Prothom Kolkata

Popular Bangla News Website

পুরনো ব্যবস্থার বদল চান কর্তারা, চিকিৎসকদের কড়া বার্তা স্বাস্থ্যভবনের

।। প্রথম কলকাতা ।।

সরকারি হাসপাতালে ঘোরাফেরা করলে স্বাস্থ্য ব্যবস্থার কঙ্কালসার চেহারাটাই অধিকাংশ সময় আমাদের চোখে পড়ে। যেখানে দেখা যায় পর্যাপ্ত সংখ্যায় চিকিৎসক থাকা সত্ত্বেও, সরঞ্জাম থাকা সত্ত্বেও অন্যত্র রেফার করে দেওয়া হচ্ছে। কোনোরকম ঝুঁকি নিতে রাজি নন চিকিৎসকেরা। এবার এই ব্যবস্থার সম্পূর্ণ বদল চাইলো স্বাস্থ্য ভবন। স্বাস্থ্য ভবনের পক্ষ থেকে পরিষ্কার জানিয়ে দেওয়া হলো, হাসপাতালে এলে কাজ করতেই হবে, রোগীকে পরিষেবা দিতেই হবে, না হলে কঠোর ব্যবস্থা নেওয়া হবে। কাজে ফাঁকি দেওয়া চিকিৎসকদের বদলি করে দেওয়া হতে পারে, এমনকি সাসপেন্ড পর্যন্ত করা হতে পারে।

প্রসঙ্গত, বেশকিছু সরকারি হাসপাতালে পর্যাপ্ত সংখ্যায় চিকিৎসক, চিকিৎসার সরঞ্জাম থাকা সত্ত্বেও চিকিৎসা না পাওয়ার অভিযোগ উঠেছে। বেশ কিছু ক্ষেত্রে দেখা গেছে মহকুমা হাসপাতালে চিকিৎসা না পেয়ে ভর্তি হতে হচ্ছে জেলা হাসপাতাল, কিংবা মেডিকেল কলেজে। কিছুদিন আগে কৃষ্ণনগর হাসপাতালে ৬ জন অস্থি শল্য চিকিৎসক থাকার পরেও চিকিৎসা পাননি এক বৃদ্ধ। আবার একাধিক হাসপাতালে দেখা গেছে উপযুক্ত পরিমাণে স্ত্রীরোগ বিশেষজ্ঞ আছেন, প্রসূতি আছেন এর পরেও মাসে ১৫ টির বেশী প্রসব হচ্ছে না। কিন্তু সর্বত্র যে এমন চলছে, তা নয়। কিছু কিছু ক্ষেত্রে দেখা যাচ্ছে ঝুঁকি নিয়েও দুরহ কাজ করছেন চিকিৎসকরা।

কোথাও দেখা যাচ্ছে, প্রসূতির ফ্যালোপিয়ান টিউব ফেটে যাওয়া, ব্যাপক রক্তক্ষরণ পর্যন্ত দক্ষতার সঙ্গে সামাল দিয়েছেন চিকিৎসকরা। কোথাও আবার ঝুঁকি নিয়েও অস্থি প্রতিস্থাপন হচ্ছে, ব্লক হাসপাতাল কোমরের ভাঙ্গা হাড় জোড়া দিচ্ছে। মেডিকেল কলেজের মত বা বেসরকারি সুপার স্পেশালিটি হাসপাতালের মতো পর্যাপ্ত সংখ্যায় চিকিৎসার সরঞ্জাম না থাকা সত্ত্বেও বেশ কিছু ছোট ছোট হাসপাতালেও সফলভাবে চিকিৎসা করছেন চিকিৎসকেরা।

এবার থেকে যেসব চিকিৎসক ভালো কাজ করছেন, তাঁদের যেমন উৎসাহিত করা হবে, কাজের প্রশংসা করা হবে, তেমনি কাজ না করা চিকিৎসকদের তিরস্কার করা হবে, প্রয়োজনে বদলি করে দেওয়া হবে, এমনকি সাসপেন্ড পর্যন্ত করা হতে পারে। এমনই কঠোর সিদ্ধান্ত নিয়েছে স্বাস্থ্য ভবন। এ প্রসঙ্গে স্বাস্থ্য ভবনের পক্ষ থেকে স্পষ্ট জানানো হলো, চিকিৎসকদের একাংশ যেমন দারুণ ভাবে কাজ করছেন, তেমনি বেশ কিছু চিকিৎসকদের মধ্যে দেখা যাচ্ছে কাজ না করার মানসিকতা। এই ব্যবস্থা বদলাতে হবে। হাসপাতালে এলে কাজ করতেই হবে, রোগীকে পরিষেবা দিতেই হবে। না হলে কঠোর ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

খবরে থাকুন, ফলো করুন আমাদের সোশ্যাল মিডিয়ায়

সব খবর সবার আগে, আমরা খবরে প্রথম

Categories