Prothom Kolkata

Popular Bangla News Website

‘রাজ্যজুড়ে খুন ,গনহত্যার পরে ভাবমূর্তি উদ্ধারের নেমেছেন মমতা’,তোপ অগ্নিমিত্রার

।। প্রথম কলকাতা ।।

বৃহস্পতিবার রামপুরহাট এর বগতুইয়ে দাঁড়িয়ে রাজ্যজুড়ে বেআইনি অস্ত্র এবং বোমা উদ্ধারের নির্দেশ দিয়েছিলেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। তারই নির্দেশে পরে বিভিন্ন জেলায় তৎপরতা শুরু হয়েছে হয়েছে‌। রামপুরহাট কাণ্ডের পরেই অস্ত্র উদ্ধারে কড়া পদক্ষেপ করতে রাজ্য পুলিশের ডিজি মনোজ মালব‍্যকে নির্দেশ দিয়েছিলেন মুখ্যমন্ত্রী। এরপরে প্রত্যেক জেলা পুলিশের কাছে এই সংক্রান্ত নির্দেশিকা পাঠানো হয় রাজ্য পুলিশের তরফে। ইতিমধ্যে বিভিন্ন জেলা থেকে বেআইনি অস্ত্র,বোম উদ্ধার হচ্ছে। এই বিষয়ে আজ অগ্নিমিত্রা পল একটি পোস্ট করেছেন‌।

তিনি লিখেছেন,’ এই অস্ত্র দিয়ে পুরসভার সময় ভোট লুট হয়েছিল। মাননীয়া সব জানেন। রাজ্যজুড়ে খুন এবং গনহত্যার পরে ভাবমূর্তি উদ্ধারের নেমেছেন মমতা। এই অস্ত্র হিমশৈলের চূড়া মাত্র। হিংসার বিরুদ্ধে প্রতিবাদ করুন। কোন কোন জায়গা থেকে উদ্ধার বেআইনি অস্ত্র। বীরভূম, মাড়গ্রাম থানার ছোট ডাঙাল গ্রাম থেকে উদ্ধার ২০০ টি তাজা বোমা। পশ্চিম বর্ধমান, আসানসোলের সালানপুর থানা এলাকা থেকে উদ্ধার ১২টি অসম্পূর্ণ অস্ত্র পিস্তল তৈরি সরঞ্জাম লোহা কাটার যন্ত্র এবং লেদ মেশিন। পশ্চিম মেদিনীপুর, কেশপুর থানার ছরুলুলুর ডাঙ্গা এলাকা থেকে উদ্ধার ১০০ টি বোমা।

হাওড়া দাসনগর এবং শিবপুর থানা এলাকা থেকে উদ্ধার চারটি আগ্নেয়াস্ত্র এবং গুলি। মালদহ, চাচল থানা এলাকা থেকে উদ্ধার দুটি পাইপগান ,দুটি কার্তুজ। মুর্শিদাবাদ,নওদা থানা এলাকা থেকে উদ্ধার একটি নাইন এমএম পিস্তল,একটি ৭৬৫ পিস্তল দুটি ম্যাগাজিন ও চার রাউন্ড গুলি। নদীয়া শান্তিপুর থানা এলাকা থেকে উদ্ধার দেশি রিভলবার কার্তুজ ধারালো অস্ত্র।’ মুখ্যমন্ত্রী আগ্নেয় অস্ত্র উদ্ধারের নির্দেশ দিতে জেলায় জেলায় তৎপরতা বেড়েছে পুলিশের। বিভিন্ন জেলা থেকে তল্লাশি চালিয়ে পুলিশ আগ্নেয়াস্ত্র ও গুলি উদ্ধার করছে। জেলায় জেলায় দুষ্কৃতীদের গ্রেপ্তার করছে। তবে এই বিষয়গুলি মুখ্যমন্ত্রী আগে থেকেই জানতেন বলে দাবি করছে বিজেপি।

খবরে থাকুন, ফলো করুন আমাদের সোশ্যাল মিডিয়ায়

সব খবর সবার আগে, আমরা খবরে প্রথম

Categories