নির্যাতন চলছে‌। মুখ্যমন্ত্রী ব্যস্ত নির্যাতিতাদের চরিত্র বিচার করতে। বাংলা এই।মুখ্যমন্ত্রী চায় না।’ অগ্নিমিত্রা পোস্টটিত একজন লিখেছেন বাংলার মানুষের বোঝার ক্ষমতা হয়নি ৫০০ টাকার জন্য। আবার একজন লিখেছেন বাংলার আপামর বাঙালির এখন একটাই চিন্তা কি করে বাংলার শোষিত নিজের মেয়ে এবং স্বঘোষিত গর্বের থেকে মুক্তি পাওয়া যায়।

খবরে থাকুন, ফলো করুন আমাদের সোশ্যাল মিডিয়ায়

সব খবর সবার আগে, আমরা খবরে প্রথম

Categories