Prothom Kolkata

Popular Bangla News Website

দামে আগুন, বাজারে আকাল ! নববর্ষে দেদার বিকোচ্ছে প্লাস্টিকের লেবু

।। প্রথম কলকাতা ।।

গরমকাল , রমজান মাস আর চৈত্র নবরাত্রির মিলমিশে পাতিলেবুর দামে তেতে উঠেছিল বাজার। সেই দাম এখনো পর্যন্ত অব্যাহত রয়েছে, তার উপর নববর্ষ। নববর্ষের দিন বেশিরভাগ ব্যবসায়ীক দোকানে পুজো করে লেবু লঙ্কার মালা ঝোলানো হয়। কিন্তু চলতি বছরে সে গুড়ে বালি, কারণ একটি পাতিলেবুর দর প্রায় ১০ থেকে ১৫ টাকা পিস।

সেখানে মালার ভাগ্যে শুধুমাত্র লঙ্কাই জুটবে। তবে বাজার ছেয়ে গিয়েছে ২০ টাকার লঙ্কা লেবুর মালায়। ২০ টাকার মালায় পেয়ে যাবেন ৩ টি লেবু আর বেশ কয়েকটা লঙ্কা। তবে এই লেবু কাটলে কিংবা চিপলে কোন রস বের হবে না কারণ এটি নকল। বাঙালি পুজোর জন্য আসল পাতিলেবু ফেলে এই নকল পাতিলেবুর পিছনে দৌড়েছেন।

শুধুমাত্র পশ্চিমবঙ্গ নয় সারা ভারতবর্ষের জুড়েই লেবুর দাম অত্যাধিক বেশি , কোথাও বা ৩০০ আবার কোথাও বা ২৫০ টাকা কেজি দরে বিক্রি হচ্ছে পাতিলেবু। পাতিলেবুকে তাই আর পাতি বলা যাবে না। এই নিয়ে সোশ্যাল মিডিয়া জুড়ে তৈরি হচ্ছে নানান মিম। এই দাম বৃদ্ধির পেছনে ওয়েস্টবেঙ্গল ভেন্ডর অ্যাসোসিয়েশনের সভাপতি কমল দে দায়ী করছেন চেন্নাইয়ের বন্যাকে। শেষ যে বন্যা হয়েছিল তাতে রীতিমতো চেন্নাইয়ের লেবু বাগান তছনছ হয়ে গিয়েছে।

কিন্তু প্রশ্ন হলো শোলা কিংবা প্লাস্টিকের লেবু কি আসল পাতিলেবুর জায়গা নিতে পারবে ? প্রচলিত বিশ্বাস অনুযায়ী লেবু লঙ্কার মালা দেওয়া হয় কুনজরে এড়াতে। সে ক্ষেত্রে মালায় তিনটে লেবুর বদলে একটি পাতি লেবু দিলে মন্দ হবে না। অনেকে মনে করছেন ২০ টাকার মালা কেনার থেকে ১০ টাকার একটি লেবু কেনা ভালো। তবে সমস্যা হল একটি লেবুতে মালা তৈরি হয় না। নববর্ষে ব্যবসায়ীদের বেশ ঝামেলায় ফেলেছে এই পাতিলেবু।

খবরে থাকুন, ফলো করুন আমাদের সোশ্যাল মিডিয়ায়

সব খবর সবার আগে, আমরা খবরে প্রথম

Categories