Prothom Kolkata

Popular Bangla News Website

বনগাঁ লোকালের লাইন ভুল, বড়োসড়ো বিপদ থেকে রক্ষা যাত্রীদের

1 min read

।। প্রথম কলকাতা।।

চালকের গাফিলতি নাকি রেললাইনের পয়েন্টের গন্ডগোল? কারণ যাই হোক না কেন রবিবার এক বড়সড় দুর্ঘটনার হাত থেকে রক্ষা পেল ট্রেন যাত্রীরা। যে ট্রেনটি ঢোকার কথা ছিল মধ্যমগ্রাম এর এক নম্বর প্ল্যাটফর্মে সেটি এসে ঢুকলো দু নম্বর প্ল্যাটফর্মে। যার জেরে রীতিমতো উত্তেজনা ছড়ায় মধ্যমগ্রাম স্টেশন চত্বরে । ক্ষোভে ফেটে পড়েন যাত্রীরা । যার ফলে প্রায় দুই ঘণ্টার বেশি সময় ধরে ট্রেন চলাচল ব্যাহত থাকলো বনগাঁ-শিয়ালদহ শাখার ডাউন লাইনে। জানা যায়, অন্যান্য দিনের মতোই শিয়ালদাগামী ট্রেনটি বনগাঁ থেকে ছাড়ে বেলা সাড়ে ১১ টা নাগাদ।

সেটি মধ্যমগ্রাম স্টেশনে এসে পৌঁছায় বেলা একটা নাগাদ। কিন্তু আজ মধ্যমগ্রাম স্টেশনে ঢোকার আগেই আচমকা ট্রেনটি দাঁড়িয়ে যায়। প্রথমে সে বিষয়ে বিশেষ ভ্রুক্ষেপ ছিলনা যাত্রীদের কিন্তু দীর্ঘক্ষণ ট্রেনটি সেইভাবেই দাঁড়িয়ে থাকার ফলে অধৈর্য হয়ে পড়েন তারা। তারপরে খোঁজখবর নিতেই তারা জানতে পারেন যে এই ট্রেনটি এক নম্বর প্লাটফর্মে ঢোকার কথা ছিল কিন্তু বর্তমানে তা দাঁড়িয়ে রয়েছে দুই নম্বর প্লাটফর্মে। যখন চালক বুঝতে পারেন যে ট্রেনটি ভুল প্ল্যাটফর্মে ঢুকে পড়েছে তখন মাঝপথে থামিয়ে দেওয়া হয় ট্রেনটিকে।

যাত্রী সূত্রে জানা যায় ,ওই ট্রেনটির পেছনেই ছিল শিয়ালদাগামী ডাউন হাবরা লোকাল। অল্পের জন্য তাঁরা আজ বড়োসড়ো ট্রেন দুর্ঘটনার হাত থেকে রক্ষা পেয়ে গিয়েছেন। যার ফলে ট্রেন থেকে বেরিয়ে এসে রেলের গাফিলতির অভিযোগ তুলে রীতিমতো বিক্ষোভ দেখান ডাউন বনগাঁ লোকালের যাত্রীরা। ওই ট্রেনটির লাইন ভুল করার ফলে পেছনের ট্রেনটিও দাঁড়িয়ে পড়ে। তারপরে বেশ কিছুক্ষন চেষ্টার পর বনগাঁ লোকালকে পিছিয়ে নিয়ে গিয়ে আবার এক নম্বর প্লাটফর্মে ঢোকানোর ব্যবস্থা করা হয়। এই ঘটনার ফলে দীর্ঘক্ষন ধরে ডাউন লাইনে ট্রেন চলাচল ব্যাহত হয় বলে জানা গিয়েছে। কিন্তু এই ঘটনা প্রসঙ্গে রেলের তরফ থেকে কোনো রকম সহযোগিতা করা হয়নি এমনকি মধ্যমগ্রাম স্টেশনের স্টেশন মাস্টারও এই বিষয়টি নিয়ে কোনোরকম মন্তব্য করেননি।

খবরে থাকুন, ফলো করুন আমাদের সোশ্যাল মিডিয়ায়

সব খবর সবার আগে, আমরা খবরে প্রথম

Categories