Prothom Kolkata

Popular Bangla News Website

কুড়ুলের কোপে খুন স্ত্রী-ছেলে, বিষ খেয়ে আত্মঘাতী যুবক

1 min read

।। প্রথম কলকাতা।।

দাম্পত্য কলহের জেরে এক মর্মান্তিক ঘটনা। নিত্যদিনই কলহ চলত এই দম্পতির মধ্যে। শনিবার সন্ধ্যায় তার ব্যতিক্রম ঘটেনি কিন্তু এই অশান্তির ফলে যে এমন ভয়ঙ্কর পরিস্থিতি সৃষ্টি হবে তা হয়তো ভাবতে পারেননি স্ত্রী। অবশেষে স্বামীর হাতে খুন হতে হল স্ত্রী এবং পুত্রকে। এখানেই শেষ নয়, স্ত্রী এবং পুত্রের মৃত্যুর পর বিষ খেয়ে নিজে আত্মহত্যা চেষ্টা করলেন যুবক ঘটনাটি ঘটেছে পুরুলিয়ার কাশীপুরের রাঙ্গাডি গ্রামে।

জানা যায়, বছর পঁয়ত্রিশের যুবক গৌতম মাহাতো সেইভাবে কাজ-বাজ কিছু করত না যার ফলে প্রায় প্রতিদিনই সংসারের অশান্তি লেগেছিল তাঁর। শনিবার সন্ধ্যেতে স্ত্রীর সঙ্গে বাকবিতণ্ডা শুরু হয় তাঁর। সেই সময় বদমেজাজি গৌতম বাড়ি থেকে বেরিয়ে যায়। অন্যান্য দিনের মতোই তাঁর স্ত্রী ছেলেকে নিয়ে ঘুমিয়ে পড়েছিলেন। আর সেই সময়ই ঘটল এই ঘটনা। গভীর রাতে বাড়িতে আসে গৌতম আর তারপরেই হাতে থাকা কুড়ুল দিয়ে এলোপাথারি কোপাতে থাকে তাঁর স্ত্রী এবং পুত্রকে। আকস্মিক এই হামলায় স্ত্রী প্রতিরোধ করার কোন সুযোগ পায়নি। যার ফলে সেখানেই মৃত্যু হয় গৌতম স্ত্রী এবং তাঁর পুত্রের।

স্থানীয় সূত্রের খবর , স্ত্রী এবং পুত্রকে কুপিয়ে খুন করার পর নিজের বিষ খেয়ে আত্মহত্যা করতে চেয়েছিল গৌতম কিন্তু সেই মুহূর্তে ঘরের ভেতর থেকে গোঙানির শব্দ পেয়ে প্রতিবেশীরা এসে উপস্থিত হয়। তাঁরা দেখেন যে মেঝের মধ্যে দুটি রক্তাক্ত দেহ পড়ে রয়েছে আর অদূরে গৌতম প্রায় অচৈতন্য অবস্থায় পড়ে আছে। মুখ থেকে গ্যাজলা বেরোচ্ছে তাঁর । স্থানীয়রা তাকে উদ্ধার করে তড়িঘড়ি হাসপাতালে পাঠায়। তাকে নিয়ে আসা হয় কাশীপুর ব্লক প্রাথমিক স্বাস্থ্য কেন্দ্রে।

পুলিশ সূত্রে খবর, মৃতদেহগুলিকে পুরুলিয়ার মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে ময়না তদন্তের জন্য পাঠানো হয়েছে। এখনও পর্যন্ত যেহেতু গৌতম মাহাতোর শারীরিক অবস্থার কোন উন্নতি হয়নি তাই তাকে জেরা করা সম্ভব হচ্ছে না। গৌতম খানিক সুস্থ হলেই পুলিশ জেরা করবে তাকে । কেন এমন নৃশংসভাবে স্ত্রী এবং পুত্র কে খুন করল সে তা খতিয়ে দেখবে পুলিশ।

খবরে থাকুন, ফলো করুন আমাদের সোশ্যাল মিডিয়ায়

সব খবর সবার আগে, আমরা খবরে প্রথম

Categories