Prothom Kolkata

Popular Bangla News Website

বেড়েই চলেছে জ্বালানির দাম, পরিবহন ব্যবস্থার ভবিষ্যত নিয়ে আশঙ্কায় বাস মালিকরা

1 min read

।। প্রথম কলকাতা।।

রাজ্যে বিগত কিছুদিন ধরে অনবরত পেট্রোল এবং ডিজেলের দাম বেড়ে চলেছে। প্রত্যেকদিনই কিছু কিছু করে পেট্রোল-ডিজেলের দাম বাড়ার ফলে বর্তমানে তা একেবারে অগ্নিমূল্য। যার ফলে প্রথম থেকেই সমস্যার সম্মুখীন হচ্ছেন বাস মালিকরা । কারণ ডিজেলের দাম বৃদ্ধি পেয়েছে একই রকমভাবে । আর এই দাম বৃদ্ধির ফলে বহু বাস বন্ধ করে দেওয়া হয়েছে। বসে গিয়েছেন চালকরা। কারণ একটি বাস না চালালেও সে বাসের পেছনে প্রতিদিন প্রায় এক থেকে দেড় হাজার টাকা খরচ থাকে।

আর বর্তমানে যে হারে ডিজেলের মূল্যবৃদ্ধি হয়েছে তাতে লাভের কোন অংশই থাকছে না মালিকদের কাছে। যার ফলে মালিক শ্রেণীর সঙ্গে বাস চালকদের চলছে মন কষাকষি। এতে একেবারে ক্ষতির সম্মুখীন হয়েছে পরিবহন ব্যবসা। জয়েন্ট কাউন্সিল অফ বাস সিন্ডিকেট সূত্রে জানা যায় ২৩ টি জেলা বর্তমানে প্রায় ৪২ হাজার বাস রয়েছে। কিন্তু বিগত কিছুদিন এর মধ্যে যেভাবে পেট্রোল-ডিজেলের দাম বৃদ্ধি হয়েছে তাতে প্রায় ৩০% বাসই বসে গিয়েছে। চালকরা তাদের কাজ হারিয়েছেন।

যার ফলে বাস মালিকরা বাসের ভাড়া বাড়ানোর আবেদন জানিয়েছিলেন। কিন্তু সেই আবেদন খারিজ করে দেওয়া হয়েছে সরকারের পক্ষ থেকে। তাদের দাবি ছিল নয় পেট্রোল-ডিজেলের দাম কমানো হোক নইলে বাসের ভাড়া বাড়ানো হোক আর না হলে এবার বাস মালিকদের ব্যবসা বন্ধ করে দিতে হবে। বাসচালকরা জানাচ্ছেন, ইতিমধ্যেই কর্মহারা হয়েছেন বেশ কিছু বাসচালক। এইভাবে যদি ডিজেলের দাম বাড়তে থাকে তাহলে পরবর্তীতে হয়তো তাঁরাও নিজেদের কাজ হারাবেন ।

অন্য কোন কাজের সন্ধানে বেরোতে হবে তাদের । প্রায় পনেরো ষোল ঘন্টা কাজ করার পরেও যেহেতু বাস মালিকদের কাছে লাভের কোন বড় অংশ থাকছে না, তাই বাসচালকদেরকেও সঠিক বেতন দেওয়া সম্ভব হচ্ছে না । এতে সমস্যার সম্মুখীন হচ্ছেন বাসচালকসহ বাসে কর্মরত কর্মচারীরা। তার উপরে বাস চালকদের দাবি ,রাস্তায় বেরোলেই পুলিশ তাদের কাছ থেকে বেআইনিভাবে মিথ্যা কেস দিয়ে জরিমানা নিচ্ছে ৫০০ টাকা।

যদি এর প্রতিবাদ করা হচ্ছে, তাহলে বাসের লাইসেন্স আটকে রেখে দেওয়া হচ্ছে। যার ফলে দিনের শেষে লাভের পরিমাণ একেবারেই নিচে নেমে আসছে। বাস চালকদের একাংশ দাবি করেছেন ,অতীতে অর্থাৎ বাম আমলে যিনি পরিবহন মন্ত্রী ছিলেন ,সুভাষ চক্রবর্তী তিনি পরিবহন ব্যবস্থার হাল অনেকটাই শুধরে ছিলেন। কিন্তু বর্তমানে পরিবহন মন্ত্রী ফিরহাদ হাকিম এই পরিবহন ব্যবস্থার পরিকাঠামো সামলাতে একেবারেই ব্যর্থ।

যার ফলে হতাশার মধ্যে দিন কাটছে বাস মালিকদের বাসের ভাড়া যদি বাড়াতে না দেওয়া হয় তাহলে বাস মালিকদের এবার একের পর এক বাস বন্ধ করে দিতে হবে। যার ফলে কর্মহীন হয়ে পড়বেন বহু মানুষ এছাড়াও পরিবহন ব্যবস্থার চরম দুর্দশা নেমে আসবে গোটা বাংলায়। কাজেই জ্বালানির এই ক্রমবর্ধমান মূল্যবৃদ্ধির দিকে অবশ্যই সরকারের দৃষ্টিপাত করা উচিত। নইলে সুদূর ভবিষ্যতে জ্বালানির জ্বালায় জ্বলতে হবে সাধারণ মানুষকেও।

খবরে থাকুন, ফলো করুন আমাদের সোশ্যাল মিডিয়ায়

সব খবর সবার আগে, আমরা খবরে প্রথম

Categories