Prothom Kolkata

Popular Bangla News Website

Elon Musk : ৪৩ বিলিয়ন ডলার নগদ দিতে প্রস্তুত, ট্যুইটার কিনতে চান ধনকুবের ইলন মাস্ক

।। প্রথম কলকাতা ।।

কিছুদিন আগেই ট্যুইটারের বিপুল শেয়ার কেনেন ইলন মাস্ক। ফলস্বরূপ মাইক্রো ব্লগিং সাইটের সবচেয়ে বড় শেয়ার হোল্ডারের খেতাব পান তিনি। এমনকি ট্যুইটারের বোর্ড অফ ডিরেক্টরের পদও তাঁকে দেওয়া হয়। যদিও সেই পদ গ্রহণ করেননি ইলন। কিন্তু তা সত্ত্বেও বিভিন্ন বিষয়ে ট্যুইটারের সিইও ভারতীয় বংশোদ্ভূত পরাগ আগারওয়ালকে পরামর্শ দিয়ে চলেছেন তিনি।

তবে এবার যে পরামর্শ দিলেন তাতে মোটেও খুশি হবেন না পরাগ আগারওয়াল সহ গোটা ট্যুইটার। তিনি জানান, ট্যুইটারের মালিক হওয়ার জন্য ৪৩ বিলিয়ন মার্কিন ডলার খরচ করতে প্রস্তুত তিনি। এমনকি এই টাকা কোনও চেক বা অন্য মাধ্যমে নয়, একেবারে নগদে দিতে রাজি ইলন মাস্ক।

তাঁর মতে, ট্যুইটারকে আরও প্রাইভেট কোম্পানিতে স্থানান্তরিত হতে হবে। কারও বর্তমান যে অবস্থা রয়েছে মাইক্রো ব্লগিং সাইটের তাতে বাকস্বাধীনতা উন্নত করা বা তা পরিবেশন করতে পারবে না ট্যুইটার। আর সেই জন্যই ট্যুইটারের ১০০ শতাংশ স্টেক নিজের দখলে নিতে চান ইলন মাস্ক। এর জন্য ট্যুইটারের প্রতি শেয়ারের জন্য ৫৪.২০ মার্কিন ডলার তাও আবার নগদে খরচ করতে প্রস্তুত তিনি।

তাঁর বক্তব্য, ট্যুইটারে আমার বিনিয়োগের পর ৩৮ শতাংশ বৃদ্ধি পেয়েছে কোম্পানির ভ্যালু। এই অফার আমার ফাইনাল অফার। যদি কোম্পানি এটি গ্রহণ না করে তাহলে শেয়ালহোল্ডার হিসাবে আমার অবস্থান পুনর্বিবেচনা করতে হবে। টেসলা, স্পেসএক্স এর কর্ণধার ইলন মাস্কের এমন দাবির পর কার্যত জাঁতাকলে পড়ে গেছে বিশ্বের শীর্ষ স্থানীয় সামাজিক মাধ্যম ট্যুইটার।

গতকাল ট্যুইটারের বর্তমান সিইও পরাগ আগারওয়াল কোম্পানির বিনিয়োগকারীদের আসন্ন বিভ্রান্তি সম্পর্কে ইতিমধ্যে সতর্ক করেছেন। এই প্রসঙ্গে ট্যুইটার এদিন বিবৃতি জারি করে জানায়, কোম্পানির বোর্ড অফ ডিরেক্টরের সদস্যরা যথেষ্ট সতর্কতার সাথে প্রস্তাবটি পর্যালোচনা করবে এবং সমস্ত টুইটারের স্টেকহোল্ডারদের সর্বোত্তম স্বার্থে পদক্ষেপ নেওয়া হবে।

খবরে থাকুন, ফলো করুন আমাদের সোশ্যাল মিডিয়ায়

সব খবর সবার আগে, আমরা খবরে প্রথম

Categories