Prothom Kolkata

Popular Bangla News Website

বিয়েতে নিয়ম ভাঙলেন রালিয়া! সাত পাঁকে বাঁধা পড়লেন না বর-বধূ, কিন্তু কেন জানেন?

1 min read

।। প্রথম কলকাতা।।

কাল অর্থাৎ চৈত্রের শেষ বেলায় অগ্নি সাক্ষী রেখে সাঁতপাকে বাঁধা পড়েছেন রণবীর-আলিয়া। আরে না ধুর। ভুল খবর। বৃহস্পতিবার বিকালে রণবীরের বান্দ্রার বাড়ি ‘বাস্তু’তে বসেছিল বিয়ের অনুষ্ঠান। সব্যসাচী এবং মনীশ মালহোত্রার ডিজাইন করা পেইল গোলাপির পোশাক আর মুক্তো সাদা অলঙ্কারে সেজে উঠজেছিলো বর-বধূ। মঙ্গলশঙ্খের ধ্বনি আর প্রিয়জনেদের আর্শীবাদ আর শুভেচ্ছার বন্যায় ভেসে সাত পাক থুড়ি চার পাক ঘুরলেন রণবীর-আলিয়া। শুনে অবাক হচ্ছেন? হওয়ারই কথা। আসলে হিন্দু রীতি অনুযায়ী সাঁতপাকে বাঁধা অগ্নি সাক্ষী রেখেই সম্পন্ন হয় বিয়ে। সেখানে দাঁড়িয়েই নিয়ম ভাঙলেন নব-দম্পতি। সাতের জায়গায় ঘুরলেন চার পাক। এদিন সংবাদমাধ্যমকে দেওয়া সাক্ষাৎকারে এমনটাই জানিয়েছেন কনের দাদা রাহুল ভাট। কিন্তু কেন?

রাহুল জানান, “এদিন চারজন পণ্ডিতের উপস্থিতিতে হয়েছে বিয়ে, মণ্ডপে ছিল প্রয়াত ঋষি কাপুরের একটি ছবি। একই সাথে রাহুল বলেন, পণ্ডিতজি বিয়ের সময় প্রত্যেক পাকের গুরুত্ব বুঝিয়ে দিচ্ছিলেন দুজনকে। যার মধ্যে একটা হয় ধর্মের জন্য, অন্যটা সন্তানের জন্য একদম চিত্তাকর্যক ব্যাপার। আমরা আগে কখনও এটা দেখিনি।”

প্রসঙ্গত একই সাথে রাহুল জানায়, “আমি এমন একটা পরিবারের সন্তান, সেখানে সব ধর্মের মানুষজন রয়েছে। আমার কাছে এটা অন্যরমক। সাতটা নয়, চারটে পাক ঘুরেছে ওঁরা’। যদিও কী কারণে চার পাক ঘোরবার সিদ্ধান্ত, তা স্পষ্ট করে বলতে পারেনি রাহুল।

উল্লেখ্য একেবারে পাঞ্জাবী রীতি মেনে বাবা-মায়ের বিয়ের পুংঙ্খানু পুঙ্খ নিয়ম মেনেই সম্পন্ন হয়েছে রালিয়ার বিয়ের অনুষ্ঠান। বৃহস্পতিবার রাতে সেই ছবিই প্রকাশ্যে এনেছেন আলিয়া। নিজের অফিসিয়াল ইনস্টাগ্রাম হ্যান্ডেলে শেয়ার করেছেন বিয়ের একগুচ্ছ ছবি। ক্যাপশনে লিখেছেন, “আজ, আমাদের পরিবার এবং বন্ধুদের সাথে নিজের পছন্দের জায়গাতেই নতুন জীবন শুরু করলাম। যে বারান্দায় আমরা গত ৫ বছর কাটিয়েছি, আমরা বিয়ে করলাম সেখানেই। আর এই জায়গা ঘিরেই রয়েছে অনেক স্মৃতি। আগামী দিনে একসাথে আরও স্মৃতি তৈরি করার জন্য আমরা তৈরি। স্মৃতিগুলো হবে, ভালোবাসা, হাসি, আরামদায়ক নিস্তব্ধতা, মুভি ডেট, মজাদার ঝগড়া, ওয়াইনের গ্লাসের চুমুক আর চাইনিজ খাবারে ভরপর”।

একই সাথে আলিয়া লেখেন, “আমাদের জীবনের এই অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ সময়ে সমস্ত ভালবাসা এবং শুভেচ্ছার জন্য আপনাদের অনেক ধন্যবাদ। এগুলো এই মুহূর্তটিকে আরও বিশেষ করে তুলেছে।”

খবরে থাকুন, ফলো করুন আমাদের সোশ্যাল মিডিয়ায়

সব খবর সবার আগে, আমরা খবরে প্রথম

Categories