Prothom Kolkata

Popular Bangla News Website

‘ট্রেন হোক কিংবা প্লেন নিয়ম সবার জন্যই এক মামা!’ কটাক্ষের সুরে কাকে বিঁধলেন শ্রীলেখা?

1 min read

।। প্রথম কলকাতা ।।

শ্রীলেখা মিত্র। টলিউডের ঠোঁটকাটা নায়িকাদের মধ্যে অন্যতম একজন তিনি। ঠিক কে ঠিক ভুলকে ভুল বলতে কখনোই পিছপা হইননি তিনি। এছাড়াও যেকোনো বিষয় নিয়ে নির্বিঘ্নে জনসমক্ষ্যে নিজের মন্তব্য তুলে ধরতে একটুও ভয় পান না তিনি। এবারও একই ভাবে কটাক্ষের সুরে বিধলেন টলিউডের আরেক অভিনেত্রীকে। কাকে? কেনই বা এমন মন্তব্য শ্রীলেখার জানেন?

আসলে আজকে বেশ কিছুক্ষন আগে সোশ্যাল মিডিয়ায় ভাইরাল হয়েছে টলিউড অভিনেত্রী ঋতুপর্ণা সেনগুপ্তর এক অভিযোগ। যেখানে এক বিমান কর্তৃপক্ষকে দায়ী করছেন তিনি। জানা যায় আজকে ভোরের বিমানে আমেদাবাদ যাওয়ার কথা ছিল নায়িকার। সেখানে দিন রাত শুটিং করার জন্যই তাঁর এই যাত্রা। তাই ভোরের বিমানের বোর্ডিংয়ের সময় ছিল ৪.৫৫। কিন্তু তিনি বিমানবন্দরে এসে পৌছায় ৫.১২ মিনিটে। সঙ্গে সঙ্গে তাঁকে জানানো হয় বোর্ডিং গেট অনেক্ষন আগেই বন্ধ হয়ে গিয়েছে এবং তাঁকে দেখতে না পেয়ে নাম ঘোষণাও করেছেন কর্তৃপক্ষ। সাড়া না পেলে ফোনেও যোগাযোগ করা হয়। কিন্তু তাতেও কোন সাড়া মেলেনি অভিনেত্রীর তরফ থেকে। অন্যদিকে অভিনেত্রীর দাবি তাঁর ফোন নাকি কোন ফোনই আসেনি। এদিকে সঠিক সময়ে শুটিং-এ না পৌঁছালে প্রযোজকের সমস্যা হবে। বন্ধ হবে শুটিং। আর এসব ভেবেই বিমানে ওঠতে দেওয়ার জন্য অনুরোধ, আকুতি মিনুতি করেন অভিনেত্রী। কিন্তু টানা ৪০ মিনিট ধরে বলার পরেও প্লেনে উঠতে দেওয়া হয়নি তাঁকে। আর তাতেই কান্নায় ভেঙে পড়েন ঋতুপর্ণা। যা সোশ্যাল মিডিয়ায় ভাইরাল।

প্রসঙ্গত এদিন অভিনেত্রী জানান, “মাত্র ৫০ পা দূরে দাঁড়িয়ে বিমান। আমি দেখতে পাচ্ছি। কিন্তু যেতে পারছিনা। অথচ আমার কাছে বোর্ডিং পাস থেকে শুরু করে সিট নম্বর সব মজুত। কিছুদিন আগেই আমায় সংস্থার পক্ষ থেকে সম্মানসূচক পাসপোর্টও দেওয়া হয়েছে। নয় নয় করে বেশ কয়েক বার ওই সংস্থার বিমানে চড়ে যাতায়াতও করেছি। কোন দিন এমন পরিস্থিতির সম্মুখীন হতে হয়নি।”

এদিন অভিনেত্রীর এমন ঘটনা সোশ্যাল মিডিয়ায় ভাইরাল হতেই তাঁকে কেন্দ্র করে শ্রীলেখা লেখেন, “ট্রেন হোক বা প্লেন নিয়ম তো সবার জন্য এক মামা।” অভিনেত্রীর এমন মন্তব্যের কারণ বুঝতে অসুবিধা হয়নি নেটবাসীদের। এছাড়াও শ্রীলেখার এমন পোস্টে পড়েছে হাসির রোল।

খবরে থাকুন, ফলো করুন আমাদের সোশ্যাল মিডিয়ায়

সব খবর সবার আগে, আমরা খবরে প্রথম

Categories